• বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভোলায় প্রস্তুত প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ৫২০ ঘর

  ভোলা প্রতিনিধি

২১ জানুয়ারি ২০২১, ২১:১৩
প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রীর উপহারের পাকাঘর (ছবি : দৈনিক অধিকার)

জাতির জনকের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ভোলায় ৫২০ পরিবারকে জমিসহ পাকাঘর দেওয়ার জন্য তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। আগামী শনিবার (২৩ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে একযোগে ভূমিহীনদের ঘর দেওয়া কর্মসূচী উদ্বোধন করবেন। এসময় ঘর দেওয়া হবে ভোলার ভূমিহীনদের মাঝেও। ক শ্রেণির পর্যায়ে ৫২০ টি ঘরের কাজ সম্পন্ন করে তালিকাভুক্ত পরিবারকে জমিসহ ঘরে বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এদিন প্রত্যেক পরিবারের হাতে কবুলিয়াত দলিল, নামজারী খতিয়ানসহ অন্যান্য কাগজপত্র তুলে দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক। এসময় তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে এসব ঘর নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। দেয়া হয়েছে বিদ্যুৎ লাইন। এছাড়াও এসকল ঘরের বাসিন্দাদের জন্য সুপেয় পানির জন্য বসানো হবে গভীর নলকূপ। আগামী ২৩ জানুয়ারি ভার্চুয়াল মিটিংয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর এসকল ঘরের জমির দলিল ও চাবিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হস্তান্তর করা হবে।

তিনি আরও জানান, 'আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার' এ স্লোগানকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছেন মুজিববর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবে না। এ লক্ষ্যেই ভোলায় সরকারি খাস জায়গার উপর নির্মাণ করা হয়েছে ভূমিহীনদের জন্য ঘর। এখানে মাথা গোঁজার ঠাঁই পাবেন প্রায় ৫২০ পরিবার। যাদের কোনো ঘর ও জমি নেই। তাদেরই এখানে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর মধ্যে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে স্বামী পরিত্যক্তা ও প্রতিবন্ধীদের। প্রত্যেক পরিবারকে দুই শতাংশ জমির মালিকানাসহ লিখে দেওয়া হচ্ছে দুই কক্ষের একটি বসতঘর। তার সঙ্গে থাকছে রান্নাঘর, বাথরুম ও সামনে খোলা বারান্দা। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা। এতে হতদরিদ্র সুবিধাভোগীরা দারুণ খুশি। এছাড়া অন্যান্য সুবিধার জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরকে বলা হয়েছে টিউবয়েল ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য।

মাঠ পর্যায়ে জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে এ কাজ বাস্তবায়ন করছে উপজেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাহিরেও ভোলা জেলায় আরও ২৭টি ঘর দেয়া হবে। এরমধ্যে ব্যক্তি ও সংস্থার উদ্যোগে ১৭টি, উপজেলা পরিষদের তহবিল থেকে ৮টি ও বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস ভোলা জেলা শাখার উদ্যোগে দুইটি। এ সাতাশটি ঘর আগামী মার্চ মাসের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে। এছাড়াও যদি ভোলায় ভূমি ও গৃহহীন পরিবার থাকে তাদেরকেও পর্যায়ক্রমে পাকা ঘর করে দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভোলার সাত উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে পাকাঘর দেয়া হবে ৫২০টি। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ১৮২টি, দৌলতখান উপজেলায় ৪২টি, বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ২৮টি, লালমোহন উপজেলায় ২০টি, তজুমদ্দিন উপজেলায় ১৮টি, চরফ্যাশন উপজেলায় ৩০টি ও মনপুরা উপজেলায় ২০০টি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড