• মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মসজিদ আবাদ রাখার কৌশল অবলম্বন করতে হবে

  মুনশি আমিনুল ইসলাম

২৪ মার্চ ২০২০, ১৬:১০
ইসলাম
ছবি : সংগৃহীত

করোনা পরিস্থিতির কারণে জুমার নামাজ ও জামাতে নামাজ আদায় নিয়ে নানা ধরনের প্রশ্ন উঠেছে। এ অবস্থায় উপমহাদেশের অন্যতম ধর্মীয় বিদ্যাপীঠ ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে। মূলত করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার যেসব দিক-নির্দেশনা দিচ্ছে, সেগুলো মেনে চলার জন্য মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে গতকালের নির্দেশনায়।

দেওবন্দের ওই আহ্বানে বলা হয়, করোনা ভাইরাস থেকে দেশ ও জাতিকে বাঁচাতে সরকার যে কারফিউ বা লকডাউন জারি করেছে, সেগুলো মেনে চলা আমাদের কর্তব্য। এ ক্ষেত্রে নিজেরাও সতর্ক থাকবেন ও অন্যদেরও সতর্ক থাকতে বলবেন।

দারুল উলুম দেওবন্দের আবেদন

দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত উদ্বেগজনক পরিস্থিতি সামনে রেখে দেশের সকল নাগরিক, বিশেষত মুসলমানদের কাছে আমরা অনুরোধ করছি যে, এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জারিকৃত নির্দেশনা অনুসরণ করুন এবং প্রিয় মাতৃভূমিকে এই মহামারি থেকে নিরাপদ রাখতে সহায়তা করুন।

করোনা ভাইরাসের কারণে প্রশাসন যেসব স্থান লকডাউন করেছে এবং জনসমাগম ইত্যাদি থেকে কঠোরভাবে নিষেধ করছে, সেসব স্থানের মসজিদ কর্তৃপক্ষের করণীয় হলো, মসজিদকে অনাবাদ (জামাত সহকারে নামাজ আদায় থেকে বঞ্চিত হওয়া) থেকে রক্ষা করার জন্যে এমন কোনো কর্মকৌশল অবলম্বন করবেন, যার ফলে একদিকে আইন রক্ষা পাবে অন্যদিকে মসজিদ আবাদ থাকবে।

তার একটি সম্ভাব্য সমাধান হলো, যেসব স্থানে গণজমায়েত থেকে কঠোরভাবে নিষেধ করা হচ্ছে সেখানকার ইমাম, মুয়াজ্জিন ও কয়েকজন মহল্লাবাসী মসজিদে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আজানের সঙ্গে জামাত সহকারে আদায় করবেন। মহল্লার অন্যান্য নাগরিক নিজ নিজ ঘরে নামাজ আদায় করবেন। আর যেখানে এ ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টি না হবে, সেখানকার অধিবাসীদের করণীয় হলো- অজু ও তৎসংশ্লিষ্ট প্রয়োজনাদি সেরে ঘরেই সুন্নত নামাজ আদায় করবেন। জামাতের সময় মসজিদে এসে পরস্পরে দূরত্ব বজায় রেখে অবস্থান করবেন। ফরজ নামাজ শেষে সুন্নত নামাজসমূহ ঘরে গিয়ে আদায় করবেন।

মসজিদ কর্তৃপক্ষের করণীয়

মসজিদের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার প্রতি বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখবেন। প্রত্যেক মুসলমান এ বিশ্বাস লালন করবেন যে, কোনো রোগ বা মহামারি আল্লাহর হুকুম ব্যতীত কারো মাঝে সংক্রমিত হতে পারে না। মানুষের গুনাহের প্রভাবে মহামারির প্রাদুর্ভাব ঘটে। এ জন্য সকল মুসলমানের জন্যে সমীচীন হলো, নিজের দীনি হালত পরিশোধিত করবেন। নিয়মিত সযত্নে নামাজ আদায় করবেন। সকল গুনাহ বর্জন করবেন এবং বেশি বেশি তওবা-ইসতিগফার করবেন। মহান আল্লাহ আমাদের সবাইকে তাওফিক দিন।

মাওলানা আবুল কাসিম নুমানি
মুহতামিম, দারুল উলুম দেওবন্দ
২৭ রজব ১৪৪১ হি. / ২৩ মার্চ ২০২০

প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ব্যখ্যা, সমাজের কোন অমীমাংসিত বিষয়ে ধর্মতত্ত্ব, হাদিস, কোরআনের আয়াতের তাৎপর্য কিংবা অন্য যেকোন ধর্মের কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সর্বপরি মানব জীবনের সকল দিকে ধর্মের গুরুত্ব নিয়ে লিখুন আপনিও- [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড