• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সুনসান ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের হাতির ঝিল

  আজাহার ইসলাম

১৩ মে ২০২০, ২২:২৭
ইবি
মফিজ লেক ও ঝুলন্ত সেতু (ছবি : সংগৃহীত)

‘সারাদিনের ক্লান্তি শেষে বিকেলে ছুটে যাই লেকে। লেকটির সৌন্দর্য সত্যি আমাদের বিমোহিত করে। প্রতিদিনই বন্ধুরা মিলে আড্ডা দেই। একেবারে আড্ডার উত্তম জায়গা। মাঝে মাঝে ওয়াচ টাওয়ারেও বসে গানের আড্ডা চলে। অনেকদিন লেকে বসে আড্ডা দেওয়া হয়না। মিস করছি আড্ডার সময়গুলো।’ বলছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী নিলয় তানজিম।

হাতির ঝিল নাম শুনলেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীদের চোখে ভেসে ওঠে আড্ডামুখর ও প্রাণচঞ্চল ‘মফিজ লেক’। ক্যাম্পাসের একবারে পশ্চিমে অবস্থিত নয়নাভিরাম এই লেকটি। বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রভাবে গত ১৮ মার্চ বন্ধ হয়েছে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস, পরীক্ষা, আবাসিক হলসমূহ অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ রয়েছে। তাই একেবারে সুনসান হয়ে পড়েছে লেকটি।

লেকটির সৌন্দর্য বর্ধনের অংশ হিসেবে রয়েছে ‘আকিজ সিমেন্টের’ সহযোগিতায় তৈরিকৃত একটি ঝুলন্ত সেতু। পাশেই তৈরি করা হয়েছে একটি বাঁশের সাঁকো। পশ্চিম-উত্তর কোণে স্থাপন করা হয়েছে ওয়াচ টাওয়ার। যেখান থেকে লেকের পুরোপুরি মনোমুগ্ধকর সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। লেকটির দু’ধারে সারি সারি গাছ নজর কাড়ে দর্শনার্থীদের। এ যেন এক টুকরো হাতির ঝিল।

লেকটি অনেকটাই দর্শনীয় স্থান হিসেবে রূপ লাভ করেছে। অনেকেই মজা করে বলে সীমিত পরিসরে হাতির ঝিল। বিকেল হলেই লেক সংলগ্ন এলাকা ভরপুর থাকতো শিক্ষার্থীদের আড্ডায়। কেউ বা আবার প্রেমিক-প্রেমিকা নিয়ে গল্পগুজবে আনন্দঘন সময় কাটাত। আবার কেউ কেউ পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত। লেকটির সামনে ফাঁকা জায়গাটিতে প্রতিদিনই কোন না কোন অনুষ্ঠান চলতেই থাকতো।

দেখা যেত শিক্ষার্থীরা ছাড়াও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের সমারোহ। লেকের সৌন্দর্য উপভোগ করতে ছুটির দিনে ছুটে আসতো দূরদূরান্ত থেকে নানান পেশাজীবী মানুষ। অনেকে আবার পরিবার নিয়েও ঘুরতে আসতে দেখা যেত। পর্যটকদের জন্য লেকের চারপাশে বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রোদ থেকে বাঁচার জন্যে করা হয়েছে ছাতার ব্যবস্থা। নয়নাভিরাম এ লেকটি যেন ষোল কলায় পরিপূর্ণ।

আরও পড়ুন : বুটেক্স উপাচার্যের কাছে শিক্ষার্থীর খোলা চিঠি

ক্যাম্পাস ছুটিতে শিক্ষার্থী ও দর্শনার্থীদের পদচারণা না থাকলেও থেমে নেই সেই আগের কোলাহল। সুনসান লেকটিতে নতুন করে প্রাণের বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছে হাজারও রঙ-বেরঙের অতিথি পাখি। মনুষ্যবিহীন লেক এলাকায় এখন একক আধিপত্য বিস্তার করছে এসব পাখিরা। তাদের সুধাময় কিচিরমিচির ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে আছে লেকটি।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড