• রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

তিন ঘণ্টা পর খেলা শুরু

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৫ মে ২০২২, ১৬:০৮
বৃষ্টির কারণে চার ঘণ্টা বিলম্বের পর খেলা শুরু (ছবি : সংগৃহীত)

তিন ঘণ্টা পর খেলা শুরু

মিরপুর টেস্টে মধ্যাহ্ন বিরতির আগে বৃষ্টি নামে। পরে দ্বিতীয় সেশন পুরোটাই ভেস্তে যায় বৃষ্টির কবলে। বেলা তিনটার কিছু সময় আগে অবশেষে বৃষ্টি থামে। এরপর চলে আউট ফিল্ড শুকানোর কাজ। অবশেষে তৃতীয় দিনের তৃতীয় সেশনে মাঠে নেমেছেন দুই দলের ক্রিকেটাররা।

রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত ৭৩ ওভারে ৪ উইকেটে ২১১ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের চেয়ে এখনো ১৫৪ রানে পিছিয়ে রয়েছে সফরকারীরা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ২৬ ও ৩০ রানে অপরাজিত আছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

বৃষ্টিতে ভেসে গেল পুরো এক সেশন

মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে নামে ঝুমবৃষ্টি। তাতে মধ্যাহ্ন বিরতি ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। বিরতির সময় পেরিয়ে গেলেও তখনও বৃষ্টি থামেনি। শেষপর্যন্ত অপেক্ষা করেও ঠিক সময়ে মাঠে নামতে পারেনি দুই দলের ক্রিকেটাররা। পরে অবশ্য বৃষ্টি কমে আসলেও মাঠ ভেজা থাকার কারণে আর মাঠে নামেনি ক্রিকেটাররা। এর মধ্যেই দ্বিতীয় সেশনের সময় ফুরিয়ে যাওয়ায় দেওয়া হয় চা বিরতি।

দুপুর আড়াইটা থেকে কভারের ওপর জমে থাকা পানি সরানোর কাজ শুরু করেছেন মাঠকর্মীরা। আশা করা হচ্ছে, ৩টায় মাঠ পরিদর্শনের ১০-১৫ মিনিটের মধ্যেই শুরু করা যাবে তৃতীয় সেশনের খেলা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিনের খেলা শুরুর আগেই আকাশে ছিল মেঘের আধিপত্য। তবু প্রায় নির্বিঘ্নেই হয় প্রথম সেশনের খেলা। দুপুর ১২টা বাজতেই শুরু হয় বৃষ্টি।

দুপুর ১২টা ৪০ মিনিট থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল দ্বিতীয় সেশনের খেলা। কিন্তু বৃষ্টির তোড় বাড়তে থাকায় নির্ধারিত সময়ে খেলা শুরু করা সম্ভব হয়নি।

বৃষ্টির কারণে প্রথম সেশন শেষ হওয়ার পাঁচ বল আগে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। ততক্ষণে ৭০.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান করেছে শ্রীলঙ্কা। আজকের প্রথম সেশনে ২৪.১ ওভারে ৬৭ রান তুলতে দুই উইকেট হারিয়েছে তারা। অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ব্যাট করছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ও ধনঞ্জয় ডি সিলভা।

বৃষ্টিকে সঙ্গী করে বিরতিতে গেল বাংলাদেশ

দিন শুরুর দ্বিতীয় বলেই কাসুন রাজিথার উইকেট তুলে নিয়ে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন এবাদত হোসেন। পরে সেঞ্চুরির দিকে এগোতে থাকা দিমুথ করুনারত্মেকে ফিরিয়ে স্বস্তি এনে দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। এরপর আর লঙ্কানদের বিরুদ্ধে বিপদ তৈরি করতে পারেননি টাইগার বোলাররা। এর মধ্যেই বাগড়া দিয়েছে বৃষ্টি।

মধ্যাহ্নভোজের বিরতির ঠিক আগে শুরু হয় বৃষ্টি। তাতে প্রথম সেশনের খেলা শেষের ঘোষণা আসে। তৃতীয় দিনের প্রথম সেশনের খেলা শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান নিয়ে মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে গেছে লঙ্কানরা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ২৫ এবং ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৩০ রান নিয়ে দিনের দ্বিতীয় সেশনে আবার ব্যাটিংয়ে নামবেন। বাংলাদেশের থেকে প্রথম ইনিংসে এখনো ১৫৫ রানে পিছিয়ে শীলঙ্কা।

ভীতি ছড়ানো করুনারত্মেকে বোল্ড করলেন সাকিব

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিন বাংলাদেশের বোলারদের বেশ ভুগিয়েছিলেন দিমুথ করুনারত্মে। ওয়ানডে মেজাজের ব্যাটিংয়ে দ্রুতই রান বাড়িয়ে নিচ্ছিলেন তিনি। তৃতীয় দিনের সকালে একটু একটু করে রান বাড়িয়ে সেঞ্চুরির আশা জাগাচ্ছিলেন। তবে তাকে ফিরিয়ে টাইগারদের শিবিরে আবারও স্বস্তি এনে দিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

করুনারত্মেকে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরত পাঠান এই স্পিনার। যাওয়ার আগে ১৫৫ বলে ৯টি চারের সাহায্যে ৮০ রান করে যান করুনারত্মে।

রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত ৫৬ ওভারে ৪ উইকেটে ১৬৯ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। টাইগারদের চেয়ে এখনো ১৯৬ রানে পিছিয়ে রয়েছে তারা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ১২ ও ৫ রান করে অপরাজিত আছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

দিন শুরুর দ্বিতীয় বলেই এবাদতের উইকেট

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকালে শ্রীলঙ্কার ব্যাটারদের বিপদের কারণ হতে পারেনি বাংলাদেশের বোলাররা। দুই উইকেট তুলে নিলেও বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে ওয়ানডে মেজাজে ব্যাটিং করেছেন দিমুথ করুনারত্মেরা। তবে তৃতীয় দিন উইকেটের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। মাঠে নামার মিনিট কয়েকের মধ্যেই বাংলাদেশকে উইকেট এনে দিয়েছেন এবাদত হোসেন।

আগের দিনে করা দুই উইকেটে ১৪৩ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের ব্যাটিংয়ে নেমেছে শ্রীলঙ্কা। বল হাতে দিনের বোলিং উদ্বোধন করতে আসেন এবাদত। প্রথম বলে এবাদতের ডেভিভারি ডিপ স্কয়ারে ঠেলে দিয়ে সিঙ্গেল নেয় করুনারত্মে। তাতে স্ট্রাইক পান আগের দিনের নাইটওয়াচম্যান কাসুন রাজিথা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই অফ স্ট্যাম্পের লেন্থ ডেলিভারিতে রাজিথার স্ট্যাম্প উড়িয়ে দেন এবাদত। এতে ব্যক্তিগত ইনিংসে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরের পথ ধরেন রাজিথা। এতে ভালো শুরু পায় বাংলাদেশ।

এর আগে, দ্বিতীয় দিন শেষে স্বাগতিক বাংলাদেশের চেয়ে ২২২ রানে পিছিয়ে থেকে দিন শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা। দিনের খেলা শেষ করার আগে ২ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান জড়ো করে তারা।

ভয়ানক ব্যাটিং বিপর্যয়ের পর মুশফিকুর রহিমের অপরাজিত ১৭৫ ও লিটন দাসের ১৪১ রানের দুই দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে ৩৬৪ রান জড়ো করে বাংলাদেশ। লঙ্কানদের পক্ষে দুই পেসার কাসুন রাজিথা ও আসিথা ফার্নান্দো মিলে শিকার করেন ৯টি উইকেট। এর মধ্যে কাসুন পাঁচটি ও আসিথা চারটি উইকেট শিকার করেন।

জবাবে খেলতে নেমে বিনা উইকেটে ৮৪ রান নিয়ে চা বিরতিতে যায় শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় সেশনের শুরুতে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন এবাদত। ৯১ বলে ৫৭ রান করে ওশাদা ফার্নান্দোকে ফিরিয়ে দেন তিনি। এরপর উইকেটে এসে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্মেকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন কুশল মেন্ডিস। তবে ৪৯ বলে ১১ রান করে সাকিব আল হাসানের বলে এলবিডব্লিউ হন তিনি।

এরপর আর কোনো উইকেট নিতে পারেনি বাংলাদেশ। করুনারত্মে ১২৭ বলে ৭০ ও নাইটওয়াচম্যান কাসুন রাজিথা ১১ বলে ০ রানে অপরাজিত ছিলেন।

ওডি/কেএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড