• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

রাশিয়ান কোম্পানি 'ফেইসঅ্যাপ'-এর ঝুঁকি, তদন্তের আহ্বান এফবিআইকে

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৮ জুলাই ২০১৯, ১৯:০৮
ফেইসঅ্যাপ
নিরাপত্তার ঝুঁকির কারণে আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ২০২০-এর প্রার্থী ও প্রচারণাকারীদের এই অ্যাপ ব্যবহারে সতর্ক করা হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কয়েকদিন ধরেই একটা অ্যাপ ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। নিজের বয়সকে বৃদ্ধ বা তরুণ বয়সের মুখাবয়বে রূপান্তর করাই যে অ্যাপের কাজ। নেটিজেনরা এই ফিচারটি ব্যবহার করে কিছু ফিল্টারিংয়ের মাধ্যমে তাদের রূপান্তরিত ছবি পোস্ট করছেন, অল্প কিছুদিনের মধ্যেই যা বিশ্বে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলে। সম্প্রতি মার্কিন এক সিনেটর রাশিয়ান তৈরি এই অ্যাপ নিয়ে নিরাপত্তার ঝুঁকি অনুসন্ধানে এফবিআই-কে আহ্বান জানান। 

মার্কিন সংখ্যালঘু সিনেট নেতা চাক শুমার টুইটারে এক পোস্টের মাধ্যমে মার্কিন নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্য, শত্রু দেশের কাছে চলে যাওয়ার ব্যাপারে 'গভীর উদ্বেগ' প্রকাশ করেছেন। সম্প্রতি রাশিয়ান কোম্পানির তৈরি এই অ্যাপ ভাইরাল হয়ে গেলে প্রাইভেসি ঝুঁকি নিয়ে উদ্বিগ্নতা বেড়ে যায়।

যদিও ৮ কোটির বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারীর ফেইসঅ্যাপ নামের কোম্পানিটি এমন অভিযোগ আগেই অস্বীকার করেছে। রাশিয়ার সেইন্ট পিটার্সবার্গভিত্তিক কোম্পানি ওয়ারলেস ল্যাব বলছে, 'স্থায়ীভাবে চিত্রগুলো সংরক্ষণ এবং তথ্যগুলির ট্রোভ সংগ্রহ করা হয় না। শুধুমাত্র সম্পাদনার জন্য ব্যবহারকারীদের আপলোডকৃত নির্দিষ্ট ছবিই ব্যবহার করা হয়। 

'রাশিয়ায় অবস্থিত কোম্পানির মূল আর অ্যান্ড ডি দলের কাছেও গ্রাহকদের কোনো তথ্যও পাঠানো হয় না' বলে কোম্পানির একটি বিবৃতি উদ্ধৃত করে সংবাদ সাইট টেকক্রাঞ্চ জানায়।

শুমার যদিও এফবিআই এবং ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)-কে ফেইসঅ্যাপ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। তার চিঠিতে লেখা হয়েছে, 'যেসব তথ্য আপলোড করা হচ্ছে তা সংরক্ষণ এবং সেসব তথ্যের প্রবেশাধিকার কারা পাচ্ছে তা গ্রাহকরা জানে কি না, উভয় বিষয়েই আমি গভীর উদ্বিগ্ন।' 

রাশিয়া-আমেরিকার দ্বন্দ্ব বিশ্ব পরিচিত। ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে এখনো নির্দিষ্ট কিছু প্রমাণ করতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। ট্রাম্পের জয়ের পেছনে পুতিনের হস্তক্ষেপ নিয়ে মার্কিন রাজনৈতিকদের মনে এখনো সন্দেহ রয়ে গিয়েছে। ফের প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনের আগে রাশিয়ার এমন এক ফিচারে উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে।  

ইতোমধ্যেই, ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ও তাদের প্রচারণাকারীদের অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার না করার জন্য মার্কিন ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটি জানায়। নিরাপত্তা কর্মকর্তা বব লর্ড জানান, 'ঠিক এই মুহূর্তে গোপনীয়তার কী কী ঝুঁকি রয়েছে তা স্পষ্ট নয়, তবে এটা স্পষ্ট যে, অ্যাপটির ব্যবহার না করলে ঝুঁকি এড়ানোর সুবিধা মিলবে।'

২০১৭ সালে ব্যবহারকারীদের তোলা সেলফিতে জাতিগতভাবে পরিবর্তন করার অনুমতি দেয়ার একটি ফিল্টারের জন্য বিশ্বে ব্যাপক সমালোচিত হয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। পরে অবশ্য কোম্পানিটি ক্ষমা চেয়ে ফিল্টার প্রত্যাহার করে নেয়। 'বিবিসি নিউজ' 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড