• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আজারবাইজানের ভূখণ্ড ছাড়তে আর্মেনিয়াকে হুঁশিয়ারি এরদোগানের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:১৩
আজারবাইজানের ভূখণ্ড ছাড়তে আর্মেনিয়াকে হুঁশিয়ারি এরদোগানের
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান (ছবি : ইউরো নিউজ)

বিরোধপূর্ণ নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যকার যুদ্ধে দ্বিতীয় দিনে হতাহতের সংখ্যা বেড়েছে। রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) শুরু হওয়া এই সংঘাতে এখন পর্যন্ত উভয় পক্ষের অন্তত ৬৭ জন নিহত হয়েছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ইরান ও ইউরোপীয় শক্তিগুলো লড়াই থামিয়ে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে আজারবাইজানের ভূখণ্ড ছাড়তে আর্মেনিয়াকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। মুসলিম রাষ্ট্র আজারবাইজানের পক্ষে নিয়ে তিনি বলেছেন, আর্মেনিয়াকে অবিলম্বে আজারবাইজানের ভূখণ্ড ছেড়ে চলে যেতে হবে। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ইস্তানবুলে দেওয়া এক ভাষণে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

বিশ্লেষকদের মতে, ১৯৮০-এর দশকের শেষদিকে কারাবাখ অঞ্চলে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়। ১৯৯১ সালে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের মুহূর্তে সংঘর্ষ চূড়ান্ত আকার ধারণ করে। ১৯৯৪ সালে দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত এ সংঘর্ষে ৩০ হাজার মানুষ নিহত হয়।

আরও পড়ুন : ধর্মই কি মূল কারণ আর্মেনিয়া-আজারবাইজান যুদ্ধের নেপথ্যে?

কারাবাখ অঞ্চলটি আজারবাইজানের ভেতরে হলেও ইয়েরেভান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা নিয়ে তা নিয়ন্ত্রণ করছে আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। মূলত এ নিয়েই সংঘাতের সূত্রপাত।

নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে দীর্ঘ বিবাদের জেরে ২৭ সেপ্টেম্বর রবিবার যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে দুই দেশ। আজারবাইজানের ভূখণ্ড হলেও আর্মেনিয়া সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় অঞ্চলটি নিয়ন্ত্রণ করে আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। নতুন করে সংঘাতের জন্য আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান একে অপরকে দায়ী করেছে।

এর আগে সোমবার রাশিয়ায় নিয়োজিত আর্মেনিয়ার রাষ্ট্রদূত অভিযোগ করেছেন, আজারবাইজানে দেশটির ঘনিষ্ঠ মিত্র তুরস্ক তাদের ৪ হাজার সেনা পাঠিয়েছে। এ সেনারা এতদিন সিরিয়ায় নিয়োজিত ছিল। এখন তারা নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে আর্মেনিয়ার সেনাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অংশ নিয়েছে।

আরও পড়ুন : ইরানে আঘাত হানল আর্মেনিয়া-আজারবাইজানের বিধ্বংসী মর্টার

মূলত এর পরপরই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্টের সহযোগী গাদঝিয়েভ। অভিযোগ নাকচ করে তিনি বলেন, সিরিয়া থেকে সেনা সরিয়ে আজারবাইজানে মোতায়েন করার গুজব উঠেছে। এটি আর্মেনীয় পক্ষের আরেকটি উসকানিমূলক কর্মকাণ্ড। একেবারেই বাজে কথা।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড