• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ইমরানের উদ্যোগে ইরান-সৌদির সাড়া ইতিবাচক : পাকিস্তান

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৪:০০
ইমরান খান
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। (ছবিসূত্র : দ্য ডন)

মধ্যপ্রাচ্যে চলমান সঙ্কট নিরসন এবং শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এবার অঞ্চলটি সফরে রয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। যদিও এরই মধ্যে পাক প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের পর সাড়া দিয়েছে মুসলিম অধ্যুষিত সৌদি আরব। যে কারণে বিষয়টিকে এক রকম সফলতার সঙ্গে দেখছে পাকিস্তান।

পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরাইশি বলেছেন, ‘উপসাগরীয় অঞ্চলে উত্তেজনা প্রশমনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রচেষ্টায় তেহরানের পর সম্পূর্ণ ইতিবাচকভাবে সাড়া দিয়েছে রিয়াদ। যে কারণে অঞ্চলটিতে শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রতিবেশীদের একটি সুযোগ দিতে ইসলামাবাদের সঙ্গে একমত হয়েছে তারা। 

পাকিস্তানের জনপ্রিয় গণমাধ্যম ‘দ্য ডনে’র প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত বুধবার (১৬ অক্টোবর) রাতে রাজধানী ইসলামাবাদে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

কোরাইশির ভাষায়, ‘সৌদি এবং ইরানি নেতৃবৃন্দ ইমরান খানের উদ্যোগে ইতিবাচকভাবে সাড়া দিয়েছেন। তারা উভয় পক্ষই আলোচনার মাধ্যমে মতপার্থক্য দূর করতে কূটনৈতিক পথই বেছে নেওয়ার বিষয়ে একমত পোষণ করেছে।’

সংশ্লিষ্টদের বরাতে গণমাধ্যমের দাবি, এ দিন সৌদি সফররত পাক প্রধানমন্ত্রী বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ এবং যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে পৃথক বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। যেখানে ইমরান খান তার ইরান সফরের অভিজ্ঞতা এবং প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির বিভিন্ন মন্তব্য তুলে ধরেছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এবার রিয়াদে পাকিস্তানি প্রতিনিধিদের আঞ্চলিক সংঘাত নিয়েও নেতাদের মধ্যে বিস্তর আলোচনা হয়। তাছাড়া ইরানের বর্তমান মানসিকতা ও পরিস্থিতি নিয়ে ইসলামাবাদের দৃষ্টিভঙ্গিও তুলে ধরা হয়েছে।

এ দিকে গত রবিবার (১৩ অক্টোবর) পাক প্রধানমন্ত্রী তেহরান সফরে গেলে ইরানি নেতৃবৃন্দ তার শান্তি প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানান। পরবর্তীতে এক সাক্ষাৎকারে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেছিলেন, ‘সরাসরি কিংবা কোনো মাধ্যম ব্যবহার করে রিয়াদের সঙ্গে আলোচনায় তেহরান সব সময়ই প্রস্তুত।’

অপর দিকে এসবের প্রেক্ষিতে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী কোরাইশি বলেন, ‘আলোচনার মূল বক্তব্য তুলে ধরতে চাইলে এবার আমাকে কেবল এটাই বলতে হবে যে, গোটা মধ্যপ্রাচ্যে পুঞ্জীভূত হওয়া যুদ্ধ ও সংঘাতের মেঘ কেটে গেছে। এখন শুধু শান্তির দিকে সবাইকে অগ্রসর হতে হবে।’

আরও পড়ুন :- ইমরানের মধ্যস্থতায় এবার বরফ গলছে সৌদি-ইরানের

এবার মূলত আঞ্চলিক সংঘাত কমানোর লক্ষ্যে যথাযথ ভূমিকা পালনে পাক প্রধানমন্ত্রীর এই সফর উল্লেখ করে কোরাইশ বলেন, ‘যে কোনো সংঘাত আঞ্চলিক এবং বৈশ্বিক অর্থনীতির জন্য বিপর্যয়কর পরিণতি বয়ে আনবে। তাই আমরা সকলেই এসব সংঘাত থেকে নিজেদের রক্ষায় সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহণে অগ্রসর হতে চাই। তাছাড়া ইমরানের এই সফরে ইয়েমেনে একটি অস্ত্র বিরতির সম্ভাবনাও উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে।’

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড