• মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আগুনে পুড়ছে জাপানের পাঁচশ বছরের প্রাচীন প্রাসাদ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

৩১ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪৫
পাঁচশ বছরের প্রাচীন প্রাসাদে আগুন
জাপানে পাঁচশ বছরের প্রাচীন প্রাসাদে অগ্নিকাণ্ড। (ছবিসূত্র : দ্য গার্ডিয়ান)

এশিয়ার সূর্যোদয়ের দেশ জাপানে প্রায় পাঁচশ বছরের পুরনো বিশ্ব ঐতিহ্য স্থাপনা ‘শুরি প্রাসাদের’ প্রধান কাঠামোতে ব্যাপক অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। যদিও এতে এখন পর্যন্ত কোনো হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। 

কর্তৃপক্ষের বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘বিবিসি নিউজ’ জানায়, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপ ওকিনাওয়ার রাজধানী নাহারের পার্শ্ববর্তী একটি পাহাড়ের ওপর অতি প্রাচীন এই প্রাসাদটির অবস্থান। বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) স্থানীয় সময় ভোররাতে ২টা ৩০ মিনিটে সেখানেই আগুনটি লাগে। যদিও ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত কারণ এখনো পরিষ্কার নয়।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ভোররাত থেকেই দমকল কর্মীরা চেষ্টা করে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ পর্যন্ত কেউ আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া যায়নি।

বিশ্লেষকদের মতে, প্রায় ৫০০ বছর আগে অঞ্চলটিতে রুকিউ রাজবংশের শাসনামলে কাঠের এই প্রাসাদটিকে নির্মাণ করা হয়েছিল। পরবর্তীতে ১৯৩৩ সালে অতি প্রাচীন এই ভবনটিতে জাপানের জাতীয় সম্পদের মর্যাদা প্রদান করা হয়।  

এ দিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে এশিয়ার এই রাষ্ট্রটিতে বেশ কয়েকটি লড়াই সংগঠিত হয়েছিল। মূলত সে সময় এই দ্বীপটিতেও একটি যুদ্ধ হয়। মূলত তখনই প্রাসাদটি একবার সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। তারপর বর্তমান স্থাপনাটি পুনরায় নির্মাণ করে কর্তৃপক্ষ।

দমকল কর্মকর্তাদের বরাতে ওকিনাওয়া পুলিশের মুখপাত্র রিও কোচি ‘বিবিসি নিউজকে’ বলেন, ‘আগুনে প্রাসাদের প্রধান ভবনের পাশাপাশি এবার উত্তর ও দক্ষিণের কাঠামোগুলোতেও ছড়িয়ে পড়েছে। রাত আড়াইটার দিকে প্রথম একটি নিরাপত্তা কোম্পানির অ্যালার্ম বেজে উঠেছিল। যদিও ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।’

অপর দিকে ওকিনাওয়ার পর্যটন সাইটের তথ্য অনুযায়ী, রুকিউ রাজবংশের আমলে প্রাসাদটি প্রায় তিনবার আগুনে পুড়েছিল, এরপর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে আরেকবার এবং সর্বশেষ এবার ওকিনাওয়ার বৃহত্তম কাঠের ভবনটি অগ্নিকাণ্ডের শিকার হয়।

আরও পড়ুন :- বাগদাদির আত্মঘাতী বিস্ফোরণের ভিডিও প্রকাশ

উঁচু পাহাড়ের ওপর থেকে নাহা শহরের দিকে তাকিয়ে থাকা শুরি প্রাসাদের চারপাশটা ঢেউ খেলানো পাথরের কারুকার্য মিশ্রিত দেয়াল দিয়ে ঘেরা। ১৯৭০ সাল পর্যন্ত এটি ওকিনাওয়ার সবচেয়ে বড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস হিসেবে ব্যবহৃত হয়। মূলত এরপর থেকেই এটি একটি জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য হিসেবে পরিচিতি পায়।

 

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড