• রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভারতীয় সেনার গুলিতে দাদার মৃত্যু, বুকে বসে কাঁদছে নাতি 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০২ জুলাই ২০২০, ০৯:৪১
ভারতীয় সেনার গুলিতে দাদার মৃত্যু, বুকে বসে কাঁদছে নাতি 
ভারতীয় সেনার গুলিতে নিহতের মরদেহ নিয়ে স্থানীয়দের বিক্ষোভ (ছবি : কাশ্মীর টাইমস)

প্রতিদিন সকালের মতো বুধবার (১ জুলাই) নাতিকে সঙ্গে নিয়ে বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু বিপদ যে মাঝরাস্তায় ছিল, সেটা তিনি জানতেন না। ভারতের সিআরপিএ জওয়ানদের কনভয়ে এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে স্বাধীনতাকামীরা।

এ সময় গোলাগুলির মাঝে পড়ে যান সেই প্রবীণ মানুষটি। গুলি এসে লাগে তার শরীরে। ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। জম্মু কাশ্মীরের সোপোর এলাকায় গতকাল সিআরপিএফের কনভয়ে হামলা চালায় সেখানকার স্বাধীনতাকামীরা। ভারতের একজন জওয়ান নিহত হয়েছেন। তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

তবে গতকাল আরও বড় ধরনের বিপদ হতে পারত। স্বাধীনতাকামী ও সেনাদের গুলির মাঝে পড়ে গিয়েছিল একটি শিশু। সেই শিশুটির দাদু সেনা সদস্যদের গুলিতে নিহত হন। পরিবারের অভিযোগ, এটি পরিকল্পিত হত্যা।

ভারতীয় সেনার গুলিতে নিহত দাদার বুকে বসে কাঁদছে নাতি (ছবি : দ্য হিন্দু)

স্বজনদের দাবি, নিরাপত্তা সদস্যরাই বশির আহমেদকে গাড়ি থেকে টেনে নামিয়ে হত্যা করেছে। এমনকি, ছবি তোলার জন্য তার বুকের ওপর ছোট্ট শিশুটিকে বসতেও বাধ্য করা হয়েছে।

পরে শ্রীনগরে বশির আহমেদের জানাজায় সমবেত হন শত শত মানুষ। এসময় তারা কাশ্মীরের স্বাধীনতার দাবিতে স্লোগান দেন।

এ দিকে ঘটনাস্থল থেকে এসএইচও আজিম খান বলেন, সকাল ৮টা নাগাদ আমরা খবর পাই ওই এলাকায় তখন ব্যাপক ভিড় ছিল। প্রচুর গাড়ি চলে ওই রাস্তা দিয়ে। স্বাধীনতাকামীরা উঁচুতে থাকা একটি মসজিদের ওপরের দিকে থেকে এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে।

তিনি আরও জানান, আমাদের তিনজন জওয়ান আহত হয়। সেই সময় ওই বৃদ্ধ গুলিবিদ্ধ হন। তারপরই আমরা দেখতে পাই এক শিশু ওই বৃদ্ধের মৃতদেহের পাশে ঘুরছে। আমরা তখনই ওকে বাঁচানোর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ি। স্বাধীনতাকামীরা তখনো গুলি ছুড়ে যাচ্ছিল। শিশুটিকে ওখান থেকে বের করে আনা আমাদের কাছে চ্যালেঞ্জিং ছিল। কিন্তু আমরা যে করেই হোক ওকে বাঁচাবো বলে ঠিক করি।

আরও পড়ুন : ভারতের চাপেই পদত্যাগ করছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী!

তার ভাষায়, সবার আগে আমরা ওই জায়গাটা ব্লক করার চেষ্টা করি। যাতে ওদের গুলি আটকানো যায়! সেই সময় সিআরপিএফ ও জম্মু পুলিশের কয়েকটি বুলেটপ্রুফ গাড়ি এনে জায়গাটা ব্লক করা হয়। তারপর আমরা বাচ্চাটিকে উদ্ধার করি। ওকে তার বাড়ির লোকের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। তবে তার দাদুকে বাঁচাতে না পারার আফসোস রয়েছে আমাদের।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড