• রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কাশ্মীর ইস্যুতে মুখ খুলে বিপাকে মাহাথির

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ আগস্ট ২০২০, ১১:৫৭
কাশ্মীর ইস্যুতে মুখ খুলে বিপাকে মাহাথির
সদ্য পদত্যাগী মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ (ছবি : দ্য গার্ডিয়ান)

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিতর্কিতভাবে বাতিলের বর্ষপূর্তিতে কাশ্মীর ইস্যুতে টুইট করেছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। গত ৮ আগস্ট করা সেই টুইটে তিনি বলেন, এখন যেহেতু আমি আর প্রধানমন্ত্রী নই, তাই ধরে নিয়েছি যে আমি এখন বয়কটের হুমকি ছাড়াই কাশ্মীরের সমস্যাটি নিয়ে খোলামেলা কথা বলতে ও বিষয়টি তুলে ধরতে পারব।

মূলত এর পরপরই অনেক টুইটার ব্যবহারকারী তার এই কথার তীব্র সমালোচনা করেছেন।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমি যা বলেছি তার জন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী নই। যদিও আমি এজন্য দুঃখিত যে, এটি ভারতে আমাদের পাম তেল রপ্তানিকে ফতানিকে প্রভাবিত করেছে। আমি জানতাম না, এভাবে অবিচারের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য এতো উচ্চমূল্য মূল্য দিতে হয়।

আরও পড়ুন : ভারতে হামলা চালাতে সীমান্তে ঝাঁকে ঝাঁকে যুদ্ধবিমান চীনের

চীনের নির্যাতিত উইঘুর মুসলিমদের পক্ষে নীরব থাকায় টুইটারে অনেকের সমালোচনার মুখে পড়েন মাহাথির। জয় নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে কথা বলার মতো সাহস আপনার নেই, বেলুচিস্তানে যা ঘটছে তা বলার মতো সাহসও নেই।... পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কথা বলার মতোও সাহস নেই আপনার। হ্যাঁ আপনিও এসবের অংশ।

আরও পড়ুন : চীনে হামলা চালাতে পুরনো রাফাল বিমান কিনেছে ভারত!

ভারতের স্বাধীনতার পর দেশটির সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ জম্মু ও কাশ্মীরকে নিজেদের সংবিধান ও একটি আলাদা পতাকার স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া পররাষ্ট্র সম্পর্কিত বিষয়াদি, প্রতিরক্ষা এবং যোগাযোগ বাদে অন্যসব ক্ষেত্রে স্বাধীনতার নিশ্চয়তাও প্রদান করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন : বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত লেবাননকে যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিল ইসরায়েল

যদিও গত বছরের ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ভারত সরকার। এর ফলে কাশ্মীর স্বায়ত্তশাসিত বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা হারায়। এর স্থলে জন্ম হয় জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ নামে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের। একই সঙ্গে রাজ্যটি হারায় নিজস্ব পতাকা ও স্বশাসনের রক্ষাকবচ।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড