• মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

বনের নয়, ঘরের রাজা এ সিংহ!

  ভিন্ন খবর ডেস্ক

০১ জুন ২০১৯, ১৫:১৮
সিংহ
ছবি : সংগৃহীত

৩৩ বছর বয়সী পাকিস্তানের মুলতান শহরের বাসিন্দা জুলকাইফ চৌধুরীর 'ঘরের রাজা' এখন সিংহ। রাজকীয় বিছানায় ওই সিংহের সাথে তার এক ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

বনের রাজা সিংহ একথা সবাই জানেন। তবে সেই সিংহই যদি হয় ঘরের রাজা? এমন অদ্ভুতড়ে ঘটনাই ঘটেছে পাকিস্তানে। মুলতান শহরের বাসিন্দা ৩৩ বছর বয়সী জুলকাইফ চৌধুরীর ঘরের রাজা হয়ে আছে এক সিংহ। সম্প্রতি রাজকীয় বিছানায় সিংহের সাথে তোলা তার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। 

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ডেইলি মেইলে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, ছয় বছর আগে পাকিস্তানি ওই যুবক একটি সিংহের বাচ্চা কেনেন। আর সেই সিংহশাবকটিকেই তিনি স্বাধীনভাবে ছেড়ে দেন নিজের ঘরে। পুরো ঘরজুড়ে রাজত্ব চালায় সেই সিংহ। 

তিনি সিংহটির নাম দিয়েছেন বাবর। ছয় মাস পর বর্তমানে বাবরের ওজন দাঁড়িয়েছে ১৬৮ পাউন্ডের বেশি। প্রতিদিন ১৭ পাউন্ডের বেশি কাঁচা মাংস খায় সে। জুলকাইফের সেই রাজকীয় বাঙ্গোলোতে নির্দ্বিধায় ঘুরে বেড়ায় বাবর। তার জন্য রয়েছে নিজস্ব কিং সাইজ বিছানা, রুমে রয়েছে এসিও। 

জুলকাইফের দুই বছরের একটি ছেলে রয়েছে। তিনি কখনো বাবরের গলায় চেইন পরাবেন না বলে জানিয়েছেন। তিনি সিংহটিকে পোষা কুকুরই মনে করেন। 

পাকিস্তানি এই ‍যুবক বলেন, বাবর আমার সন্তানের মতো। যখন আমি ওকে আমার বাসায় নিয়ে আসি তখন তার হাসি ছিল দুই মাস। ছয় মাস ধরে আমার সঙ্গে বাস করছে সে। 

বাবরের প্রতি জুলকাইফের এই ভালোবাসা কিন্তু বেশ ব্যয়বহুল। তিন হাজার ২০০ পাউন্ডে (৩ লাখ ৪০ হাজার ৭৮৫ টাকা) কেনা বাবরের পেছনে জুলকাইফের প্রতিদিন খরচও হয় অনেক। প্রতি মাসে বাবরের খাবারের পেছনে তার খরচ হয় দুই হাজার ৪০০ পাউন্ড (দুই লাখ ৫৫ হাজার ৬০০ টাকা)। 

ওডি/এনএম 

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড