• মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

কার্বণ নিঃসরণের মাত্রা কমানোর দাবীতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের সমাবেশ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৩ জুলাই ২০১৯, ২০:২৩
হিজড়া
সমাবেশ শেষে র‍্যালীতে যোগ দেন তৃতীয়লিঙ্গের মানুষেরা। (ছবি : দৈনিক অধিকার)

জলবায়ুর বিপর্যয় স্বীকার করে জলবায়ু বিপর্যয় জনিত জরুরী অবস্থা ঘোষণা করার পাশাপাশি বিশ্ব নেতৃত্বের ওপর কার্বণ নিঃসরণ কমানোর জন্য  চাপ সৃষ্টিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরা। রাজধানীতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের এক সমাবেশে এসব দাবী জানানো হয়। সমাবেশে বলা হয়, জলবায়ুর বিপর্যয়ের ক্ষতিকর প্রভাব শুধু কোনো দেশ বা জনগোষ্ঠী নয়, সারা বিশ্বের প্রাণ-প্রকৃতি আজ হুমকির মুখে। জলবায়ু বিপর্যয়ের প্রতিরোধে এখনই আমাদের বড় পরিবর্তনের জন্য সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই ২০১৯)  এসইএন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইয়ুথ ক্লাইমেট নেটওয়ার্ক, সচেতন সমাজ সেবা হিজড়া সংঘ, সাদা কালো হিজড়া উন্নয়ন সংগঠন এবং ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবীইং বাংলাদেশ এর উদ্যোগে ধানমন্ডিতে আবাহনী খেলার মাঠের সামনে হিজড়া জনগোষ্ঠীদের সমাবেশ ও র‌্যালি থেকে বক্তারা এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

সচেতন সমাজ সেবা হিজড়া সংঘের প্রেসিডেন্ট ইভান আহমেদ তার বক্তব্যে বলেন, "জলবায়ু দূর্যোগ একটি বৈশ্বিক বিষয় হলেও  বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বাংলাদেশ। যার ফলে গত ২০ বছরে খরা, ঘূর্ণিঝড়, রেকর্ড পরিমান তাপমাত্রা বৃদ্ধি, বন্যা, ও জলোচ্ছাস, শিলাবৃষ্টি, টর্নেডো এবং সাইক্লোনের মাত্রা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

হিজড়া

জলবায়ুর বিপর্যয় ঠেকাতে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানানো হয়। (ছবি : দৈনিক অধিকার) 

সাদা কালো হিজড়া উন্নয়ন সংগঠনের সদস্য নিশাত বলেন, জলবায়ু বিপর্যয়ের ক্ষতি অর্থ দিয়ে সমাধান করা যাবে না। এর জন্য প্রয়োজন কার্বন নিঃসরণের হার কমানো। আমরা চাই যে সকল দেশগুলো অধিক কার্বন নিঃসরণ করছে, তারা এর ব্যবহার কমিয়ে নিয়ে আসবে। বাংলাদেশ ইয়ুথ ক্লাইমেট নেটওয়ার্ক এর উন্নয়নকর্মী হাসনা বলেন,  "আমরা এখনই যদি কার্বন নিঃসরণকারী দেশগুলোকে তাদের কার্বনের মাত্রা কমাতে বাধ্য না করি তবে পুরো দুনিয়া ঝুঁকির মধ্যে পড়বে।"

সভাপতির বক্তব্যে ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবীইং বাংলাদেশ এর উপদেষ্টা দেবরা ইফরইমসন বলেন, "টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) ১৩ নম্বর লক্ষ্যে জলবায়ু বিপর্যয়ের প্রভাব মোকাবেলায় জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করা বলা হয়েছে। জলবায়ু বিপর্যয়ের বিষয়টি আমরা এখনো গুরুত্ব সহকারে দেখছি না। কাজেই জলবায়ুর বিপর্যয় স্বীকার করে জলবায়ু বিপর্যয় জনিত জরুরী অবস্থা ঘোষণা করতে হবে। পাশাপাশি কার্বন নিঃসরণের মাত্রা কমানোর জন্য বিশ্বনেতৃত্বের উপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে। আর তা না হলে শুধু ক্ষতিপূরণ দিয় বাংলাদেশকে বাঁচানো যাবে না।"

বাংলাদেশ ইয়থ ক্ল্যাইমেট নেটওয়ার্ক এর সদস্য শান্তনু বিশ্বাস এর সঞ্চালনায় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার সৈয়দা অনন্যা রহমান, আইডাব্লিউবি এর প্রকল্প কর্মকর্তা বরণী দালবত, স্টপ ইমেশনস নাও বাংলাদেশ এর কো-অডিনেটর মনজুর হাসান দিলু, এনশিওর আওয়ার রাইটস এর সানজিদা আক্তার, আইডাব্লিউবি এর পলিসি অফিসার মাসুম বিল্লাহ ভূইয়া, বাংলাদেশ ইয়ুথ ক্লাইমেট নেটওয়ার্ক এর সদস্য মাহামুদুল হাসান প্রমুখ।

ওডি/এসএম  

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড