• সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শ্বশুরের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলায় পুত্রবধূ ঘরছাড়া

  সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

১৩ জুন ২০১৯, ০০:১৫
সুনামগঞ্জ
ছবি : দৈনিক অধিকার

দোয়ারাবাজারে প্রবাসীর স্ত্রী কর্তৃক শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে নিজ শ্বশুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করায় দুই সন্তানের জননী পুত্রবধূকে স্বামীর বাড়ি থেকে জোরপূর্বক তাড়িয়ে দিয়েছেন পাষণ্ড শ্বশুর মো. গোলাম মোস্তফা ওরফে গোলাপ মিয়া। সে দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাও ইউনিয়নের হাজারীগাঁওয়ের বাসিন্দা। 

চলতি বছরের ২১ মে পুত্রবধূ বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে শ্বশুর মো. গোলাম মোস্তফা ওরফে গোলাপ মিয়াকে আসামি করে শ্লীলতাহানির মামলা দায়ের করেন।

গৃহবধূ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, হাজারীগাঁও নিবাসী আদম বেপারী মো. গোলাম মোস্তফার ছেলে মনির আহমদের সঙ্গে একই গ্রামের হাছন আলীর মেয়েকে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের পর স্বামী সংসার ও দুই সন্তান নিয়ে সুখেই ছিলেন ওই গৃহবধূ। স্বামী বিদেশে থাকায় আড়াই বছর যাবৎ সন্তান নিয়ে শ্বশুরের কাছেই থাকতেন তিনি।

শ্বশুর গোলাপ মিয়ার পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে চার ছেলে বিদেশ থাকেন। অন্য ছেলে সিলেটে চাকরি করেন। দুই মেয়ের বিয়ে হওয়ায় শ্বশুর বাড়িতে থাকেন। ঘরে শুধু অসুস্থ বৃদ্ধ শাশুড়ি ও পাষণ্ড শ্বশুর। এই সুযোগে তার শ্বশুর শারীরিক মেলামেশার জন্য পুত্রবধূকে কু-প্রস্তাব দেন। এই ঘটনাটি পুত্রবধূ তার স্বামীকে জানালে ছেলে তার বাবার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে ফেলেন।

এতে শ্বশুর গৃহবধূর ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ১৬ মে রাতে পুত্রবধূর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে গভীর রাতে ঘুমন্ত গৃহবধূকে জোর পূর্বক শ্লীলতাহানি করেন। এ সময় পুত্রবধূ চিৎকার করলে তার অসুস্থ শাশুড়ি এগিয়ে গেলে শ্বশুর দ্রুত পালিয়ে যান। পরবর্তী ঘটনা তার প্রবাসী স্বামীকে অবগত করতে চাইলে শাশুড়ি বাধা দেন। তারপরও গৃহবধূ ঘটনাটি স্বামীকে জানান। ওই কারণে শ্বশুর-শাশুড়ি গৃহবধূকে ঝড় বৃষ্টির রাতে দুই সন্তানসহ তাদেরকে ঘর থেকে বের করে দেন। পরে স্বামীর অনুরোধে গৃহবধূ আদালতে মামলা দায়ের করেন। 

উল্লেখ্য, গোলাপ মিয়ার বড় ছেলে ফারুক মিয়ার স্ত্রীও শ্বশুরের অত্যাচারে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়ি সদর উপজেলার মঙ্গলকাটা গ্রামে বসবাস করছেন।

আসামি গোলাপ মিয়া এ ব্যাপারে বলেন, একটি কুচক্রী মহলের পরামর্শে পুত্রবধূ আমার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে। আমিও দেখব মামলা করে সে কি করতে পারে।

এ ঘটনায় মহিলা ইউপি সদস্য সুলতানা দীপু বলেন, আমাদের গ্রামে এই সমস্ত নোংরা ঘটনা পূর্বেও কোনো দিন ঘটেনি। কিন্তু শ্বশুর-গৃহবধূর ঘটনা শুনে আমি খুবই লজ্জিত। আপোষ মীমাংসা করার জন্য চেষ্টা করছি।

দোয়ারাবাজার থানার সেকেন্ড অফিসার সজিব জানান, আদালতের নির্দেশ মোতাবেক তদন্ত কাজ চলছে। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড