• বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মধুখালিতে লাউ চাষে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তারা

  হারুন আনসারী, ফরিদপুর

২২ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৪৮
লাউ চাষে দৃষ্টান্ত
লাউ চাষে দৃষ্টান্ত (ছবি : অধিকার)

‘সাধের লাউ বানাইলো মোরে বৈরাগী।’ তবে এবার বৈরাগী নয়, লাউ চাষ করে লাখপতি বনে গেছেন ফরিদপুরের মধুখালি উপজেলার মেগচামি ইউনিয়নের চার সহোদর ভাই। জানা যায়, তাজউদ্দীন শেখ দুই বছর আগ থেকে লাউ চাষ করছিলেন। ভালো লাভ পেয়ে তার সাথে যোগ দিয়েছেন তিন সহোদর। চার ভাই মিলে এবার তারা তিন একর জমিতে লাউ চাষ করেছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, খেতজুড়ে লাউ গাছের সবুজ সমারোহ। তাজউদ্দীন শেখ ও তার তিন ভাই বায়োজিদ শেখ, আবু সাঈদ শেখ ও আলমগীর শেখ চলতি মৌসুমে লাউচাষ করে এলাকায় আলোড়ন তুলেছেন। তাদের এই সাফল্য দেখে অনেকেই লাউ চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

তাজউদ্দীনের ভাইয়ের ছেলে টিটোন মাস্টার্স পাস করেছেন আর রাজু পড়ছেন অনার্সে। ছাত্রাবস্থায় করোনাকালীন সময়ে বসে না থেকে বাবা ও চাচাদের সাথে উন্নত লাউ চাষে যোগ দেয় তারা। ভাদ্র মাস থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত ১৫ লাখ টাকার লাউ বিক্রি করেছেন বলে জানান তারা। এখনো যে লাউ অবশিষ্ট আছে তাতে আরও প্রায় ৫ লাখ টাকার লাউ বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা করছেন।

তাজউদ্দীন শেখ বলেন, কয়েক বছর আগে এসব জমিতে আখ এবং মরিচ চাষ করা হতো। এসব ফসল আবাদে লোকসান হওয়ায় গত দুই বছর ধরে লাউ চাষ শুরু করেছি। গত বছর এক একর জমিতে লাউ গাছ লাগিয়েছিলাম। ভালো লাভ হওয়ায় এ বছর তিন একর জমিতে লাউ চাষ করেছি। বাম্পার ফলন পেয়েছি।

তিনি আরও বলেন, তিন একর জমিতে বাঁশের মাচা, সুতা ও অন্যান্য খরচ বাবদ দুই লাখ টাকার মতো খরচ হয়েছে। আগামী বছর জমির পরিধি বাড়িয়ে চার একর জুড়ে লাউ চাষ করবো।

লাউচাষি আবু সাঈদ জানান, আমরা অল্প লাউ চাষ করতাম প্রথম দিকে। তবে হিসাব করে দেখতাম লাউ চাষে আখ ও মরিচ চাষের চেয়েও অনেক বেশি লাভ। এ জন্য আমরা চার ভাই লাউ চাষে বেশি ঝুঁকেছি। আগামীতে আরও বেশি পরিমাণ জমিতে লাউ চাষ করবো।

ছোটভাই আলমগীর বলেন, বছরজুড়ে লাউ চাষ করছি আমরা। আমার ভাতিজা টিটোন ও রাজু উন্নত জাতের লাউ চাষে আমাদের উদ্বুদ্ধ করে। এ বছর আমরা অনেক লাভবান হয়েছি।

তিনি আরও জানান, বাণিজ্যিক এই লাউ চাষে কৃষি অফিস থেকে সার ও কীটনাশক দেওয়া হয়নি। কোনো সহযোগিতাও পাইনি।

টিটোন বলেন, সারা বছরই দুই জাতের লাউ আমরা আবাদ করি। সেটা হলো, গ্রীন ম্যাজিক ও মেরিনা। ভালো ফলন পাওয়ায় আমরা আগামীতে আরও এক একর বেশি জমিতে লাউচাষ করবো বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, মাষ্টার্স শেষ করে চাকরি না পেয়ে বাবা-চাচাদের সাথে লাউ চাষে সহযোগিতা করছি।

রাজু বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি বাড়িতে বসে না থেকে লাউচাষ করছি। এতে করে সবজির চাহিদা পূরণসহ অর্থনৈতিকভাবে আমরা লাভবান হয়েছি।

আরও পড়ুন : খুলনায় পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ

মধুখালী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আলভির রহমান জানান, এই অঞ্চলে তারা লাউ চাষে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। তাদের দেখাদেখি অনেকেই লাউ চাষের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। এ অঞ্চলে আগামী বছর লাউ চাষের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে। লাউ চাষের ব্যাপারে তারা কৃষকদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন জানিয়ে তিনি বলেন, কৃষকেরা আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করব।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড