• মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

ভারতে চিকিৎসক ধর্মঘট, বিপাকে রোগীরা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ জুন ২০১৯, ১৬:৩৭
চিকিৎসক ধর্মঘট
ভারতে চিকিৎসক ধর্মঘট (ছবিসূত্র : এনডিটিভি)

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে জুনিয়র চিকিৎসককে নিগ্রহের ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সকল দাবি পূরণের আশ্বাসের পরও গোটা দেশে চলছে চিকিৎসক ধর্মঘট। পশ্চিমবঙ্গে টানা ৬ দিন ধরে চলা ধর্মঘটের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে এরই মধ্যে ধর্মঘটে বসেছেন দেশের সব রাজ্যের চিকিৎসকরা। 

এনডিটিভির খবরে জানানো হয়, সোমবার (১৭ জুন) সকাল থেকে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) ডাকে দেশজুড়ে এই ধর্মঘটে নামেন দেশের সব সরকারি হাসপাতাল কর্মীরা। এ দিন সকাল ৬টায় শুরু হওয়া এই ধর্মঘট চলবে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা। 

এই সময়ের মধ্যে হাসপাতালগুলোতে একমাত্র জরুরি বিভাগ এবং আউটডোর ছাড়া বন্ধ রাখা হয়েছে বাকি সব ধরনের চিকিৎসা সেবা। যে কারণে এক রকম দুর্ভোগে রয়েছেন রোগী ও তাদের স্বজনরা। 

এর আগে গত সোমবার (১০ জুন) পশ্চিমবঙ্গের এনআরএস মেডিক্যাল কলেজে রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে স্বজনদের হাতে একজন জুনিয়র চিকিৎসক আহত হন। পরবর্তীতে এর ন্যায়বিচার চেয়ে শুরু হয় বিক্ষোভ। তখন ডাক্তাররা কর্মবিরতিতে গেলে মমতা তাদের কাজে ফিরতে 'হুঁশিয়ারি' দেন, আর এরপরই কঠোর অবস্থান নিয়েছে আন্দোলনকারী চিকিৎসকরা।

মূলত এর অংশ হিসেবে চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল মেডিক্যালসহ রাজ্যের প্রায় সব হাসপাতালেই শুরু হয় ইস্তফার প্রক্রিয়া। যেখানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এই পদত্যাগী চিকিৎসকদের সংখ্যা। এরই মধ্যে সাত শতাধিক চিকিৎসকের ইস্তফা দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে। যে তালিকায় নাম লিখিয়েছেন চারজন অধ্যক্ষসহ বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সুপার পর্যন্ত। 

গত শুক্রবার (১৪ জুন) সিউড়ি হাসপাতালের সুপার শোভন দে বলেছিলেন, 'চিকিৎসকরা ইস্তফা দিবেন বলে শুনেছি। কিন্তু এখনো আমার কাছে কারও কোনো ইস্তফার চিঠি আসেনি।'

এ দিকে নজিরবিহীন এই পরিস্থিতিতে গোটা পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি গোটা দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা হুমকির মুখে রয়েছে। যে কারণে দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ভুক্তভোগী রোগীর স্বজনরা।

আরও পড়ুন :- 'ব্যাপারটা এত দূর গড়াবে বুঝিনি, দয়া করে সব ঠিক করুন'

অপর দিকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সঙ্গে এরই মধ্যে বিক্ষোভরত চিকিৎসকদের একটি আলোচনার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। যে কারণে আজ রাজ্যের বেশকিছু হাসপাতালের কর্মীরা এই ধর্মঘটে যোগ দেননি। তাছাড়া গত রবিবার এই প্রতিবাদ প্রত্যাহার করে নিয়েছে দিল্লির এইএমস এর রেসিডেন্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনসহ আরও বেশ কিছু সংগঠন।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড