• শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বশেফমুবিপ্রবি শিক্ষকের ফেসবুক স্ট্যাটাস

স্যালুট টু সানি, স্যালুট টু অল ডক্টরস

  বশেফমুবিপ্রবি প্রতিনিধি

২৫ এপ্রিল ২০২০, ১২:৫৩
বশেফমুবিপ্রবি
পরিবারের সঙ্গে ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষক ড. মাহমুদুল হাছান (ছবি : সংগৃহীত)

করোনায় ডাক্তারদের প্রথম শ্রেণির যোদ্ধা উল্লেখ করে আবেগ ঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষক ড. মাহমুদুল হাছান। 

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল, ২০২০) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তিনি এই স্ট্যাটাস দেন। 

ড. মাহমুদুল হাছানের আবেগ ঘন সেই স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

মুসলিম বন্ধুদের মাহে রমজানের শুভেচ্ছা। দিন দিন দেশ ভয়াবহ বিপর্যয়ের দিকে এগুচ্ছে। চারদিকে করোনার প্রভাব। পৃথিবী আজ নিস্তব্ধ। নানা সীমাবদ্ধতার মাঝেও ডাক্তাররা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। আমরা যত কিছুই বলি না কেন, আজকের এই মহাযুদ্ধে ডাক্তাররাই প্রথম শ্রেণির যোদ্ধা। ৩৯তম বিসিএসে সদ্য নিয়োগ পাওয়া ডা. সানি এই মহামারির বিরুদ্ধে নিজের জীবনকে তুচ্ছ করে যেভাবে মানুষের সেবা দিয়ে যাচ্ছে, তা দেখে সত্যিই আজ আমি আবেগে আপ্লুত। জানালা দিয়ে বার বার দেখি কিভাবে এক ঝাঁক তরুণ-তরুণী সাদা রংয়ের পিপিই পরে জীবনের মায়া ত্যাগ করে হাসপাতালের রোস্টার ডিউটি পালন করছে। সানি সহ সকল ডাক্তারদের প্রতি রইল আমার অজস্র সালাম ও ভালবাসা।

সানির মত যদি আমিও এই অসহায় সময়ে দেশের মানুষের জন্য কিছু করতে পারতাম, ভাল লাগত। আমাদেরও একটা পিসিআর মেশিন আছে, তবে সেটা গ্র্যাডিয়েন্ট পিসিআর বিধায় করোনা ভাইরাস নির্ণয়ে কাজ করা সম্ভব নয়। গবেষণায় নয়, অন্যভাবে যতটুকু পারি পর্দার আড়ালে কিছু না কিছু আশেপাশের মানুষের জন্য করে যাচ্ছি   . . . .  . . .।

আমি একজন স্বপ্নচারী মানুষ, স্বপ্ন দেখতে আমার ভালো লাগে। বাস্তব জীবনে যেসব জায়গায় হেরেছি, সেসব জায়গায় আমি জিততে চাই। সেজন্য স্বপ্নের আকাশে ঘুরে বেড়াই, স্বপ্ন দেখি বলে আজও টিকে আছি! এত অসহায় আর হাহাকারের মধ্যে আমি এখনও স্বপ্ন দেখি।

একদিন সব ঝড় থেমে যাবে, সবার মুখে হাসি ফুটবে। একদিন ইউনিভার্সিটি খুলবে। সেদিন হিরোশিমার কাগামিয়ামা পার্কের সাকুরা ফুল, বার্লিনের স্প্রিং নদী, সিডনির অপেরা হাউজ কিংবা হারবোর ব্রিজের পড়ন্ত বিকালের সূর্যাস্ত আমার মনের কোনে উঁকি দিবে না। আমি চলে যাব সোজা ল্যাবে, জানালা দিয়ে আমি দেখব বকুল গাছের ডালায় বসে দোয়েল-শালিকের ছোটাছুটি আর শুনব তাদের গান। 

জাহিদ, অভি, বিল্লাল, তুষার, তৃপ্তি আর শর্মিলা-একদিন দরজায় দাড়িয়ে হয়তো বলবে- মে আই কাম ইন স্যার? হিল স্ট্রিমং থেকে আমরাও একদিন মাছ কালেকশন করব। প্রজেক্টের পুকুরে শ্যাওলার পরিবর্তে একদিন অনেক মাছের আনাগোনা দেখব! বায়োডাইভার্সিটির স্প্যাশিস কনসেপ্ট ক্লাসও একদিন শেষ হবে।

একদিন ব্রক্ষ্মপুত্র বা তিস্তা ট্রেনে বাড়ি যাবো। ছাঁদের উপরে লেবু গাছে পানি দিবো। আমি স্বপ্ন দেখি একদিন জানালার পাশের গোলাপের গন্ধে বাড়ি মৌ মৌ করবে আর সানির তৈরি খিচুড়ি আর গরুর গোশত খেতে খেতে  টিভিতে দুপুর ২টা ৩০ মিনিটের  খবরে দেখব বাংলাদেশে মোট আক্রান্ত শূন্য, মোট মৃত্যু শূন্য। রিমোটের বাটন পরিবর্তন করে জিটিভিতে বাংলাদেশের সঙ্গে অন্য কোনো দেশের ক্রিকেট খেলা দেখব, মুশফিকের সেঞ্চুরি আর মোস্তাফিজের ৪ উইকেট, ১৫ রান আর ২টি মেইডেনের বদলে বাংলাদেশের জয়! পুরো দেশ আনন্দে মাতোয়ারা! তামিমের সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা, ত্রই জয় করোনার জন্য যারা জীবন দিল, তাদেরকে উৎসর্গ করা হলো।

ফাহাদের পত্রিকার নিউজের হেড লাইন ‘করোনাকে জয় করে সঠিক প্রবৃদ্ধির পথে হাঁটছে বাংলাদেশ’। সেদিনের তন্দ্রাচ্ছন্ন বিবর্ণ বিকাল আর রঙিন সন্ধ্যা পেরিয়ে, রাত্রে খোলা আকাশে অজস্র তাঁরা আর জোছনার আলো গায়ে মেখে আমি হাঁটব অনন্ত কাল ধরে . . . . . . . . . . . . . .।
Salute to Sani, salute to all doctors…………….

ড. মাহমুদুল হাছানের স্ত্রী ডা. সাইফুন নাহার সানি ধন্যবাদ জানিয়ে কমেন্ট বক্সে লিখেন- ‘এক সপ্তাহ হলো তোমাদের থেকে দূরে আছি। আমাদের ছোট্ট ছেলেটা জন্মের পর এই প্রথম আমার থেকে দূরে আছে। অনেক দুষ্টু  ও। জানি তুমি তোমার সবটুকু ভালোবাসা আর স্নেহ দিয়েই ওকে আগলে রাখবে। আবার কবে তোমাদের সঙ্গে দেখা হবে জানি না। ভালো থেকো, সাবধানে থেকো। অনেক অনেক ভালোবাসা।’

হুমায়ন কবির নামের একজন লিখেছেন, ‘বন্ধু আমি জানি তুমি অনেক ভালো মনের মানুষ, তোমার চিন্তা ভাবনাও দেশ এবং জাতির জন্য অতি জরুরি। আল্লাহ তাআলা যেন সর্বদা তোমার সহায় থাকেন এটাই আমার প্রার্থনা। আর এই সময় ডাক্তার নার্স এবং পিছন থেকে অনেক ভালো মানুষ আছে যারা বিভিন্ন ভাবে দেশের এই ক্রান্তিকালে নিজেদের জীবন বাজি রেখে কাজ করে যাচ্ছে। সৃষ্টিকর্তা যেন তাদেরকে এবং এদের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখেন‌।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড