• বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট ২০২০, ২২ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ডেকে নিয়ে কলেজছাত্রকে গলাকেটে হত্যা, লাশ মিলল পরদিন

  যশোর প্রতিনিধি

২১ অক্টোবর ২০১৯, ১৬:১৯
আহাজারি
কলেজছাত্র সোহাগ নিহতের খবরে স্বজনদের আহাজারি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নির্জনে ডেকে নিয়ে যশোর পৌর শহরে সোহাগ হোসেন নামে এক কলেজছাত্রকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহত কলেজছাত্র সোহাগ পৌর শহরের মোল্যাপাড়া আমতলা এলাকার ভৈরব নদের উপকূলবর্তী ড্রাইভার হাবিবুর রহমানের ছেলে ও হামিদপুর ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

সোমবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে ভৈরব নদের কূল ঘেঁষে থাকা ঘাসের বন থেকে তার লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে রবিবার (২০ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে কতিপয় যুবক তাকে নিজ বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গেলে আর বাড়ি ফিরে আসেনি সোহাগ।

নিহত সোহাগের ভাই মিলন হোসেন জানান, সোহাগ হামিদপুর ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। রবিবার রাতে রায়হান নামে এক যুবক তাকে ডেকে নিয়ে যায়। প্রায় আধা ঘণ্টা পর সে মাকে ফোন করে জানায়, ‘তার বাড়িতে আসতে দেরি হবে।’ এর কিছু সময় পর তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর সারা রাত অপেক্ষা করার পরও বাড়িতে ফিরে আসেনি সোহাগ।

পরদিন সোমবার বেলা ১১টার দিকে নদের কূলের বাসিন্দা বাসুদেব রায় ভৈরব নদে ঘাস কাটতে গিয়ে দেখে, এক যুবক ঘাসের মধ্যে শুয়ে রয়েছে। পরে সে এটি দেখে ফিরে এসে স্থানীয়দের জানায়। এরপর স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, বুকের কয়েকটি স্থানে ছুরিকাঘাতসহ গলাকাটা অবস্থায় ঘাসের মধ্যে পড়ে আছে সোহাগ হোসেন। এ সময় সোহাগের লাশটি যেখানে পড়ে ছিল সেখানে ঘাসের মধ্যে ধস্তাধস্তির চিহ্ন রয়েছে বলেও জানিয়েছেন স্থানীয়রা। হত্যার আগে ঘটনাস্থলে খুনিদের সঙ্গে সোহাগের ধস্তাধস্তি হয়েছে বলে স্থানীয়রা ধারণা করেছেন।

মিলন হোসেন আরও জানান, সোহাগের হাতে আংটি ও সঙ্গে মুঠোফোন ছিল, যা পাওয়া যায়নি। খুনিরা সেগুলো নিয়ে গেছে।

এ দিকে, ঘটনাটি জানার পর যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মনিরুজ্জামান, ওসি (তদন্ত) সমীর কুমার সরকারসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ দুপুর আড়াইটার দিকে নিহত সোহাগ হোসেনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

কলেজছাত্রকে হত্যার সত্যতা স্বীকার করে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সমীর কুমার সরকার জানান, কী কারণে এবং কারা এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটিয়েছে তা এই মুহূর্তে বলা সম্ভব হচ্ছে না। তবে, ইতোমধ্যেই জড়িতদের ধরতে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড