• মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

কাশ্মীরে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা আল-কায়েদা প্রধানের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ জুলাই ২০১৯, ১৯:২১
আল-কায়েদা প্রধান আয়মান আল-জওয়াহিরি
আল-কায়েদা প্রধান আয়মান আল-জওয়াহিরি. ছবি : স্ক্রল ইন

ভারত শাসিত জম্মু-কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার বিরুদ্ধে এবার সরাসরি যুদ্ধ ঘোষণা করল জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদা। কাশ্মীরে তারা 'জিহাদ'-এর ডাক দিয়ে সংগঠনের তরফ থেকে সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে ভারতীয় সেনা এবং কাশ্মীর উপত্যকার সরকারের ওপর জঙ্গিদের আপোসহীন আঘাত হানার নির্দেশে দিয়েছে আল-কায়েদা প্রধান আয়মান আল-জওয়াহিরি।

দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর কাশ্মীর নিয়ে সম্প্রতি কড়া অবস্থান নিয়েছে মোদী সরকার। সন্ত্রাসের সঙ্গে কোনও রকম আপোস করা হবে না বলে বার্তা দিয়েছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। যারপর কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বাড়ি বাড়ি দফায় দফায় ব্যাপক ধরপাকড় চালানো হয়। তদন্ত শুরু হয়েছে তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব নিয়েও। এমন পরিস্থিতিতে উপত্যাকার জঙ্গিরা যাতে মনোবল না হারায়, তার জন্যই জওয়াহিরি এই বার্তা দিয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

২০১২ সালে ওসামা বিন লাদেন প্রতিষ্ঠিত আল-কায়েদারপ্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে পূর্ব আফ্রিকার সন্ত্রাসী সংগঠন হরকত আল-শাবাব আল মুজাহিদিন। সম্প্রতি তারাই জওয়াহিরির ওই ভিডিও সামনে এনেছে। সেটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে ওয়াশিংটনের জাতীয় নিরাপত্তা এবং পররাষ্ট্র নীতি সংক্রান্ত সংগঠন 'ফাউন্ডেশন ফর ডিফেন্স অব ডেমোক্র্যাসিস'। নিজেদের লং ওয়ার জার্নাল ওয়েবসাইটে জওয়াহিরির বার্তা সবিস্তারে প্রকাশ করেছে তারা।

সাদা পোশাক পরে, ডান দিকে আগ্নেয়াস্ত্র এবং বাঁ দিকে কোরআন নিয়ে 'ডোন্ট ফরগেট কাশ্মীর' নামের ভিডিওটিতে কথা বলতে শুরু করে জওয়াহিরি। তাতে সে বলে, 'আমার মতে, এই মুহূর্তে ভারতীয় সেনাবাহিনী এবং রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আপোসহীন আঘাতকেই প্রাধান্য দেয়া উচিত কাশ্মীরের মুজাহিদদের। ভেঙে গুঁড়িয়ে দিতে হবে অর্থ ব্যবস্থাকে, যাতে লোকবল এবং সরঞ্জাম, সবক্ষেত্রেই মুখ থুবড়ে পড়ে ভারত।' 

জওয়াহিরি আরও বলেন, 'কাশ্মীরের লড়াই কোনও আলাদা লড়াই নয়, বরং ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়ের জিহাদ। সর্বত্র এই বার্তা পৌঁছানো উচিত। যে কাফেররা মুসলিম দেশগুলিকে দখল করে রেখেছে, যতদিন পর্যন্ত তাদের তাড়ানো যাচ্ছে, ততদিন কাশ্মীর, ফিলিপিন্স, চেচনিয়া, মধ্য এশিয়া, সিরিয়া, আরব উপমহাদেশ, সোমালিয়া, ইসলামিক মাঘরেব (উত্তর অফ্রিকার মুসলিম দেশগুলি) এবং তুর্কেস্তানে জিহাদকে সমর্থন করা বিশ্বের সমস্ত মুসলিমের নৈতিক দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।'

সীমান্ত সন্ত্রাসের মাধ্যমে কাশ্মীরে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালাচ্ছে পাকিস্তান, সে কথাও তুলে ধরে জওয়াহিরি। সেই সঙ্গে ভারত এবং পাকিস্তান— দুই দেশকেই আমেরিকার দালাল বলেও কটাক্ষ করে সে। 

পাকিস্তানের কাশ্মীর নীতিকে তালিবান এবং অনুপ্রবেশকারী জঙ্গিদের সঙ্গে তুলনা করে জওয়াহিরি বলে, 'আফগানিস্তান থেকে রাশিয়াকে হটানোর পরেও আরব মুজাহিদিনকে কাশ্মীরে ঢুকতে দেয়নি পাকিস্তান। রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে মুজাদিনকে শুধুমাত্র ব্যবহার করে এসেছে তারা। কাজ ফুরোলে নির্যাতন করে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে।' ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের সংঘাতে আসলে ধর্মের কোনও জায়গা নেই, মার্কিন গোয়েন্দারা এই সীমান্ত বিরোধে কলকাঠি নাড়ে বলেও মন্তব্য করে জওয়াহিরি।

চলতি বছরের শুরুতে সেনা অভিযানে মৃত্যু হয় কাশ্মীরের জাকির মুসার, যাকে ভারত কুখ্যাত জঙ্গি বলে পরিচয় দিয়েছে। আল-কায়েদারশাখা সংগঠন আনসার গাজওয়াত-উল-হিন্দের প্রধান ছিল সে। ভিডিওতে সরাসরি জাকিরের উল্লেখ না করলেও, কথা বলার সময় জওয়াহিরির পেছনে রাখা ডিজিটাল স্ক্রিনে জাকির মুসার ছবি ভেসে ওঠে। কাশ্মীরে মুজাহিদদের নাশকতায় উৎসাহ দিলেও মসজিদ, বাজার এবং মুসলিম জনসমাগমের জায়গাগুলি এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয় জওয়াহিরি।
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"ভারত".*')) AND id<>74266 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড