• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রতিবন্ধী বান্ধব গাড়ি তৈরি করে মিজানের চমক

  বেনাপোল প্রতিনিধি, যশোর

২২ অক্টোবর ২০১৯, ২০:৪০
প্রতিবন্ধী বান্ধব গাড়ি
প্রতিবন্ধী বান্ধব গাড়ি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

প্রতিবন্ধীদের চলাচলের সুবিধার জন্য গাড়ি তৈরি করে হইচই ফেলে দিয়েছেন দেশ সেরা উদ্ভাবক শার্শার মিজানুর রহমান (মিজান মেকানিক)।

যশোরের শার্শার দেশ সেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমান (মিজান মেকানিক) বিভিন্ন ধরনের পরিবেশ বান্ধব গাড়ি আবিষ্কার করে গোটা দেশকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। পেয়েছেন দেশ সেরা উদ্ভাবকের খেতাব। সঙ্গে পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তির কাছ থেকে পুরস্কার ও সম্মাননা। 

উদ্ভাবনের ধারাবাহিতায় এবার তিনি শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের কাজে অনুপ্রাণিত হয়ে তৈরি করেছেন প্রতিবন্ধীদের জন্য এক মনোরম গাড়ি। প্রতিবন্ধীদের সহজভাবে চলাচলের জন্য তিনি এই নতুন ধরনের গাড়িটি তৈরি করে সবাইকে চমকে দিয়েছেন।   

নতুন এই উদ্ভাবন সম্পর্কে তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তেমনি তার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল কাজ করে যাচ্ছেন প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে। আমি তাকে অনুসরণ করে তার কাজে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রতিবন্ধীদের জন্য তৈরি করেছি এই গাড়ি। প্রতিবন্ধীদের জন্য তৈরি করা এই গাড়িটি সহজলভ্য স্বল্প খরচে চলাচলের জন্য উপকারী। পরিবেশ বান্ধব বিশেষ এক ধরনের মোটরগাড়ি যে গাড়িতে চড়ে অসহায় প্রতিবন্ধীরা তাদের নিজ গন্তব্যে অনায়াসে যাতায়াত করতে পারবে। 

তিনি তার তৈরিকৃত গাড়িটি সম্পর্কে আরও বলেন, একবার চার্জ দিলে গাড়িটি চালানোর সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরবর্তীতে নিজে থেকেই রিচার্জেবল ভাবে ব্যাটারিতে চার্জ হবে। এছাড়া আর চার্জ না দিলেও তখন কোনো জ্বালানি ছাড়াই গাড়িটি চলবে। সম্পূর্ণ পরিবেশ বান্ধব এই গাড়িটি ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার বেগে চলবে। এছাড়াও এই গাড়িটি সৌরশক্তির সৌরবিদ্যুতেও চালানো যাবে।  

অচিরেই এ মোটর গাড়িতে সৌর প্যানেল সংযুক্ত করা হবে বলে তিনি জানান। গাড়িটি সামনে চালানোসহ পেছনেও চালানো যাবে। তাছাড়া সংযুক্ত করা হয়েছে সামনে পেছনে এন্টিকেটর সিগন্যাল লাইট। আরও আছে হেডলাইট যা রাতের আধারে চালাতে সাহায্য করবে। আছে লুকিং গ্লাস, প্রতিবন্ধীরা চাইলে তাদের সঙ্গী নিয়েও চালাতে পারবে। এই গাড়িটি তৈরি করতে তার খরচ হয়েছে আনুমানিক ৪৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা। 

এ সময় তিনি আরও বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রীসহ তার কন্যা পুতুল ও ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় প্রতিবন্ধীদের জন্য অনেক সেবামূলক কর্মকাণ্ড করে চলেছেন। আন্তর্জাতিক মহলেও ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন। তাদেরই অনুসারী হিসেবে আমার এ চিন্তাধারার মানবসেবার অঙ্গ হিসেবে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে কাজ করা বা সেবা করার এক আপ্রাণ চেষ্টা।

উদ্ভাবনের ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে আর কোনো উদ্ভাবনের চিন্তা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বর্তমানে মিনি বিমান তৈরির কাজ করছি এবং পরিবেশকে সুরক্ষিত রাখতে দূষিত বায়ু নিধন যন্ত্র তৈরির কাজে ব্যস্ত আছি। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড