• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এবার মুক্তি মিলছে ৩ কাশ্মীরি গৃহবন্দি নেতার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৩৯
কাশ্মীরে গৃহবন্দি নেতা ফারুক আবদুল্লাহ
কাশ্মীরে গৃহবন্দি নেতা ফারুক আবদুল্লাহ ও তার স্ত্রী। (ছবিসূত্র : ইন্ডিয়া টুডে)

ভারতীয় সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ভূস্বর্গ খ্যাত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করায় অঞ্চলটিতে ইতোমধ্যে এক থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যা নিয়ে গোটা দেশে সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে এবার দীর্ঘদিনের গৃহবন্দিদশা থেকে মুক্তি মিলছে ৩ কাশ্মীরি নেতার।

গত ৫ আগস্ট ভারত নিয়ন্ত্রিত উপত্যকাটির বিশেষ সুবিধা বিলোপের জম্মু ও কাশ্মীরের প্রায় সব রাজনৈতিক নেতাকে গৃহবন্দি অবস্থায় রাখা হয়।

জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসনের বরাতে গণমাধ্যম ‘জি-নিউজ’ জানায়, প্রায় আড়াই মাস বন্দি থাকার পর কাশ্মীরের ৩ নেতা শর্তসাপেক্ষে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) বিকালের দিকে তাদের গৃহবন্দিদশা থেকে মুক্তি দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

সূত্রের বরাতে গণমাধ্যম জানায়, এবার যেসব নেতাকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে তারা হলেন- নূর মোহাম্মদ, ইয়ার মির এবং সোয়াইব লোন। তবে মুক্তি পেতে গেলে আগে তাদের রাজ্যের শান্তি ও শৃঙ্খলা ভঙ্গ হয় এমন কোনো কাজ করবেন না বলে একটি মুচলেকা দিতে হবে।

মুক্তি পেতে যাওয়া কাশ্মীরি নেতা ইয়ার মির হচ্ছেন পিডিপি বিধায়ক। রফিবাদ বিধানসভা থেকে তাকে নির্বাচিত করা হয়েছে। তাছাড়া ন্যাশনাল কনফারেন্সের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মী হচ্ছেন নূর মোহাম্মদ। তার দায়িত্বে রয়েছে শ্রীনগরে বাটমালুর মতো সব এলাকা। 

তাছাড়া প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের টিকিটে উত্তর কাশ্মীর থেকে ভোটের লড়াই করেছিলেন সোয়াইব লোন। পরে যদিও তিনি সেই দল ত্যাগ করেন। কাশ্মীরি নেতা সাজ্জাদ লোনের একজন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিত্ব বলে পরিচিত রয়েছে লোনের। এর আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর পিপিলস কনফারেন্সের নেতা ইমরান আনসারি ও সৈয়দ আখুনকে নিজেদের স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ার কারণে এক রকম বাধ্য হয়ে মুক্তি দেওয়া হয়।

এর আগে গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীকালে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ, জম্মু ও কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে এবং পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশ ইরান ও এশিয়ার পরাশক্তি চীন।

উল্লেখ্য, নেতা ও বেসামরিক মিলিয়ে এখন পর্যন্ত রাজ্যের প্রায় হাজার খানেক লোককে আটক করেছে প্রশাসন। যাদের মধ্যে রয়েছেন জ্যেষ্ঠ রাজনৈতিক নেতা, বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা, আইনজীবী ও সমাজকর্মী। তাছাড়া সেই তালিকায় ফারুক আবদুল্লাহ, ওমর আবদুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতির নামও রয়েছে।

আরও পড়ুন :- সীমান্তে ফের উড়ছে পাকিস্তানি ড্রোন, সতর্ক ভারত

যদিও এই বৃহস্পতিবার থেকেই রাজ্যে পর্যটকদের জন্য উপত্যকায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এমনকি খোলা হয়েছে সকল স্কুল-কলেজও।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড