• বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গরু পাচারকারী সন্দেহে ভারতীয় কিশোরকে হত্যা করে বিপাকে বিএসএফ

সীমান্তে উত্তেজনা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ আগস্ট ২০২০, ১৩:৫৭
গরু পাচারকারী সন্দেহে ভারতীয় কিশোরকে হত্যা করে বিপাকে বিএসএফ
সীমান্ত দিয়ে গরু পাচার করা হচ্ছে (ছবি : দ্য হিন্দু)

গরু পাচারকারী সন্দেহে এবার নিজেদের দেশের এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করল ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কোচবিহারের বালাভূতে।

এ দিকে ঘটনার পর থেকে বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সেখানকার মানুষজন দফায় দফায় বিএসএফের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

সংবাদমাধ্যমটি তাদের প্রতিবেদনে জানায়, গরু পাচারকারী সন্দেহে ওই কিশোরকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বিএসএফের জওয়ানরা। রবিবার (৮ আগস্ট) দিবাগত রাতে বাংলাদেশে পাচারের উদ্দেশ্যে প্রায় ৮০টি গরু কোচবিহারের তুফান গঞ্জের বালাভূত এলাকায় জড়ো করেছিল পাচারকারীরা।

এমন খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করে বিএসএফের ৬২ নম্বর ব্যাটালিয়ন। যদিও বিএসএফের উপস্থিতি টের পেয়ে পাচারকারীরা বোমা মেরে ঘটনা স্থল ত্যাগ করে। পরে বিএসএফ সদস্যরা একটি বাড়ির সামনেই শাহিনুরকে দেখতে পেয়েই এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই কিশোরের মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা বিক্ষোভ দেখালে বিএসএফ জওয়ানরা এলাকা ছেড়ে চলে যায়।

আরও পড়ুন : গাজায় ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল

সংবাদ প্রতিদিন জানায়, এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। তাদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে স্থানীয়রা। মরদেহ উদ্ধারেও বাধা দেয় উত্তেজিত জনতা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় পুরো এলাকা। দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশের আশ্বাসে কিছুটা শান্ত হয় পরিস্থিতি।

আরও পড়ুন : সীমান্তে চীনের ১৫ হাজার সেনা, উদ্বিগ্ন ভারত

স্থানীয়দের ভাষ্য, তাঁতের শাড়ি তৈরির কাজে যুক্ত ওই কিশোরকে অন্যায়ভাবে হত্যা করা হয়েছে। অবশ্যই অভিযুক্ত জওয়ানদের শাস্তি দিতেই হবে। তবে এ বিষয়ে বিএসএফের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের বিবৃতি পাঠানো হয়নি।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড