• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যে অ্যাপ দিয়েই নিয়ন্ত্রণ করা যায় পুরো অফিস 

  প্রযুক্তি ডেস্ক

২১ অক্টোবর ২০১৯, ১৬:৪১
প্রযুক্তি-চীন
ডিংটক অ্যাপ, ছবি : সংগৃহীত

প্রযুক্তি জগতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অনেকেই ডিংটক নামটি শুনেছেন। আবার কারও কারও কাছে এটা একেবারেই অপরিচিত মনে হতে পারে। তবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এরই মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আলিবাবার এই উদ্যোগটি। ডিংটক মূলত একটি সফটওয়্যার, যা ব্যবহার করে একটি অ্যাপও তৈরি করা হয়েছে।

চীনের আলিবাবা গ্রুপের উদ্যোগ ডিংটক অ্যাপ এবং সফটওয়্যারটি যোগাযোগ ও সহযোগিতার প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে এই প্লাটফর্ম ব্যবহৃত হচ্ছে। কোনো একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মধ্যে যোগাযোগ, সহযোগিতা এবং সমন্বয় সাধনের জন্য ডিংটক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আর এজন্যই ব্যবসায়ী বা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের কাছে এটি খুবই জনপ্রিয়।

২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে ডিংটকের যাত্রা শুরু হয়। যোগাযোগ এবং সহযোগিতার এই প্লাটফর্ম দিয়ে টেক্সট, ছবি, ভয়েস ও ভিডিও বার্তা পাঠানো যায়। কোনো অফিসের সব কর্মীর মধ্যে কার্যকর যোগাযোগ স্থাপনের জন্য ডিংটক বেশ সহায়ক একটি প্লাটফর্ম। বর্তমানে চীনে প্রায় ৫০ লাখেরও বেশি প্রতিষ্ঠান এই সেবাটি ব্যবহার করছে।

ডিংটকের সিকিউরিটি কেমন

ডিংটক সেবাটি বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং অফিসে ব্যবহৃত হয়। এজন্য এই প্লাটফর্ম ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেয় ডিংটক কর্তৃপক্ষ। এটা চীনের অ্যাপগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি যা আইএসও/আইইসি-২৭০০১ : ২০১৩ সনদ পেয়েছে।

ডিংটক কমিউনিকেশনের সুবিধা

ফোন/চ্যাট : ডিংটকের মাধ্যমে একটি গ্রুপ চ্যাটে ৩ হাজার সদস্য যুক্ত হতে পারেন।

ভয়েস কনফারেন্সিং : একটি মাত্র ক্লিকের মাধ্যমেই গ্রুপ চ্যাটের সর্বোচ্চ ৫০ জন সদস্য একসঙ্গে ভয়েস কনফারেন্সিংয়ে যুক্ত হতে পারেন। চীনের বাইরের গ্রাহকরা শুধু ভয়েস ওভার আইপির মাধ্যমে এই সুবিধা পাবেন।

ভিডিও কনফারেন্সিং : ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে সর্বোচ্চ ১৬ জন একসঙ্গে যুক্ত হতে পারেন। ডিংটকের ভিডিও কনফারেন্সিং সুবিধা খুবই উন্নতমানের। এছাড়া এতে আরও বেশকিছু সুবিধা রয়েছে।

ডিং মেইল : চ্যাটের মতো করেই দরকারি সব ইমেইল আদান-প্রদান করতে ডিং মেইল ব্যবহার করা হয়।

রিড-আনরিড স্ট্যাটাস : কোনো সদস্য ভুলে যেন কোনো মেসেজ বাদ না দিয়ে যান সেজন্য রিড-আনরিড স্ট্যাটাস রয়েছে।

সিক্রেট চ্যাট : অনেক সময় সম্পূর্ণ সুরক্ষিত কথোপকথনের প্রয়োজন হয়। এক্ষেত্রে ডিংটকের সিক্রেট চ্যাট বেশ কার্যকরী। সিক্রেট চ্যাট মুডে কোনো মেসেজ পড়ার ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে বার্তাগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিলিট হয়ে যাবে। এছাড়া এই মুডে কোনো মেসেজ কপি-পেস্ট করা যায় না। সিক্রেট চ্যাটে থাকা দুজন সদস্যের প্রোফাইল পিকচারেই এ সময় মুখোশ দেওয়া থাকবে।

অফিস অটোমেশনের জন্য ডিংটকের যেসব সুবিধা আছে

উপস্থিতি : ডিংটক সফটওয়্যারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় উপস্থিতি নিশ্চিত করা যায়। অর্থাৎ, অফিসের কর্মীরা কে কখন প্রবেশ করছেন কিংবা কখন বের হচ্ছেন তা এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে নজরদারি করা যায়।

আবেদন : কর্মক্ষেত্রের সব টুল একত্রে নিয়ে আসতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে ডিংটক। ছুটির আবেদন, বিজনেস ট্রিপের আবেদন ইত্যাদি সব ধরনের আবেদন একসঙ্গে একই জায়গায় রাখার সুযোগ দেয় ডিংটক। এই সফটওয়্যার এবং অ্যাপের মাধ্যমে কোন আবেদনগুলো অনুমোদন দেয়া হয়েছে, কোনগুলো অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে তা সহজেই দেখা যায়। এছাড়া কর্মীরাও এর মাধ্যমে অনেক আবেদন সহজেই করতে পারেন।

ডিং ড্রাইভ : এর মাধ্যমে ফাইল আদান-প্রদান আরও সহজ হয়। এতে নিবন্ধনকৃত সবকটি প্রতিষ্ঠানের জন্য বিনামূল্যে স্টোরেজ ব্যবস্থা আছে।

লগ : এতে একটি প্রতিষ্ঠানের সব কাজের হিসাব থাকে। গত দিন, কিংবা এক সপ্তাহ বা একমাস আগে কী কাজ হয়েছে তার হিসাব থাকবে লগ অপশনে। এতে কাজের বিভিন্ন সমস্যা সহজেই চিহ্নিত করা সম্ভব।

ঘোষণা : অনেক সময় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে অনেক ঘোষণাই দিয়ে থাকেন। এই ফিচারের সাহায্যে ঘোষণা দিলে ওই প্রতিষ্ঠানের সবাই ঘোষণা সম্পর্কিত একটি নোটিফিকেশন মুহূর্তেই পেয়ে যাবেন।

ডিংটক কর্তৃপক্ষ যেসব সুবিধা দেয়

  • ফোনের মাধ্যমে নিজেদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ দেয় ডিংটক কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে এই সুবিধাটি সংশ্লিষ্ট দেশের জন্য প্রযোজ্য হতে হবে।
  • প্রয়োজনে মাঠ পর্যায়ের সহায়তাও দিয়ে থাকে ডিংটক। এর মধ্যে আছে ডিংটক সফটওয়্যার কার্যকর করতে প্রয়োজনীয় সহায়তা এবং কোনো প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা।

ডিংটক যেখানে পাওয়া যাবে

ডিংটক মূলত চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সামনে রেখেই তৈরি করা হয়েছিল। তবে বর্তমানে এই অ্যাপটির ইংরেজি ভার্সনও রয়েছে, যা গুগল প্লে-স্টোর এবং অ্যাপল অ্যাপ স্টোরে পাওয়া যায়। এছাড়া এই অ্যাপটি ডেস্কটপেও ব্যবহার করা যাবে।

ওডি/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড