• বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শাবিপ্রবির চলমান পরিস্থিতি নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত সাবেক শিক্ষার্থীবৃন্দের আহ্বান

  আদনান হৃদয়, শাবিপ্রবি প্রতিনিধি

২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৫:১৮
শাবিপ্রবির চলমান পরিস্থিতি নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত সাবেক শিক্ষার্থীবৃন্দের আহ্বান
ভার্চুয়াল সভা। ছবি : অধিকার

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) চলমান সংকট দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিরসনের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষার্থীবৃন্দ। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলা ও পরবর্তীতে মামলায় ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা।

রবিবার (২৩ জানুয়ারি) রাত নয়টায় এক ভার্চুয়াল সভায় এ নিন্দা ও প্রতিবাদ প্রস্তাব গৃহীত হয়। এ সভায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ পূর্বক বেশকয়েকটি প্রস্তাবনা উপস্থাপন করা হয়।

অনশতরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙাতে সরকার, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান উপস্থিতরা। সেইসাথে কোনো ধরনের শর্ত ছাড়াই পুলিশি এসল্ট মামলা প্রত্যাহারের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের ওপর এই হামলার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান তারা।

এ সভায় উপস্থিত সদস্যরা মনে করেন, শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা শাবিপ্রবির ইতিহাসের অন্যতম কলংকজনক অধ্যায়। এই ঘটনায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন ও দাবি মেনে নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির প্রতি আহবান জানানো হয়।

সর্বোপরি শিক্ষার্থী অনশন ভাঙাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগৃহীতপূর্বক শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় দায়ীদেরকে শাস্তির আওতায় আনার আহ্বান জানানো হয় এ সভায়।

উল্লেখ, গত বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) রাত আটটা থেকে বেগম সিরাজুননেসা চৌধুরী হলের প্রভাস্ট বডির বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ এনে তিন দফা দাবি নিয়ে আন্দোলন চালিয় যাচ্ছিলেন ছাত্রীরা।

আবাসিক ছাত্রীরা জানায়, হলটিতে দীর্ঘদিন ধরে প্রাধ্যক্ষসহ কর্মচারী ও গার্ডদের নানান দুর্ব্যবহারসহ অন্যান্য সমস্যা সমস্যা সমাধানর জন্য প্রভাস্ট জাফরিন আহমদ লিজাক কল দেওয়া হলে তিনি তাদর সাথ অসদাচরণ করেন। এর ফলে উপাচার্যর কাছে প্রভাস্ট বডির পদত্যাগসহ ৩ দফা দাবি জানান তারা।

কিন্তু গত রবিবার (১৬ জানুয়ারি ) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখলে তাদের ওপর পুলিশ কাঁদুন গ্যাস, সাউন্ড গ্রেনেড ও কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট ছুঁড়লে এই আন্দোলন উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে রূপ নেয়। ওইদিন সন্ধ্যা ৭ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ও হল ছাড়ার ঘোষণা দেওয়া হয়। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ও হল ছাড়ার ঘোষণা উপেক্ষা করে ক্যাম্পাসে অবস্থান নিয়ে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

এরই মধ্যে গত বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর থেকে আন্দোলনের অংশ হিসেবে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে ২৪ জন শিক্ষার্থী আমরণ অনশন শুরু করেন।

পরবর্তীতে আরও ৫ জন গণ অনশনে যোগ দেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৯ জন অনশনকারী শিক্ষার্থী নগরীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন এবং বাকিরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অনশনরত অবস্থায় রয়েছেন।

ওডি/এসএ

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড