• সোমবার, ০৫ জুন ২০২৩, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০  |   ৩৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মালয়েশিয়ায় কাজ আছে-বেতন নেই, দেশে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকি

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:

২৫ মার্চ ২০২৩, ১৫:৩০
মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়ায় কাজ আছে বেতন নেই! বেতন চাইলে দেশে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে মালিক পক্ষ। মালয়েশিয়ায় নতুন আসা বাংলাদেশি কর্মীদের সাথে এরকম ঘটনা ঘটছে। কেউ সাহস করে প্রতিবাদ করছেন আবার কেউ কেউ নিরবে সয়ে যাচ্ছেন, বেতন পাওয়ার আশায়। এতে কোনোটাই কাজে আসছে না। হুকুমের গোলাম হয়ে থাকতে হচ্ছে বাংলাদেশিদের।

নরসিংদীর মো: সাকিব খাঁন (২৬) দালাল মামুনের মারফতে ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা দিয়ে ঢাকার শাহীন ট্রাভেল্স এর মাধ্যমে গত নভেম্বরে মালয়েশিয়ার চায়না কন্সট্রাকশন ইয়াংজি সার্ভিস এসডিএন কোম্পানিতে আসেন। প্রথমে মালয়েশিয়ার বানতিং এ রাখা হয় তাকে। পরে কেডাহ কোলিম হাইটেক সাইটে সাকিবসহ ৩৪ জন এ কোম্পানিতে কাজ করছেন। সকাল থেকে সন্ধ্যা , ওভারটাইম , ছুটির দিনে তিন গুণ কাজ করেও বেতন পাচ্ছেন না তারা। কাজ বন্ধ করে প্রথম ২ মাসের বেতন পেলেও তিন মাসের বেতন পাননি এখনও। কোম্পানি মানছে না লেবার আইন। বেতন চাইতে গেলেই মালিক পক্ষ দেশে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে এবং মারধর করতে আসে ।

এ দিকে পবিত্র রমজান মাসে দেশে মা বাবাকে টাকা পাঠাতে পারেননি ৩৪ জনের কেউই। একই কথা জানালেন, যশোরের রোমান (৩২) ও সিরাজগন্জের সাগর (২৭)। নরসিংদীর সাকিব জানালেন, তাদের যেখানে রাখা হয়েছে নেই পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা। গাদাগাদি করে থাকতে হচ্ছে। নেই পর্যাপ্ত টয়লেটও। মালয়েশিয়ার চায়না কন্সট্রাকশন ইয়াংজি সার্ভিস এসডিএন কোম্পানির মালিক পক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাদের কাউকেই পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে জানতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করা হলে শ্রম শাখার মিনিষ্টার মো: নাজমুছ সাদাত সেলিম জানান, এ বিষয়ে কোম্পানির সঙ্গে কথা হয়েছে। যত দ্রুত কর্মীদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

তিনি আরও জানান, যদি কোনো কর্মী সমস্যায় থাকেন বা মালিকপক্ষের আচরন সম্পর্কে হাইকমিশনকে অবিহিত করলে, হাইকমিশন দ্রুত সমাধানের চেষ্টা করবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড