• শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

বোমা হামলার শঙ্কায় দিল্লি বিমানবন্দরের কার্যক্রম স্থগিত

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৩ আগস্ট ২০১৯, ১৩:১২
দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চলছে বোমা তল্লাশি। (ছবিসূত্র : দ্য হিন্দুস্তান টাইমস)

বিমানবন্দরে বোমা হামলা চালানো হবে, আচমকা এমনই এক হুমকি পাওয়ার পর ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ২ নম্বর টার্মিনাল থেকে সব যাত্রীকে তাৎক্ষণিক সরিয়ে নেয় কর্তৃপক্ষ। এতে প্রায় বেশ কিছুক্ষণের জন্য ব্যাহত হয় বিমানবন্দরটির যাবতীয় কার্যক্রম। 

কর্তৃপক্ষের বরাতে গণমাধ্যম 'দ্য হিন্দু' জানায়, সোমবার (১২ আগস্ট) স্থানীয় সময় রাতে প্রায় ৭০ মিনিটের মতো সেখানকার সকল কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ থাকার পর রাত আনুমানিক ১০টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসে। 

স্থানীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের মতে, এ দিন রাত আটটা ৪৯ মিনিটে দিল্লি পুলিশ বিমানবন্দরটির টার্মিনাল ২ এলাকায় বোমা হামলার হুমকি রয়েছে বলে একটি উড়ো খবর পায়। পরে অবশ্য কর্মকর্তারা সেখানে দীর্ঘক্ষণ পর্যবেক্ষণ করে বোমা কিংবা এমন কোনো দাহ্য পদার্থের অস্তিত্ব খুঁজে পাননি।

এর আগে গত ৫ আগস্ট (সোমবার) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রধের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ ও জম্মু ও কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে এশিয়ার পরাশক্তি চীন; আর ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে।

এ দিকে গোটা রাজ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এরই মধ্যে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত সেনা সদস্য। গ্রেফতার করা হয়েছে স্থানীয় শতাধিক নেতাকে। এমনকি বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট ও মোবাইল পরিষেবা পর্যন্ত। যে কারণে বিরাজ করছে এক রকম থমথমে পরিস্থিতি। 

অপর দিকে গত বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) দেশের ১৯টি গুরুত্বপূর্ণ বিমানবন্দরকে বিদ্যমান নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরালো করতে সতর্ক করা হয়। আগামী ১৫ আগস্ট ভারতীয় স্বাধীনতা দিবসের আগে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ওই নির্দেশনা দিয়েছিল অ্যাভিয়েশন নিরাপত্তা তদারকি সংস্থা বিসিএএস।

দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পুলিশের ডেপুটি কমিশনার সঞ্জয় ভাটিয়া গণমাধ্যমটিকে বলেন, 'সোমবার রাতে বোমা হামলার হুমকি পাওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করে সতর্ক করা হয়।' 

সঞ্জয় ভাটিয়ার মতে, 'নিবিড়ভাবে টার্মিনাল ২ পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। বিস্তারিত তল্লাশি অভিযান চালিয়েও সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়নি। ফোনদাতাকে চিহ্নিত করা হয়েছে কিন্তু তিনি এই ধরনের কোনো কল করার কথা অস্বীকার করেছেন।'

আরও পড়ুন :- কাশ্মীর সীমান্তে যুদ্ধের আশঙ্কা : প্রস্তুতি নিচ্ছে পাকিস্তান

তিনি আরও বলেন, 'এই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ধারায় একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে। এরই মধ্যে বিষয়টির তদন্ত কাজও শুরু হয়েছে। যদিও সম্পূর্ণ পরিস্থিতি পর্যালোচনা শেষে একই দিন রাত আনুমানিক দশটার কিছু পরে টার্মিনাল ২ এর কার্যক্রম এক উচ্চ পর্যায়ের ঘোষণার মাধ্যমে স্বাভাবিক করা হয়।'

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড