• সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জীবাণুযুদ্ধের হাতিয়ার ‘করোনা’, প্রথম আক্রান্ত হন বিজ্ঞানীরা!

  প্রযুক্তি ডেস্ক

০৫ এপ্রিল ২০২০, ১৮:৩৭
করোনা ভাইরাস
করোনা ভাইরাস (ফাইল ছবি)

নোভেল করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর ভয়াল গ্রাসে যেন ভেঙেচুরে যাচ্ছে পৃথিবী। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সংক্রমণে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। এরই মাঝে যদি বলা হয় করোনা কোনো ভাইরাস নয়, এটি জীবাণুযুদ্ধের জন্য তৈরি করা চীনের একটি হাতিয়ার, তবে নিশ্চিই অবাক হবেন?

সম্প্রতি এমন তথ্যই উঠে এসেছে বিভিন্ন প্রতিবেদনে, যা ইতোমধ্যেই দেশ-বিদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমেও প্রকাশিত হয়েছে।

যদিও আমেরিকা, ইসরায়েল ও ইরান শুরু থেকেই দাবি করে আসছে- চীনের ল্যাবে থেকেই ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। তবে এবার এই  তিন দেশের সঙ্গে সুর মেলালো ব্রিটেনও। অন্যদিকে বিশেষজ্ঞদের দাবি, প্রাণীদেহ থেকেই মারণব্যাধি করোনার জীবাণু ছড়িয়েছে। তারপরেও চীনের গবেষণাগার থেকে জীবাণু ছড়ানোর তত্ত্ব উড়িয়ে দিচ্ছে না ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন জরুরিকালীন কমিটি (কোবরা)।

তবে তাদের এমন অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে ব্রিটেনের চীনা দূতাবাস। সে দেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত জেং রংয়ে বলেছেন, ‘এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। এই ধরণের অভিযোগ চীন ও তার নাগরিকদের আত্মত্যাগকে অসম্মানিত করছে। যদি চীনের গবেষণাগারে এই জীবাণু তৈরি হত, তাহলে সেখানে এত মৃত্যু ঘটত না।’

পুরো পৃথিবীর বিজ্ঞানীরা হন্যে হয়ে প্রতিষেধক আবিষ্কারের চেষ্টা চালিয়ে গেলেও এখনো প্রাণঘাতী এই ভাইরাসকে প্রতিরোধের কার্যকর উপায় করতে পারেননি। এমনকি করোনার উৎপত্তি নিয়েও এখনো ধোঁয়াশা রয়েছে। এমতাবস্থায় অনেকেরই অভিযোগ, জৈব অস্ত্রে শত্রুদের ঘায়েল করতেই পরীক্ষাগারে এই মারণ জীবাণু বানিয়েছিল চীন। সেখান থেকেই সারা বিশ্বে এটি ছড়িয়ে পড়ে।

এ প্রসঙ্গে সম্প্রতি ডেইলি মেইল ২০১৮ সালে চীনের সংবাদপত্র পিপলস ডেইলি চায়নার একটি প্রতিবেদনের কথা তুলে ধরেছে। যেখানে বলা হয়েছিল, ‘চীনের ভাইরোলজি ইনস্টিটিউট ইবোলার চেয়ে ভয়ংকর এক জীবাণু নিয়ে গবেষণা করছে।’

অন্যদিকে, করোনা ভাইরাস চীনে ছড়িয়ে পড়লে দেশটির গবেষকরা দাবি করেন, বাদুড় বা অন্য কোনো প্রাণী থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়েছে। তবে মজাদার বিষয় হলো- ৩০ মিলিয়ন ডলার খরচ করে বানানো ওই প্রতিষ্ঠানটি বণ্যপ্রাণী বাজার থেকে মাত্র ১০ মাইল দূরে অবস্থিত। এমতাবস্থায় অনেক গবেষকদের ধারণা, এই মারণ জীবাণুতে প্রথম আক্রান্ত হয়েছিলেন উহানের ওই পরীক্ষাগারের বিজ্ঞানীরা। পরে এটি বাইরে ছড়িয়ে পড়ে।

এ দিকে, ডেইলি মেইলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কোবরা কমিশনের এক সদস্য জানান, ইউহানের গবেষণাগারে যে এই জীবাণু তৈরি হয়েছিল, সেই সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন : করোনার ছোবলে মৃত্যুর মিছিলে ইতালির পরেই বাংলাদেশ!

এর আগে করোনাকে জৈব অস্ত্র দাবি করে বক্তব্য রেখেছিলেন ইসরায়েলি ও মার্কিন বিজ্ঞানীরা। ‘জেনেটিক্যালি মডিফায়েড’ এই করোনা ভাইরাসের জন্মদাতা চীনের উহানের বায়োসেফটি ল্যাবোরেটরি লেভেল ফোর বলে দাবি করেছিলেন মার্কিন আইনজীবী ও রাসায়নিক মারণাস্ত্র বিরোধী সংগঠনের অন্যতম সদস্য ড. ফ্রান্সিস বয়েল। ওই সময় তিনি দৃঢ়তার সঙ্গে বলেছিলেন, ‘শক্তিশালী রাসায়নিক মারণাস্ত্র করোনা ভাইরাস, ছড়িয়েছে উহানের ল্যাব থেকেই।’

ওডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড