• বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জেরুজালেমে আরও ৩ হাজার বসতি নির্মাণের পথে ইসরায়েল

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৫ নভেম্বর ২০২১, ১৭:১৩
জেরুজালেমে আরও ৩ হাজার বসতি নির্মাণের পথে ইসরায়েল
জেরুজালেম শহরে অবৈধভাবে নির্মিত ইসরায়েলের ইহুদি বসতি (ছবি : জেরুজালেম পোস্ট)

পবিত্র জেরুজালেম শহরে আরও তিন হাজার বসতি নির্মাণের প্রাথমিক অনুমোদন দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের ইহুদিবাদী দখলদার রাষ্ট্র ইসরায়েল। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ফিলিস্তিন বিষয়ক দখলদার ইসরায়েলের কথিত পৌরসভা অনুমোদনটি প্রদান করেছে।

এএফপির খবরে বলা হয়, প্রাথমিকভাবে তিন হাজার বসতি নির্মাণের অনুমোদন দেওয়া হলেও শেষ পর্যন্ত ছয় হাজার বসতি নির্মাণ করা হবে।

ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতির মাধ্যমে বলছে, অধিকৃত ভূখণ্ডকে ইহুদিকরণের অংশ হিসেবে বসতিটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এমনকি পরিকল্পিত ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের যে পরিকল্পনা রয়েছে তাতে বর্তমান ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড থেকে বায়তুল মুকাদ্দাস শহরকে পুরোপুরি বিভক্ত করার তৎপরতা চালাচ্ছে তেল আবিব।

বিশ্লেষকদের মতে, ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধে ইহুদি সৈন্যরা পূর্ব বায়তুল মুকাদ্দাস শহর দখল করে নেয়। যদিও আন্তর্জাতিক সমাজ ইসরায়েলের এই দখলদারিত্বকে এখনো স্বীকৃতি দেয়নি।

আরও পড়ুন : সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ২

চলতি বছরের মে মাসে অবরুদ্ধ পশ্চিম তীরে নতুন করে বসতি নির্মাণ বন্ধ করতে ইসরায়েলকে অনুরোধ জানিয়েছে ইউরোপের ক্ষমতাধর পাঁচটি দেশ। মূলত ইসরায়েল-ফিলিস্তিনি সংকটের মূল কেন্দ্র হলো ইহুদি, ইসলাম ও খ্রিস্টান ধর্মের পবিত্রতম স্থান জেরুজালেম।

১৯৬৭ সালে ছয়দিনের যুদ্ধে ইসরায়েল পূর্ব জেরুজালেম, পশ্চিম তীর ও গাজা উপত্যকার দখল নিজেদের হাতে নিয়ে নেয়। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ মনে করে, তাদের ভবিষ্যৎ রাষ্ট্রের রাজধানী হবে পূর্ব জেরুজালেম। বিশ্বের অনেক রাষ্ট্রই মনে করে পশ্চিম তীরসহ অন্যান্য অঞ্চলে ইসরায়েল যে বসতি স্থাপন করেছে তা সম্পূর্ণ অবৈধ।

আরও পড়ুন : দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই পদ ছাড়লেন সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী

উল্লেখ্য, পূর্ব জেরুজালেমেও ইসরায়েলের বসতি বৃদ্ধি বিশ্বের অনেক দেশের নেতাদের কাছেই স্বীকৃত নয়। ফিলিস্তিনিরা দীর্ঘদিন ধরেই শহরটিতে ইসরায়েলি-ইহুদিদের উপস্থিতি বাড়ানো, বাড়িঘর ভাঙ্গা, দৈনিক পুলিশি হয়রানি এবং বসতি সম্প্রসারণের লক্ষ্যে তৈরি বেশ কয়েকটি নীতিমালা পরিবর্তনের দাবি করে আসছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড