• রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

ভারতে শিবসেনার যুগ শুরু

বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণে যেকোনো মূল্যে অধ্যাদেশ : শিবসেনা

সংসদ শুরুর আগেই শিবসেনা সাংসদরা অয্যোধ্যায়

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৬ জুন ২০১৯, ১৩:২৮
অয্যোধ্যা
শিবসেনা প্রধান উদ্দাভ ঠাকুর ও তার পুত্র আদিত্য ঠাকুরসহ অয্যোধ্যায় শিবসেনার ৮ সাংসদ। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির জয়ের মাধ্যমে উগ্র হিন্দুত্ববাদী শিব সেনা যে দেশটির রাজনীতির এক গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে চলে আসবে তা অনেক আগে থেকেই আঁচ করা গিয়েছিল। নির্বাচনে দলটি থেকে একাধিক নেতাও দেশটির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। অযোধ্যায় সেই বাবরি মসজিদের স্থানে শিব সেনার দাবি করা রাম মন্দিরেই শিবসেনা প্রধান উদ্দাভ ঠাকুর ও তার পুত্র আদিত্য ঠাকুর আজ রাম লাল্লার একটি অস্থায়ী মন্দিরে পূজা করতে পৌঁছান। 

শনিবার (১৫ জুন) থেকেই উত্তর প্রদেশের স্থানটিতে শিব সেনার ৮ সাংসদ ক্যাম্পিং করে অবস্থান করে আছেন। সোমবার (১৭ জুন) দেশটির নবনির্বাচিত সরকারের প্রথম লোকসভা অধিবেশন শুরু হতে যাচ্ছে, আর তার আগে অযোধ্যার এই মন্দিরে রাম লাল্লার আশীর্বাদ নিতে যান শিব সেনার সাংসদরা, যে স্থানটি হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গার ভয়াবহ স্মৃতি ধারণ করে আছে। 

ভারতের কেন্দ্রীয়মন্ত্রী অরবিন্দ সাওয়ান্ত ও দলটির মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত পিতা-পুত্রকে স্বাগত জানান। গত বছর নভেম্বরে তিনি অযোধ্যা সফর করেছিলেন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বের সরকারকে রাম মন্দির নির্মাণের তারিখ ঘোষণার জন্য অনুরোধ করেছিলেন।

ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআইর কাছে শিব সেনা প্রধান উদ্দাভ ঠাকুর বলেন, 'আগামীকাল থেকে লোকসভা অধিবেশন শুরু হবে, তাই সংসদে প্রবেশের আগেই শিব সেনার সংসদ সদস্যরা অযোধ্যার রাম লাল্লারের আশীর্বাদ নিতে এসেছেন। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, খুব শীঘ্রই এখানে একটি মন্দির নির্মাণ করা হবে।'

এখানে মন্দির নির্মাণের জন্য যেকোন অধ্যাদেশে সম্মতি জানাবে শিব সেনা। তিনি বলেন, 'আমরা অধ্যাদেশ জারি করতে বলেছি। আমি নিশ্চিত যে, রাম মন্দিরটি নিশ্চিতভাবেই নির্মাণ করা হবে। আমি এখানে দ্বিতীয়বার মতো আছি ... এটা এমন এক স্থান যেখানে আপনি ফিরে আসতেই চাইবেন। আর সরকারের শক্তিশালী আদেশ রয়েছে, তাদের কেউ থামাতে পারবে না। সরকারের সিদ্ধান্তকে কেউ থামাবে না। দেশ ও পৃথিবীর হিন্দুরা এই (রাম মন্দির) চায়।'

২০১৮ সালের নভেম্বরে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের অয্যোধ্যায় একটি রাম মন্দির নির্মাণে সমর্থন জোরদার করার জন্য বিশাল জনসমাবেশ করলে অযোধ্যা একটি দুর্গে পরিণত হয়েছিল। আইনি প্রক্রিয়া অবজ্ঞা করার জন্য সরকারকে একটি অধ্যাদেশ বা নির্বাহী আদেশ পাস করার দাবি করা হয় সেই জনসমাবেশের বৈঠক থেকে। সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলা মুলতুবি রয়েছে।

শিব সেনা নেতা প্রিয়াংকা চতুরভেদী রবিবার (১৬ জুন) সকালে টুইট করে জানান, 'ফের রাম লাল্লা দর্শনে শ্রী উদ্দাভ ঠাকুর জি আজ তার করা প্রতিজ্ঞা রেখেছেন। নির্বাচনের পর অয্যোধ্যায় ফিরে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। আজ তিনি আদিত্য ঠাকুর জি ও তার দলের নির্বাচিত সাংসদদের সাথে সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছেন।'

অযোধ্যার এই স্থানে হিন্দুদের ভগবান রামের জন্মভূমি নাকি বাবরি মসজিদের জমি তা নিয়ে বিবাদ শুধু জমি সংক্রান্তই নয়। এটা 'অনুভূতি ও বিশ্বাস' এর মধ্যে একটি গভীর জটিল বিষয়। দেশটির সুপ্রিম কোর্ট বিভিন্ন দরখাস্তকারীদের প্রতিক্রিয়া শুনে ৬ মার্চ তারিখে বলেছিল যে, কয়েক দশকের এই বিবাদ সমাধানে একটা মধ্যস্থতা সাহায্য করবে।  মামলাটি আদালতের নিযুক্ত মধ্যস্থতাকারীকে উল্লেখ করার বিষয়ে তার সিদ্ধান্ত সংরক্ষিত রেখে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বে একটি বেঞ্চ বলেন, 'এটি শুধুমাত্র সম্পত্তি নয়। এটি মনের, হৃদয় এবং নিরাময় সম্পর্কের ব্যাপার।'
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"ভারত".*')) AND id<>69092 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড