• বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এএসআই হত্যার প্রধান আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

২০ জুলাই ২০২০, ১০:১২
নিহতের লাশ (ছবি :দৈনিক অধিকার)

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এএসআই হত্যার প্রধান আসামি মামুন মিয়া র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে।

সোমবার( ২০ জুলাই) ভোররাতে ব্রাহ্মণণবাড়িয়া সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চাঁনপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

র‍্যাব-১৪, ভৈরব ভৈরব ক্যাম্পের সহকারি পরিচালক চন্দন দেবনাথ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দৈনিক অধিকারকে জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় কর্মরত এএসআই আমির হোসেনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা মামলার প্রধান আসামি চাঁনপুর গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে মামুনকে ধরতে র‍্যাবের একটি দল চাঁনপুর বাজারে যায়। এ সময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মামুন ও তার সহযোগিরা গুলি চালায়। এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‍্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি চালালে মামুন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকেলে পাঘাচং বাজারে ডাকাতির প্রস্তুতি মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি মামুনকে গ্রেপ্তারের সময় ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে সে ছুরি দিয়ে এএসআই আমির হোসেনের বুকের বাম পাশ ও মাঝখানে আঘাত করে। এতে এএসআই আমির মাটিতে লুটিয়ে পড়লে সহকর্মী মণি শঙ্করসহ স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে সদর থানায় পাঁচজনকে আসমি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় মামুনের ছোট ভাই ইসমাইল মিয়াসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড