• রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কাপ্তাই সড়কে হাঁটু পরিমাণ কাদামাটি, দুর্ভোগে পর্যটকরা

  কাপ্তাই প্রতিনিধি, রাঙ্গামাটি

২১ জুন ২০১৯, ০৮:৩১
কাপ্তাই সড়ক
কাপ্তাই সড়কের মাটি সরাচ্ছেন আটকে পড়া পর্যটকরা (ছবি: দৈনিক অধিকার)

কাপ্তাইয়ের শীলছড়িস্থ সীতার ঘাট এলাকার কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কে প্রতি বছর বর্ষায় পাহাড় ধসে হাঁটু পরিমাণ কাদামাটি জমে। এতে দুর্ভোগ পড়তে হয় শিক্ষার্থী, পর্যটক, রোগী, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাসহ হাজার হাজার শ্রেণিপেশার মানুষকে। কিন্তু দুর্ভোগ লাঘবে গত এক যুগ ধরেও সড়ক ও জনপদ বিভাগের কার্যকারী কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ দৃষ্টিগোচর না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ভুক্তভোগীরা। 

সড়কটির পাশে ড্রেনেজ ব্যবস্থা থাকলেও করা হয় না পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন। ফলে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ড্রেনের ওপর মাটি ভরাট হয়ে সমান হয়ে যাওয়ায় হালকা বৃষ্টিতেই পাহাড় ধসে সরাসরি মাটি নেমে আসে সড়কে। 

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) বিকালে হালকা বৃষ্টিতেই কাপ্তাইয়ের শীলছড়িস্থ সীতারঘাট এলাকার কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কে পাহাড় ধসে হাঁটু পরিমাণ কাদামাটি জমে যায়। ফলে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অর্ধশতাধিক পরিবহন আটকে পড়ে। এতে দুর্ভোগে পড়েন দূরপাল্লার যাত্রী, স্কুল-কলেজ পড়ুয়া কোমলমতি শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কাপ্তাইয়ে ঘুরতে আসা পর্যটকবাহী কয়েকটি বাসসহ হাজার খানেক নারী পুরুষকে। 

এদিকে দুই ঘণ্টার ব্যবধানেও কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের মাটি অপসারণে সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষের কেউ এগিয়ে না আসায় চট্টগ্রাম থেকে কাপ্তাইয়ে ঘুরতে আসা একটি পিকনিক বাসের শখানেক যুবক নিজেদের হাত দিয়েই মাটি অপসারণ করে তাদের গাড়িকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থল হতে মুঠোফোনে সড়ক ও জনপদ বিভাগের চট্টগ্রাম এসডিই শম্ভু সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি অবগত হয়েছেন বলে জানান। পর্যাপ্ত জনবল না থাকায় শুক্রবার (২১জুন) সকালে সড়ক থেকে মাটি অপসারণ করা হবে বলেও জানা তিনি।

এদিকে ঘটনার প্রায় দুই ঘণ্টা অতিক্রম হওয়ার পর সড়ক ও জনপদ বিভাগের কাপ্তাই প্রতিনিধি মো. কামাল হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে তার কাছে বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, তাদের পর্যাপ্ত লোকবলের সংকটের কথা। তবে শীঘ্রই এই সমস্যা সমাধানে স্থায়ী কোনো পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি। 

এ দিকে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাসেল জানান, আমি ওয়াগ্গা ইউপি সদস্য মাহাবুব আলমের মাধ্যমে আপাতত স্থানীয় কিছু শ্রমিকদের কাজে লাগিয়ে চলাচলের ব্যবস্থা করে দেব। পরবর্তীতে বিষয়টির স্থায়ী ব্যবস্থার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি লিখব। 

ওয়াগ্গা ইউপি সদস্য মো. মাহাবুব আলম জানান, দীর্ঘ এক যুগ ধরেই এই এই সমস্যা চলছে। কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের পাশে ড্রেনেজ ব্যবস্থা চালু থাকলেও চোখে পড়ে না সড়ক বিভাগের ড্রেনগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করার কার্যক্রম। ফলে প্রতি বর্ষায় এভাবেই সড়কে মাটি জমে অসহনীয় দুর্ভোগে স্থানীয়রা। কিন্তু এর স্থায়ী একটি সমাধান করা অতি জরুরি।

সড়ক বিভাগের অনুপস্থিতিতে দুর্ভোগে পড়ে সড়কে জমে থাকা মাটি হাত দিয়ে অপসারণ করা অনেকের মধ্যে মো. আনিছুল হক নামক এক যুবকের কাছে তার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে প্রতিনিধিকে বলেন, সরকার যেখানে উন্নয়নের জন্য হাজার কোটি টাকা খরচ করছে সেখানে আমরা এখানে ঘুরতে এসে হঠাৎ করে এত কষ্টে পড়ে গেলাম কেন? এসব মাটি অপসারণ করা কি সড়ক বিভাগের কাজ নয়? যদি তাদের কাজই হবে তাহলে গত দুই ঘণ্টা ধরে আমরা আটকে আছি, তারা কোথায়? কেন আমাদের মাটি সরিয়ে গাড়ি নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হলো?

এদিকে পরবর্তীতে কাপ্তাই ইউএনওর নির্দেশে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মাহাবুব আলমের তত্ত্বাবধানে কয়েকজন শ্রমিককে নিয়ে সড়ক থেকে মাটি সরাতে দেখা যায়।


ওডি/ এসএএফইউ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড