• রোববার, ০৭ মার্চ ২০২১, ২২ ফাল্গুন ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ফেনীতে বোরো চাষে ব্যস্ত কৃষকেরা

  ইউসুফ আলী, ফেনী

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬:৩২
কৃষকরা
প্রচণ্ড শীত ও ঘনকুয়াশাকে উপেক্ষা করে কাক ডাকা ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কৃষকরা কাজ করছেন। (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ফেনীতে চলছে বোরো ধান রোপণের মৌসুম। এই সময় কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। প্রচণ্ড শীত ও ঘনকুয়াশাকে উপেক্ষা করে কাক ডাকা ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তারা কাজ করছেন। তবে পর্যাপ্ত বাহিরের শ্রমিক থাকায় অনেকটাই স্বস্তিতে আছেন ফেনীর গৃহস্থরা।

কৃষকরা জানান, গতবারের চেয়ে এবার অনেক চাষি আগাম বোরো চাষের জন্য কোমর বেধে মাঠে নেমেছেন। অন্য বছরের ন্যায় এবারও বোরোর পুরো মৌসুমে সার ও সেচকাজের জন্য সঠিকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হলে চলতি মৌসুমেও ধানের বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষকরা।

জেলার দাগনভূঞায় উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলায় প্রায় ৬ হাজার চারশত চুয়াত্তর হেক্টর জমিতে বোরো ধান রোপণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বোরো ধান রোপণের জন্য প্রায় ৩৪৫ হেক্টর জমিতে বোরো বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় শীত ও কুয়াশায় বীজতলার তেমন কোন ক্ষতি হয়নি। কৃষকরা নিজেদের চাহিদা পূরণ করে আশেপাশের অঞ্চলে বোরো ধানের চারা বিক্রয় করতে পারবেন। এখন পর্যন্ত উপজেলায় ৬ হাজার ৩শ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করা হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই উপজেলায় ধান রোপণ শেষ হবে বলে আশা করছে কৃষি অফিস।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মারুফ জানান, আমরা ব্লকে কৃষকদেরকে একক ও দলীয় পদ্ধতিতে বর্তমানে বোরো ধানের বিভিন্ন প্রযুক্তিগুলো সঠিক বয়সের চারা, সারি ও লগো পদ্ধতিতে ধানের চারা রোপণ, সুষম মাত্রায় জৈব ও অজৈব সার ব্যবহার, গুটি ইউরিয়া সার প্রয়োগ, এ ডব্লিউ ডি, পার্সিং, এলসিসি ব্যবহার এবং আলোক ফাঁদ স্থাপনের মাধ্যমে ক্ষতিকর পোকা-মাকড় উপস্থিতি নির্ণয়সহ বিভিন্ন ধরনের ফসল উৎপাদন বিষয়ক পরার্মশ দিচ্ছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রাফিউল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী ও কৃষিমন্ত্রীর ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির আহবানে সাড়া দিয়ে উপজেলা চাষযোগ্য সকল জমিতে ফসল উৎপাদনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে কৃষি অফিস। এ বছর উফসী জাত ৬ হাজার ১৭৬ হেক্টর হাইব্রিড ২৯৮ হেক্টর মোট ৬ হাজার ৪৭৪ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে গত মৌসুমের চেয়ে বেশি চাষাবাদ হবে, ফলনও বেশি হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আরও পড়ুন : পরিবারের সাথে রাঙ্গামাটি যাওয়া হলো না অনিকের

তিনি আরও জানান, এই বছর সরকারের পুনর্বাসন বীজ ও সার সহায়তা, প্রণোদনা, বিভিন্ন প্রকল্প ও রাজস্ব খাতের আওতায় অনেক কৃষক পরিবারকে ধানের বীজ ও সার সহায়তা দেওয়া হয়েছে এবং উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ কৃষকদের যাবতীয় পরামর্শ ও সহযোগিতা দিতে মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন। একইভাবে জেলার বাকী ৫টি উপজেলায়ও কৃষকরা বোরো চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন বলে জেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড