• রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর স্বীকৃতি চায় তালিবান

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:১৯
মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর স্বীকৃতি চায় তালিবান
ভারপ্রাপ্ত আফগান প্রধানমন্ত্রী মোল্লাহ হাসান আখুন্দ (ছবি : আল-জাজিরা)

যুদ্ধবিধ্বস্ত রাষ্ট্র আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবান প্রশাসনকে স্বীকৃতি প্রদানের আহ্বান জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত আফগান প্রধানমন্ত্রী মোল্লাহ হাসান আখুন্দ। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাজধানী কাবুলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিতে বিশ্বের সব সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

এমনকি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য সব ধরনের শর্ত পূরণ করা হয়েছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন তিনি।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, মার্কিন সামরিক বাহিনীসহ সকল বিদেশি সৈন্য প্রত্যাহারের মুখে গত বছরের আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে তালেবান গোষ্ঠী। এরপর সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে তারা। সেই সরকারের অন্যতম শীর্ষ পদে বসেন মোল্লাহ হাসান আখুন্দ। যদিও এরপর থেকে বড় কোনো সম্প্রচার মাধ্যমে আর দেখা যায়নি তাকে।

গেল সেপ্টেম্বর মাসের পর বুধবারই প্রথম বৃহৎ পরিসরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন মোল্লাহ আখুন্দ। কাবুলে আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, বিশ্বের সকল দেশের সরকার, বিশেষ করে মুসলিম দেশগুলোর কাছে আমার আবেদন, আপনারা আফগানিস্তানকে স্বীকৃতি দেওয়া শুরু করুন।

রয়টার্সের প্রতিবেদক বলছেন, মোল্লা হাসান আখুন্দ ও তালেবান প্রশাসনের অন্য কর্মকর্তাদের পাশাপাশি জাতিসংঘের কর্মকর্তারাও বুধবারের এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে তালেবান আফগানিস্তানে অর্থ প্রবেশের ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিলের আহ্বান জানায়। একই সঙ্গে প্রয়োজনীয় অর্থ ছাড়ের ব্যবস্থা না করায় দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

আরও পড়ুন : বাংলাদেশের সঙ্গে ‘বাণিজ্যে গতি’ চায় ভারত

হাসান আখুন্দ মনে করেন, (সংকট কাটাতে) স্বল্পমেয়াদী সহায়তা কোনো সমাধান নয়। বিদ্যমান সংকটগুলো মৌলিকভাবে সমাধানের একটা পথ আমাদেরকে খোঁজার চেষ্টা করতে হবে।

এমনিতেই দশকের পর দশক যাবত যুদ্ধের কারণে অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত আফগানিস্তান। গেল বছরের আগস্ট মাসে তালেবান যোদ্ধারা কাবুলের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের পর থেকে সেই পরিস্থিতি দিনে দিনে কেবল খারাপই হয়েছে। আফগানিস্তানে বর্তমানে যা আর্থিক পরিস্থিতি, তাতে এই প্রবল শীতে লাখ লাখ মানুষ প্রয়োজনীয় পরিমাণ খাবারের অভাবের মধ্যে দিনযাপন করছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিশ্লেষকদের মতে, দীর্ঘ ২০ বছর পর গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখলে নেয় তালেবান। এরপর সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকে তালেবান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার ঘোষণা দেয়। অবশ্য সরকার গঠন করলেও বিশ্বের কোনো দেশই এখন পর্যন্ত তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রদান করেনি। এর জেরে বিশ্বের অধিকাংশ রাষ্ট্র ও এর পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দাতা সংস্থাও আফগানিস্তানে মানবিক সহায়তাসহ অর্থ সাহায্য পাঠানো বন্ধ করে দেয়।

এসবের ফলে দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকট প্রতিদিনই খারাপের দিকে যাচ্ছে। এছাড়া তালেবানের ক্ষমতা গ্রহণের আগে থেকেই বিদেশি সহায়তার ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল ছিল আফগান ভূখণ্ডের অর্থনীতি। গেল আগস্ট থেকে সেই সহায়তা আসা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আর্থিক ও মানবিক সংকট কেবলই বৃদ্ধি পেয়েছে।

এর আগে আফগানিস্তানের লাখ লাখ নাগরিক ‘মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে’ রয়েছে বলে গত সপ্তাহে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছিলেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেস।

আরও পড়ুন : বিদেশি বিনিয়োগের শর্ত শিথিলের পথে ফিলিপাইন

উল্লেখ্য, যুদ্ধবিধ্বস্ত এই রাষ্ট্রটিকে সম্ভাব্য সামাজিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে রক্ষা করতে পশ্চিমা দেশগুলোতে বাজেয়াপ্ত সম্পদ ছেড়ে দেওয়া এবং আফগান ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে অচলাবস্থা থেকে কাটিয়ে জোরেশোরে চালু করার দাবিও জানিয়েছিলেন তিনি।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড