• রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

সৃজনশীলতার খোঁজে

  জাওয়াদ আহমদ

০৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:৩৬
শো দ্য ক্রিয়েটিভিটির প্রতিষ্ঠাতা
জাওয়াদ আহমদ (ছবি : সংগৃহীত)

সোশ্যাল মিডিয়া তো আমরা সবাই ব্যবহার করি। কিন্তু এর বিকল্প ব্যবহার কিংবা নিজের সৃজনশীল কাজগুলোকে সবার সামনে তুলে ধরার জন্য কতজনই বা ব্যবহার করি? কিংবা এ ব্যাপারে কি কখনো ভেবেছি?

সোশ্যাল মিডিয়া আরও কার্যকরী এবং আরও নিজের উপকারী করে ব্যবহার করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে 'শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি (Show The Creativity)'।

শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি (Show The Creativity) এমন একটি অনলাইন প্লাটফর্ম যেখানে যে কেউ তার সৃজনশীল কাজগুলো কে সবার সামনে তুলে ধরতে পারবেন, ঠিক তেমনি আপনার যেকোনো কাজের প্রয়োজনে আপনিও পছন্দমত খুঁজে নিতে পারবেন একজন সৃজনশীল ব্যক্তিকে।

এতে করে আপনার যেমন সৃজনশীল দক্ষ কর্মী খুঁজে পাবার সম্ভাবনা রয়েছে, তেমনি সম্ভাবনা রয়েছে আপনি ভাল কোন জায়গা পৌছে যাবার। সাধারণত আমরা আমাদের ফেসবুক প্রোফাইল টিকে শুধুমাত্র নিজেদের ছবি আপলোড বা বিভিন্ন পোস্ট বা চেক ইন দিতেই চলে যায়। আবার অনেকে দেখা যায় নিজেদের সৃজনশীল কিছু কাজ যেমন- ড্রইং, ফটোগ্রাফি, ভিডিওগ্রাফি কিংবা কবিতা শেয়ার করে থাকি। কিন্তু আমাদের প্রোফাইলে সবার কাছে আমাদের সেই কাজগুলো পৌছানো হয় না। আবার এমন কোন প্লাটফর্ম নেই যেখানে গিয়ে আমাদের সেই কাজগুলোকে কেউ গিয়ে সেটি দেখতে পারবে।

শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি (Show The Creativity) পেজটিতে যুক্ত রয়েছেন এমন হাজারো সৃজনশীল কর্মীরা। ফলে যে কেউ এই প্লাটফর্মটিতে যুক্ত হয়ে এখানে তার সৃজনশীল কাজ শেয়ার করার মাধ্যমে তার কাজগুলো দেখাতে পারে হাজার হাজার ফেসবুক ইউজারকে। ২০১৮ সালের জুলাই মাসের ২৯ তারিখ থেকে যাত্রা করা এই অর্গানাইজেশনটি এক বছরে ফেসবুক গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ১৭ হাজার ২শ জনেরও বেশি এবং পেইজে ফলোয়ার ১২ হাজার এরও বেশি সংখ্যক সদস্য।

শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি অর্গানাইজেশন শুধুমাত্র সৃজনশীল কাজ পৌছে দেওয়ার কাজই করছে না সেই সঙ্গে টেকসই উন্নয়নের (এসডিজি) ৩য় এবং ৪র্থ লক্ষ্য অর্জনে জাতিসংঘের সহযোগী অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে। এই লক্ষ্যগুলো হলো- সুস্থ দেহ এবং সুন্দর জীবন এবং গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষা ব্যবস্থা।

শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি (Show The Creativity) এখন শুধু অনলাইনেই না, কাজ করে যাচ্ছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলোতে। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার, ফেসবুকের যথাযথ ব্যবহার ও উপকারী ও অপকারী দিক নিয়ে সচেতনতা ও দিক নির্দেশনামূলক বিভিন্ন সেমিনার ও ওয়ার্কশপ চালিয়ে যাচ্ছে ।

এই প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সারা বাংলাদেশের ৩৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৮০ জনেরও বেশি ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর যুক্ত আছে। এরই মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি সারা বাংলাদেশে ৩৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩৫ টিরও বেশি ওয়ার্কশপ সম্পন্ন করেছে। এই স্বল্প সময়ে ৬ জন গ্রাফিক্স ডিজাইনারকে বিভিন্ন কোম্পানিতে পার্ট টাইম জব দিতে সক্ষম হয়েছে। যাদের মধ্যে সবাই স্টুডেন্ট। ২ জন আর্টিস্টকে, যারা কিনা ড্রয়িং করে তাদেরকে ড্রয়িং নিয়ে কাজ করার জন্য প্লাটফর্ম করে দিয়েছে এই প্রতিষ্ঠান। বিট বক্সিং এর একটি গ্রুপকে আমরা মিডিয়ার কাছে তুলে ধরেছি, এমনকি এখন তারা রেডিও এবং স্টেজ পারফর্মও করছে বিভিন্ন প্রোগ্রামে।

এ পর্যন্ত এই সংগঠনের প্রত্যেকটি ইভেন্ট এবং ওয়ার্কশপ এক্সিকিউটিভ সদস্য ও গ্রুপ মেম্বারদের সহায়তা নিয়ে সম্পন্ন করা হয়েছে। যদি উপযুক্ত স্পন্সর পাওয়া যায় তাহলে প্রতিষ্ঠানের সামনের অগ্রযাত্রা আরও সফল হবে।

লেখক : চিফ অব ম্যানেজমেন্ট, শো দ্য ক্রিয়েটিভিটি

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড