• বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাস্তার সংস্কার কাজ বন্ধ, বিপাকে হাজারো মানুষ

  মাহবুবুর রহমান রানা, সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ)

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৬:৪৯
রাস্তা সংস্কার (ছবি : অধিকার)

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার কাকিলাবাড়ি আকবরের বাড়ি থেকে চরতিল্লি পাকা সড়কের সংযোগস্থল পর্যন্ত রাস্তাটির সংস্কার কাজ প্রায় এক বছর ধরে বন্ধ। এতে বিপাকে পড়েছেন ১০ গ্রামের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ।

উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, কাকিলাবাড়ির আকবরের বাড়ি থেকে চরতিল্লি পাকা সড়কের সাথে সংযোগ সড়কটির টেন্ডার আহবান করা হয় ২০১৯-২০ অর্থবছরে। ওই প্রকল্পের কাজটি শেষ হওয়ার কথা ১৯ মে ২০২০ সালে। দুই হাজার দুইশ ৯৫ মিটার সড়কটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

মেসার্স সেলিম এন্টারপ্রাইজ ও সুরমা এন্টারপ্রাইজ নামে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ২০১৯ সালের ১৪ নভেম্বর এই কাজের কার্যাদেশ পায়। কার্যাদেশ পাওয়ার পর থেকে ২ হাজার ২৯৫ মিটার সড়ক খনন করে শুধুমাত্র বালু ফেলে রাখা হয়েছে দীর্ঘ ১ বছর ধরে। এরপর আর কোনো কাজ করেনি এই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান- এমন অভিযোগ প্রকৌশলী বিভাগের।

এ বিষয়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মো. আবুল হোসেন কাজ বন্ধ রাখার কথা স্বীকার করে বলেন, পল্লী বিদ্যুতের খুঁটির জন্য এতদিন কাজ বন্ধ ছিল। সংস্কার কাজের মালপত্র আনা-নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত যানবাহন ঢুকতে না পারায় এ সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে বলে তিনি জানান।

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, রাস্তাটিতে শুধুমাত্র বালু ফেলে রেখেছে দীর্ঘ একবছর যাবত। এর কারণে সেখানে পায়ে হেঁটে চলাচল করতে হয় এবং সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে ভোগান্তির চরমে রয়েছে এলাকার মানুষজন। তারা বলেন, সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তা দিয়ে নৌকা নিয়ে চলাচল করার মতো অবস্থা সৃষ্টি হয়ে যায়।

তিল্লি গ্রামের কৃষক কছিম উদ্দিন জানান, তিল্লি এলাকায় বেগুন, লাউ, লাল শাক, কপি, বেগুন, আলুসহ সব ধরনের সবজির আবাদ করা হয়। এখানকার উৎপাদিত সবজি ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন শহরে বিক্রি করা হয়ে থাকে। কিন্তু দীর্ঘদিন যাবৎ রাস্তাটির সংস্কার কাজ এভাবে বন্ধ থাকায় কোনো যানবহন রাস্তা দিয়ে আসতে পারছে না। ফলে আমরা আমাদের উৎপাদিত ফসলের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় কয়েক লক্ষ টাকার লোকসান গুনতে হচ্ছে এলাকার স্থানীয় কৃষকদের।

সাটুরিয়া উপজেলা প্রকৌশলী এএফএম তৈয়াবুর রহমান বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজ সম্পূর্ণ করার জন্য ৫ বার চিঠি দেওয়া হয়েছে।এমনকি তার কাজ বাতিলের জন্যও সুপারিশ করা হয়েছে। তারপরও সে কাজ করেনি। গত ২০ জানুয়ারি পুনরায় জামানতে টাকা ও কাজ বাতিলের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে চিঠি দিয়েছি।

আরও পড়ুন : এলাকায় আতঙ্ক, বিদ্যালয়ে আসেনি কোনো শিক্ষার্থী

তিনি আরও বলেন, ওই এলাকার মানুষ এক বছর ধরে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। কৃষক তার উৎপাদিত সবজি ও ফসল বিক্রি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড