• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সর্বদলীয় বৈঠক ডেকে নিজেই অনুপস্থিত মোদী

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৯ নভেম্বর ২০২১, ১১:০২
সর্বদলীয় বৈঠক ডেকে নিজেই অনুপস্থিত মোদী
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ছাড়াই সর্বদলীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে (ছবি : দ্য হিন্দু)

দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতের পার্লামেন্টে শীতকালীন অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ। অধিবেশন চলবে আগামী ১৯ দিন। এবারের অধিবেশনকে সামনে রেখে গত রবিবার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হলো সর্বদলীয় বৈঠক। যদিও ওই বৈঠকটি ডেকে নিজেই হাজির ছিলেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এ বিষয়টি নিয়ে এখন তার সমালোচনায় মুখর হয়েছেন তার বিরোধীরা।

যদিও মোদীর পক্ষে অবশ্য সাফাই গেয়ে বলা হচ্ছে, সর্বদলীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতি কোনো ঐতিহ্যের মধ্যে পড়ে না।

এমন এক সময় অধিবেশনটি শুরু হতে যাচ্ছে যার মাত্র দিন কয়েক আগেই ব্যাপক আন্দোলনের মুখে বিতর্কিত তিন কৃষি আইন বাতিলে সম্মত হয়েছিল মোদী সরকার। গতকালের বৈঠকে কৃষকদের দাবি-দাওয়ার বিষয়টিও উঠে এসেছে।

এবার বিরোধী দলগুলোর পক্ষে থেকে কৃষকদের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যকে আইনি স্বীকৃতি প্রদানের দাবিও করা হয়েছে। এছাড়া একটি ঘটনার জন্য স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্র টেনিরকেও বরখাস্তের দাবি করা হয়।

আরও পড়ুন : ইংলিশ চ্যানেলে নৌকাডুবিতে ২৭ শরণার্থীর মৃত্যু

রাজ্যসভায় বিরোধী নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেছেন, কংগ্রেস ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের পাশাপাশি তিনটি কৃষি বিল প্রত্যাহার এবং কোভিড-১৯ ম্যানেজমেন্টের মতো বিষয় তুলেছিল। এদিন তিনিও সর্বদলীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর অনুপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

সরকারের পক্ষ থেকে সাফ বলা হয়, আগে এ ধরনের কোনো বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীরা না এলেও নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হাওয়ার পর নিজে উপস্থিত থেকেছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীই এই ঐতিহ্যের শুরু করেছিলেন। সেই কারণে প্রধানমন্ত্রীর এবারের অনুপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তোলা সমীচীন নয়। কিন্তু নরেন্দ্র মোদীর এই অনুপস্থিতি ঘিরে দলের ভেতরেই প্রশ্ন তুলছেন অনেক আইনপ্রণেতা।

বৈঠক প্রসঙ্গে সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশি দাবি করেন, মোদীজি এই প্রথা চালু করেছিলেন, সর্বদলীয় বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও এবার তিনি নিজেই এখানে থাকতে পারলেন না।

এ দিকে বৈঠকে উপস্থিত হয়ে তৃণমূল নেতারা বলছেন, অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, বিএসএফের কাজের পরিধি বাড়ানো এবং পেগাসাস নিয়ে আমরা সংসদে আলোচনা চাই।

আরও পড়ুন : সুদানে আট দিনের সংঘাতে নিহত ৩৫

বিশ্লেষকদের মতে, এবারের শীতকালীন অধিবেশনে মোট ২৬টি নতুন বিল আনতে যাচ্ছে মোদী সরকার। এর মধ্যে ‘কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল ২০২১’ রয়েছে। প্রথম দিনেই এই সংক্রান্ত বিল আনবে বিজেপি সরকার। যদিও সরকার চাইলেও অধিবেশন যে খুব একটা শান্তিপূর্ণ হবে না, সেই ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন বিরোধীরা।

তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার করলেও ন্যূনতম সহায়ক মূল্য প্রসঙ্গে কৃষকদের দাবি ম্যানে নেয়নি সরকার। আরও কিছু দাবিদাওয়া নিয়ে নয়াদিল্লির সীমান্তে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে কৃষক সংগঠনগুলো।

উল্লেখ্য, বিরোধীদের হট্টগোলের জেরে এর আগে বাদল অধিবেশন বার বার ভেস্তে গিয়েছি। এবার যাতে অধিবেশন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায় তা নিশ্চিত করতেই গতকালের বৈঠকটি ডাকা হয়েছিল।

আরও পড়ুন : কম্বোডিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নরোদম রনঋদ্ধ আর নেই

এ দিকে আম আদমি পার্টির নেতা সঞ্জয় সিং সর্বদলীয় বৈঠক থেকে বেরিয়ে যান। তার অভিযোগ, আন্দোলনকারী কৃষকদের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের দাবি জানাতে চেয়েছিলেন তিনি। যদিও সর্বদলীয় বৈঠকে তাকে সেই বিষয় উত্থাপন করতে দেওয়া হয়নি। তিনি আরও বলেন সর্বদলীয় বৈঠকে কোনো বিরোধীদের কোনো কথা বলতে দেওয়া হয়নি।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড