• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

বরগুনায় দেড় বছরেও গ্রেফতার হয়নি ছাত্রদল নেতার খুনিরা

  বরগুনা প্রতিনিধি

০৭ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৫
নিহত
আসাদুল্লাহর খুনি সোহাগ ওরফে হাতুড় সোহাগ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বরগুনার পাথরঘাটা পৌর ছাত্রদলের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুল্লাহকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার দেড় বছর পরও কোনো আসামি গ্রেফতার হয়নি। পুলিশও দেয়নি মামলার চার্জশিট। ফলে মামলাটির বিচার নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন নিহতের স্বজনরা। 

এ ঘটনায় গত শুক্রবার (৫ জুলাই) বরগুনা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে নিহতের বড় ভাই হাসান অভিযোগ করেন, পুলিশের গাফিলতির কারণে আসামিরা গা ঢাকা দিয়ে আছে।

আসাদুল্লাহ পাথরঘাটা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মো. আলাউদ্দীন আলো হাওলাদারের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল গণি হাওলাদারের মৃত্যু বার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে আসাদুল্লাহ বাড়ি ফিরছিলেন। পথে সোহাগ ওরফে হাতুড় সোহাগ ও তার সহযোগী রুবেল আসাদুল্লাহর ওপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ডান পায়ের রগ কেটে দেয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ১৪ দিন চিকিৎসাধীন থেকে গত বছরের ৯ মার্চ তার মৃত্যু হয়।

অভিযুক্ত সোহাগ ওরফে হাতুর সোহাগ ওই সময় পাথরঘাটা পৌর ছাত্রলীগের সহসম্পাদক ছিলেন বলে জানান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান সোহাগ। তবে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। 

নিহত আসাদুল্লাহর বাবা আলাউদ্দীন আলো হাওলাদার জানান, হাতুড় সোহাগ ও তার সহযোগী রুবেল কুটিয়ালসহ বেশ কয়েকজন মানুষের সামনে তার ছেলেকে এলোপাতাড়ি কোপায়। ঘটনার পরদিন ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি সোহাগ, রুবেল, জাহাঙ্গীর, মহারাজ, মোস্তফাকে আসামি করে পাথরঘাটা থানায় মামলা করেন। পুলিশ মামলার ৩ নম্বর আসামি রুবেল কুটিয়ালের বাবা জাহাঙ্গীর খানকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে তিনি জামিনে আছেন।

নিহত আসাদুল্লাহর মা তাসলিমা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে কোপানোর চিত্র যদি ভিডিও হতো, তা হলে ঘাতক হাতুড় সোহাগ ও রুবেল কুটিয়ালের অবস্থাও নয়নের মতো হত। দেড় বছরেও মামলার চার্জশিট দাখিল করা হয়নি। ন্যায় বিচার নিয়ে আমরা সন্দিহান। ন্যায় বিচার এবং ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

সম্প্রতি বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যার প্রধান আসামি নয়ন বন্ডের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আসাদুল্লাহর বিষয়টি উঠে আসে। এ নিয়ে স্থানীয় অনেকেই বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করে হাতুড় সোহাগের বিচার দাবি করেন।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা থানার ওসি মো. হানিফ শিকদার মুঠোফোনে বলেন, আমি ছয় মাস হলো এখানে এসেছি। দু-চার দিনের মধ্যেই আসাদুল্লাহ হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হবে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. মনিরুজ্জামান জানান, এ সপ্তাহেই মামলাটির চার্জশিট দাখিল করা হবে। আসামিদের বহু খোঁজাখুঁজি করে হদিস পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন জনের মুখে শুনে ধারণা করা হচ্ছে, আসামি দেশ ছেড়ে পালিয়েছে। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড