• বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

শিগগিরই হাসপাতাল ছাড়ছেন এ টি এম শামসুজ্জামান

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ মে ২০১৯, ০৩:১৫
এ টি এম শামসুজ্জামান
এ টি এম শামসুজ্জামান (ফাইল ফটো)

রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বরেণ্য অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থার বেশ উন্নতি হয়েছে। সোমবার (২০ মে) এ অভিনেতাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) থেকে কেবিনে স্থানান্তর করেন চিচিৎসকরা।

চিকিৎসকগণরা জানান, এ টি এম শামসুজ্জামান এখন অনেকটাই সুস্থ। তিনি বিছানা ছেড়ে উঠছেন, মাঝে মধ্যেই দাঁড়াচ্ছেন ও স্বাভাবিক খাবার গ্রহণ করছেন। তিনি শিগগিরই বাড়ি ফিরতে পারবেন।

হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের চিকিৎসক ডা. মতিউল ইসলাম বলেন, বরেণ্য এ অভিনেতার সুস্থতার সংবাদ দিতে পেরে ভালো লাগছে। তাকে বিকালে (সোমবার) আইসিইউ থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। কেবিনে অল্প কিছু দিন থাকার পরই তিনি বাড়ি ফিরে যেতে পারবেন।

শামসুজ্জামানের স্ত্রী রুনি জামান বলেন, তিনি আইসিইউ থেকে কেবিনে গেছেন। খুবই ভালো লাগছে, সারাক্ষণ তার কাছাকাছি থাকতে পারব। দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই, তিনি যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরতে পারেন।

এ টি এম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা জানতে সোমবার সকালে হাসপাতালে গিয়েছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন। তিনি দায়িত্বরত চিকিৎসকদের সঙ্গে সার্বিক পরিস্থিতির খোঁজ-খবর নেন।

৭৮ বছর বয়সী এ টি এম শামসুজ্জামান গত ২৬ এপ্রিল রাতে বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। সেদিন রাত ১১টার দিকে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন তার শরীরে একটা অস্ত্রোপচার করা হয়। যদিও সফলভাবে অস্ত্রোপচার হয়, তারপরও বয়সের কারণে তার শারীরিক কিছু সমস্যা দেখা হয়। ফুসফুসে সংক্রমণ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়। তখন তাকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

এ টি এম শামসুজ্জামান বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা, পরিচালক, কাহিনীকার, চিত্রনাট্যকার, সংলাপ লেখক ও গল্পকার। অভিনয়ের জন্য কয়েকবার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। শিল্পকলায় অবদানের জন্য তিনি ২০১৫ সালে একুশে পদক পেয়েছেন।

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড