• মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জাতীয় অর্থনীতিতে নারীদের অবদান বেশি : পলক

  অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

১৯ নভেম্বর ২০১৯, ২০:৫৭
প্রতিমন্ত্রী
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক (ছবি : সংগৃহীত)

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীদের প্রাধান্য দিয়ে উদ্যোগ গ্রহণ করছেন। দেশে বিচারপতি হতে শুরু করে সকল পর্যায়ে নারীর উপস্থিতি রয়েছে।  তিনি বলেন, জাতীয় অর্থনীতিতে নারীদের অবদান সবচেয়ে বেশি। জিডিপিতে তৈরি পোশাক শিল্পের অবদান শতকরা ৩৪ ভাগের বেশি। সেই তৈরি পোশাক শিল্পে দেশের শতকরা ৮০ ভাগ নারী কর্মী কাজ করছে।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়া‌রে নারী উদ্যোক্তা দিবস উপল‌ক্ষে আইডিয়া প্রকল্পের উদ্যোগে ‘উদ্যোক্তা সংস্কৃ‌তি ও উদ্ভাবনী প‌রি‌বেশ তৈ‌রি‌তে নারীর ভূ‌মিকা’ শীর্ষক সে‌মিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ড. রুবানা হক এবং ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সভাপতি শমী কায়সার। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, উদ্যোক্তা তৈরি বিশেষ করে নারীরা তাদের সৃজনশীল চিন্তা ও উদ্ভাবনী মেধা বিকাশের মাধ্যমে যেন দেশে-বিদেশে অবদান রাখতে পারে সে লক্ষ্যে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অধীন আইডিয়া, নারীর ক্ষমতায়ন প্রকল্পসহ বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন-২০২১ তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার মাধ্যমে প্রকৃতপক্ষে নারী-পুরুষের সম্মিলিত প্রয়াসে ইনক্লুসিভ উন্নয়নের ঘোষণায় দিয়েছেন। বর্তমানে দেশে পাঁচ হাজার ৮৬৫টি ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার রয়েছে। প্রতিটিতে একজন পুরুষের পাশাপাশি একজন নারী কাজ করছেন। গত ক‌য়েক বছ‌রে ২১ জেলায় প্রায় সা‌ড়ে ১০ হাজার নারী উদ্যোক্তা গ‌ড়ে তোলা সম্ভব হ‌য়ে‌ছে বলেও জানান তিনি।

পলক ব‌লেন, প্রযু‌ক্তি‌কে কা‌জে লা‌গি‌য়ে নারী পুরু‌ষের বৈষম্য দূর ক‌রে সমৃদ্ধ বাংলা‌দেশ বি‌নির্মাণ সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। নারী পুরু‌ষের সমান অংশগ্রহণ নি‌শ্চিত কর‌তে স্টার্টআপ বাংলা‌দেশ কোম্পা‌নি তৈ‌রি কর‌ছে সরকার। তিনি আইডিয়া প্রক‌ল্পের মাধ্যমে তরুণ নারী উদ্যোক্তা‌দের নিরাপদ প‌রি‌বেশ নি‌শ্চি‌তে সং‌শ্লিষ্ট‌দের কাজ করার ওপর গুরুত্বা‌রোপ ক‌রেন।

দেশীয় চাহিদা মি‌টি‌য়ে বিশ্ব জয় করার ম‌তো প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণে নারী উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, সত্যিকার অর্থে নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর জন্য। তিনি সর্ব সেক্টরকে নারী বান্ধব করার চেষ্টায় আছেন। কারণ নারী জাগরণ শুধু মুখে নয়, কর্মক্ষেত্রেও প্রমাণ করতে হবে। সমাজের বিশেষ অংশ হলো নারী। তাই নারীদের সামনে এগিয়ে যাবার জন্য তিনি সকল নারীদের আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম বলেন, আমরা নারীরা সকলের সঙ্গে মিলে কাজ করি ও করতে চাই। মেয়েরা এখন ঘরে বসেও কাজ করছে। সংসারে সচ্ছলতা এনে দিচ্ছে। নারীদের মাথায় রাখতে হবে যে নারীরা সমাজের একটা বড় অংশ। সেই লক্ষ্যে নারীদের সাহসের সঙ্গে সামনে এগিয়ে যেতে উৎসাহিত করেন তিনি।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব বলেন, বাংলাদেশে নারী বান্ধব পরিবেশ ও পলিসি তৈরিতে সরকার কাজ করছে। বর্তমানে যে সকল প্রকল্পগুলো চলছে এগুলো শুরু হবার আগের থেকেই বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল বিভিন্ন ধরনের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। এ পর্যন্ত প্রায় এক লাখেরও বেশি নারী ও পুরুষকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে যার ৩০ শতাংশই নারী। তিনি সকলকে আগ্রহ নিয়ে সেমিনারে অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান।

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, সব নারীরই একই কথা। নারীদের সমস্ত কষ্টের জায়গা এক। নারীরা কোনো অজুহাত দিতে পারে না। তাই নিজের স্থান নিজেকেই করতে হবে। নারী কখনো হেরে যায় না। তিনি নারীদের কোনো অবস্থায় হাল না ছাড়তে অনুরোধ করেন। এক নারী অন্য আরেক নারীর পাশে দাঁড়াতে হবে।

ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সভাপতি শমী কায়সার বলেন, নারীদের নিজেদের জায়গাটা শুরু হয়, নিজেদেরে বাড়ি থেকে। মেয়েরাই মেয়েদের শক্তি। কয়েকজন মেয়েরা যখন একসঙ্গে হয় তখনই একটি পাওয়ারফুল কমিউনিটি তৈরি হতে পারে। দেশে প্রফেশনাল নারী নেতৃত্ব তৈরি হয়েছে। আমাদের দেশের নারীরা এসএমই সেক্টরে ভালো করছে। দেশে প্রাইভেট বা কর্পোরেট সেক্টরে নারীরা অনেক দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছে।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন 'উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প' (আইডিয়া) পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক।

সেমিনারটি আয়োজন করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে ‘উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প' (আইডিয়া)।

ওডি/টিএএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড