• মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঠাকুরগাঁওয়ে সন্তানের পৈশাচিক নির্যাতনে হাসপাতালে বাবা

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৩:১২
হাসপাতাল
ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঠাকুরগাঁওয়ে জমি বিক্রি করে টাকা না দেওয়াই কাল হয়েছে আফজাল হোসেন (৪৫) নামে এক কৃষি শ্রমিকের। শ্যালকের নির্দেশে স্ত্রী-সন্তানদের পৈশাচিক নির্যাতনে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে তাকে।

ঘটনার তিন দিন পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) শরীরের বিভিন্ন অংশে আগুনের ছ্যাঁকা আর লাঠির আঘাতের চিহ্ন নিয়ে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আফজাল হোসেন।

হাসপাতালে ভর্তি আফজাল হোসেন জানান, শারীরিক অসুস্থতার কারণে কিছুদিন ধরে কাজ-কর্ম করতে পারেননি তিনি। এতে স্ত্রী-সন্তানরা জমি বিক্রি করে তাকে টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দেয়। কিন্তু এতে মোটেও রাজি হননি আফজাল হোসেন। একপর্যায়ে শ্যালক আরমান আলীর নির্দেশে কিছুদিন ধরে স্ত্রী আনোয়ারা, ছেলে আবু বক্কর ও আলমগীর এবং মেয়ে আল্পনা তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন শুরু করে।

তিনি অভিযোগ করেন, ‘তারা গত ৩১ জানুয়ারি রাতে আমাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে অজ্ঞান হয়ে যাই। এরপর রবিবার সকালে ব্যথায় বিছানা থেকে আর উঠতে পারিনি। বিকালে অনেক কষ্টে বাজারে ওষুধ কিনতে গেলে একজন প্রতিবেশী আমার শরীরের দাগগুলো দেখে সবাইকে জানায়। পরে তারা আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। আমি আর ওই পরিবারে ফিরে যেতে চাই না।’

নিজের ওপর নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন আফজাল হোসেন।

ইমান আলী নামে তার এক প্রতিবেশী বলেন, ‘আফজালের ওপর অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। ঘটনার তিন দিন হয়ে গেলেও তার কোনো চিকিৎসা করেনি পরিবারের লোকজন। আফজালকে ভয় দেখানোর কারণে আশপাশের কাউকেও ঘটনা জানানোর সাহস পাননি তিনি।’

এ দিকে, ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক মনজুর মোর্শেদ বলেন, ‘আফজালের বুক ও পিঠের বিভিন্ন অংশ আগুনে ঝলসে গেছে। এছাড়া তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের কারণে রক্ত জমাট হয়ে গেছে। বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে।’

অন্যদিকে, আফজালকে হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে তার ছেলে আলমগীর পলাতক রয়েছে। তবে বিষয়টিতে আফজালের শ্যালক আরমান, তার স্ত্রী আনোয়ারা এবং মেয়ে আল্পনা সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

আরও পড়ুন : সাড়ে ৪ ঘণ্টা এসএসসি পরীক্ষা দিল ৯৮ শিক্ষার্থী!

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভিরুল ইসলাম দৈনিক অধিকারকে জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ থানায় কোনো অভিযোগ করেনি। তবে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড