• সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চুরি করে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করা যাবে?

  ধর্ম ও জীবন ডেস্ক

০৭ অক্টোবর ২০১৯, ১২:০৭
wifi_odhikar
ছবি : প্রতীকী

ইন্টারনেট বর্তমানে মানুষের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে। পড়াশোনা, অফিশিয়াল কাজ কিংবা চিত্তবিনোদন, ইন্টারনেট ছাড়া আজ যেন আর চলেই না। ইন্টারনেটকে আরও সহজলভ্য করে তুলেছে ওয়াই-ফাই সুবিধা। একটা ল্যান থেকে একই সাথে ব্যবহার করতে পারছে বহু মানুষ। এর বাইরেও কিছু মানুষ পাসওয়ার্ড হ্যাক করে অথবা কোনো সফটওয়ারের মাধ্যমে চুরি করে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে থাকে। এটা কি আদৌ ঠিক? চলুন জেনে নেয়া যাক, ইসলাম এ ব্যাপারে কী বলে। 

প্রথম কথা হলো, পাসওয়ার্ড হ্যাক করে বা বিনা অনুমতিতে অন্যের ওয়াই-ফাই ব্যবহার করাটা একধরনের চুরি। চুরি করা মুমিনের কাজ নয়। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘কোনো চোর (পূর্ণাঙ্গ) মুমিন থাকাবস্থায় চুরি করে না।’ [মুসলিম, আসসাহিহ : ১০৬] 

দ্বিতীয় কথা হলো, যেহেতু ওয়াই-ফাই জোনের মালিকের বিল পরিশোধ করেন, তাই এভাবে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করার দ্বারা মালিকের হক নষ্ট করা হয়। সুতরাং অবৈধভাবে বিদ্যুৎ, গ্যাস ব্যবহারের মতো অবৈধভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারও নিষিদ্ধ। সাহাল ইবনু সা’দ (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে এসেছে, একবার নবিজির কাছে কিছু পানীয় দ্রব্য আনা হলো। তিনি তা থেকে কিছুটা পান করলেন। তাঁর ডান দিকে বসা ছিল একটি বালক, আর বাঁ দিকে ছিলেন বয়োজ্যেষ্ঠরা। তিনি বালকটিকে বললেন, ‘এ বয়োজ্যেষ্ঠদের দেওয়ার জন্য তুমি আমাকে অনুমতি দেবে কি?’ তখন বালকটি বলল, ‘না, হে আল্লাহর রাসুল, আল্লাহর কসম! আমি আপনার কাছ থেকে প্রাপ্য আমার অংশে কাউকে অগ্রাধিকার দেব না।’ বর্ণনাকারী বলেন, তখন নবিজি (সা.) পানির পেয়ালাটা তার হাতে ঠেলে দিলেন। [বুখারি, আসসাহিহ : ২৪৫১]

আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে এসেছে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি তার ভাইয়ের সম্ভ্রমহানি বা অন্য কোনো বিষয়ে যুলুমের জন্য দায়ী থাকে, সে যেন তার কাছ থেকে মাফ করিয়ে নেয় সেদিন আসার পূর্বেই, যে দিন তার কোনো দিনার বা দিরহাম থাকবে না।’ [বুখারি, আসসাহিহ : ২৪৪৯] 

পাসওয়ার্ড হ্যাক করে, বিভিন্ন সফটওয়ারের মাধ্যমে বিনা অনুমতিতে, চুরি করে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করা ইসলাম অনুমতি দেয় না। বিষয়টাকে যদিও আমরা হালকা করে দেখছি, কিন্তু এগুলোই হয়তো কিয়ামতের দিন ভয়াবহ শাস্তির আকারে আমাদের ওপর আপতিত হতে পারে। সুতরাং আমাদের সচেতন হওয়া উচিত। ইতিপূর্বে যা হয়ে গেছে তার জন্য ওয়াইফাই মালিকের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। 

প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ব্যখ্যা, সমাজের কোন অমীমাংসিত বিষয়ে ধর্মতত্ত্ব, হাদিস, কোরআনের আয়াতের তাৎপর্য কিংবা অন্য যেকোন ধর্মের কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সর্বপরি মানব জীবনের সকল দিকে ধর্মের গুরুত্ব নিয়ে লিখুন আপনিও- [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড