• শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘অক্সিজেন সংকটে রোগীর মৃত্যু গণহত্যার চেয়ে কম নয়’

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৫ মে ২০২১, ১১:১৪
‘অক্সিজেন সংকটে রোগীর মৃত্যু গণহত্যার চেয়ে কম নয়’
‘অক্সিজেন সংকটে রোগীর মৃত্যু গণহত্যার চেয়ে কম নয়’ (ছবি : প্রতীকী)

অক্সিজেনের আকালে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ভারতের এলাহাবাদ হাইকোর্ট। ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, যে কর্তৃপক্ষের ওপর অক্সিজেনের জোগানের দায়িত্ব আছে, তারা ‘অপরাধমূলক কাজ’ করছে, যা ‘গণহত্যার চেয়ে কম কিছু নয়।’

উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রের অবস্থা নিয়ে যে স্বতঃপ্রণোদিত জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল, তাতেই সেই মন্তব্য করেছে হাইকোর্ট। দুই সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে, শুধুমাত্র হাসপাতালে অক্সিজেনের জোগান না দেওয়ার জন্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যু দেখে আমরা ব্যথিত। এটা অপরাধমূলক কাজ। আর এই অপরাধ গণহত্যার থেকে কম কিছু নয়।

সেই সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে শুনানির পরবর্তী তারিখে লখনউ, প্রয়াগরাজ, বারানসি, গোরখপুর, গাজিয়াবাদ, মীরাট, গৌতমবুদ্ধ নগর এবং আগ্রার পঞ্চায়েত ভোটগণনার সিসিটিভি ফুটেজ জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

আদালত বলছে, সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে কমিশন যদি দেখতে পায় যে করোনা ভাইরাস বিধি লঙ্ঘন করা হয়েছে, তাহলে একটি নির্দিষ্ট ‘অ্যাকশন প্ল্যান’ (কী করা হবে) নিয়ে কমিশনকে হাইকোর্টের সামনে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন : বিচ্ছেদের আগেই ভাগ হয় বিল গেটস-মেলিন্ডার সম্পত্তি

বিশ্লেষকদের মতে, এমনিতেই উত্তরপ্রদেশে পঞ্চায়েত ভোটের ডিউটিতে গিয়ে ১৩৫ জন ভোটকর্মীর মৃত্যু হয়েছিল, তা নিয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে শোকজ নোটিশ দিয়েছিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

ডিভিশনের বেঞ্চের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ভোটের কাজে থাকা কর্মকর্তারা যাতে মারণভাইরাসে সংক্রমিত না হন, সে জন্য পুলিশ বা নির্বাচন কমিশন কিছুই করেনি বলে মনে হচ্ছে।

আরও পড়ুন : শত্রুর দুঃস্বপ্নের কারণ হবে চীনের নয়া যুদ্ধবিমান

এরই মধ্যে একটি মামলায় গণনাকেন্দ্রে করোনাবিধি মেনে চলা হবে বলে কমিশনের আশ্বাস ভোটগণনার অনুমতি দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড