• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘আসামির’ স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় পিবিআইয়ের ঘটনাস্থল পরিদর্শন 

  যশোর প্রতিনিধি

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:৪৬
গৃহবধূ
ভুক্তভোগী গৃহবধূ ( ছবি : দৈনিক অধিকার )

যশোরের শার্শায় ‘আসামির’ স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পিবিআইয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পিবিআইয়ের খুলনা বিভাগীয় পুলিশ সুপার আতিকুর রহমান মিয়া, সহকারী পুলিশ সুপার একেএম জাহাঙ্গীর হোসেন, তদন্তকারী অফিসার এসআই মোনায়েম হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ভুক্তভোগী গৃহবধূর বাড়ি পরিদর্শন করেন।

এ সময় পুলিশ সুপার আতিকুর রহমান মিয়া সাংবাদিকদের জানান, ‘আপনারা জানেন দুই দিন আগে মামলা তদন্তভার গ্রহণ করা হয়েছে। ভিকটিমের বাসা পরিদর্শন করেছি, ইতোমধ্যে আসামিদের ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে। আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রাপ্ত তথ্য আমরা যাচাই বাছাই করা হবে এবং আদালতের মাধ্যমে অভিযুক্তদের ডিএনএ টেস্টও করানো হবে।

উল্লেখ্য, যশোর শার্শা উপজেলার লক্ষণপুর গ্রামে গত ২ সেপ্টেম্বর গণধর্ষণের শিকার হন ওই গৃহবধূ। এ ঘটনায় গোড়পাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই খায়রুল আলম ও তার সোর্স কামারুল তাকে ধর্ষণ করে। এছাড়া লতিফ ও কাদের নামে আরও দুজন ওই সময় ঘরের বাইরে অবস্থান করছিল। পরের দিন ওই গৃহবধূ ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে গেলে বিষয়টি জানাজানি হয়। পুলিশ ওইদিনই তাকে হেফাজতে নিয়ে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করে মামলা নেয়। তবে এজাহারে প্রধান অভিযুক্তের নাম বাদ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে ৬ সেপ্টেম্বর মামলাটি তদন্তের ভার পায় পিবিআই। মামলার তদন্ত কর্মকর্তার তদন্তের পাশাপাশি সোমবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

গত ২৫ আগস্ট মাদক মামলায় স্বামীকে কারাগারে পাঠানোর ৯ দিন পর ওই গৃহবধূর কাছে ঘুষ দাবি করা হয়। ঘুষের টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করে।

ওডি/এসএএফ 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড