• বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

sonargao

কক্সবাজারে ৬-৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে 'আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ'

  শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার

০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:৩৯
আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর আয়োজনে আগামী ৬ থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজারের উখিয়া ইনানীতে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নৌ বাহিনীর কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন। তারা বলেন, আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউতে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত এবং প্রতিবেশী মিয়ানমারসহ প্রায় ৩০টি দেশের নৌ-বাহিনী প্রধান, জাহাজ অংশ নেবেন।

সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের একটি চিঠি অনুসারে, মার্কিন প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবহরের কমান্ডার অ্যাডমিরাল স্যামুয়েল জে পাপারো জুনিয়র, ভারতীয় নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল আর হরি কুমার এবং ভারতীয় কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক বীরেন্দ্র সিং পাঠানিয়াসহ অন্যদের সঙ্গে কক্সবাজার সফর করার কথা রয়েছে।

এদিকে, এএফডি, সিভিল এভিয়েশন অথরিটি বাংলাদেশকে কক্সবাজার বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন এবং কাস্টমস পরিষেবা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারত সহ বন্ধুত্বপূর্ণ দেশগুলির জন্য বিমান পার্কিং এবং নিরাপত্তা প্রদান সহ কিছু অতিরিক্ত সুবিধা স্থাপনের জন্য অনুরোধ জানান।

চীনের জাতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, তাদের গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার চাংশা (হুল ১৭৩) শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে।

নৌ গোয়েন্দা পরিচালক কমডোর মনিরুজ্জামান বলেন, আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ভারতের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণের কথা থাকায় তাদের প্রস্তুতি পুরোদমে চলছে।

সূত্রমতে, চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, থাইল্যান্ড, চীন, মায়ানমার ও মালয়েশিয়ার জাহাজ এই সমাবেশে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, অস্ট্রেলিয়া, চীন, তুরস্ক, মিশর, নাইজেরিয়া, সুদান, ভারত, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, তিমুর-লেস্তে থেকে নৌ প্রতিনিধিরা। ওই সমাবেশে ইরান, ওমান, ফিলিস্তিন ও সৌদি আরব উপস্থিত থাকবেন।

একজন কর্মকর্তা বলেছেন, আইএফআর আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য হবে ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরে নৌবাহিনীর মধ্যে সম্পর্ক গভীর করা।

সামরিক বিশ্লেষক অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল শহীদুল হক বলেন, বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো নৌবহর পর্যালোচনা হবে দেশের বৈশ্বিক ব্যস্ততার বহিঃপ্রকাশ। এটি একটি খুবই ভাল উদ্যোগ।

লিবিয়ায় বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত শহিদুল হক অবশ্য আন্তর্জাতিক ব্যস্ততায় কোনো ভূ-রাজনৈতিক বা কৌশলগত প্রভাব দেখতে পান না।

নৌবাহিনী সদর দপ্তর বিশ্বাস করে, আইএফআর-২০২২ বিশ্বের নৌবাহিনীর জন্য একটি আদর্শ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে। যাতে তারা বাংলাদেশের জলসীমায় বিশ্ব নৌবাহিনীর সাথে যোগাযোগের পাশাপাশি তাদের দক্ষতা, নৌ কূটনীতি, শুভেচ্ছা ও সহযোগিতা করতে পারে। এছাড়াও বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে পর্যটন ও অবকাঠামো উন্নয়নের ভুমিকা রাখতে পারে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো: মামুনুর রশীদ বলেন,আগামী ৭ ডিসেম্বর বুধবার বাংলাদেশ নৌবাহিনীর উদ্যোগে আয়োজিত আইএফআর সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ওই দিন উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ইমামের ডেইল (বাইলাখালী) এলাকার “লাল কাঁকড়ার সৈকত” দেখার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-কে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে আমন্ত্রণ জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউকে সামনে রেখে কক্সবাজার পর্যটন শহরসহ বিভিন্ন কারুকাজে সজ্জিত করা হয়েছে পুরো এলাকা। সাগরের গভীরতা নির্ণয় করার জন্য স্থাপন করা হয়েছে বয়া। অব্যাহত রয়েছে ড্রেজিং কার্যক্রম। সৌন্দর্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে স্থানীয় ছোট বোটগুলোকে বাংলাদেশ এবং অন্যান্য দেশের পতাকা দিয়ে সাজানো হয়েছে। মেরিন ড্রাইভ সড়কের দু’পাশে দেয়া হয়েছে নানা রকমের ব্যানার পেস্টুন। দৃষ্টিনন্দন করে সাজানো হয়েছে সম্মেলন স্থল।

এর আগে, বাংলাদেশ নৌবাহিনী ২০১৭ সালের নভেম্বরে কক্সবাজারে ইন্ডিয়ান ওশান নেভাল সিম্পোজিয়াম বহুপাক্ষিক মেরিটাইম অনুসন্ধান ও উদ্ধার মহড়ার অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড