• শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

পেনাল্টি মিসের খেসারত দিল ম্যানসিটি

  ক্রীড়া ডেস্ক

১০ এপ্রিল ২০১৯, ০১:৫৮
চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
জয়ের নায়ক সংকে ঘিরে টটেনহ্যাম খেলোয়াড় ও সমর্থকদের উল্লাস (ছবি : স্কাই স্পোর্টস)

কাকে দুষবেন ম্যানচেস্টার সিটির ভক্তরা? উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে টটেনহ্যাম হটস্পারের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সহজ সুযোগ (পেনাল্টি শট) পেলেও সার্জিও আগুয়েরোর ব্যর্থতায় তা নষ্ট হয়। শেষ পর্যন্ত গোল তো দিতেই পারেননি উল্টো হেরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যদের। 

টটেনহ্যাম হটস্পার স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) রাতে শেষ আটের প্রথম লেগে ১-০ গোলে জিতেছে স্বাগতিকরা। টটেনহ্যামের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন সং ইউং মিন।

নিজেদের ক্লাব ইতিহাসে সব প্রতিযোগিতা (উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বাদে) মিলিয়ে ১৫৭ বার ম্যানসিটি টটেনহ্যামের মুখোমুখি হলে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এই প্রথম দেখা হয় দু'দলের। যেখানে সবাই এগিয়ে রেখেছিল সিটিজেনদের। কেননা ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় আগেই লিগ কাপ নিশ্চিত করেছে তারা। এছাড়া সম্ভাবনা রয়েছে এফ কাপ ও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ জয়েরও। লক্ষ্যটা ছিল চ্যাম্পিয়ন্স শিরোপার। তবে তাদের এই কাজটি কঠিন করে দিয়েছে স্পার্সরা। 

ম্যাচের দশম মিনিটে গোলের প্রথম সুযোগ পায় ম্যানসিটি। মাঝ মাঠ থেকে রাহিম স্টার্লিং একাই বল কাটিয়ে নিয়ে যান পেনাল্টি ডি-বক্সের ভেতরে। তবে টটেনহ্যাম ডিফেন্ডার ড্যানি রোজের হাতে লেগে সেটি প্রতিহত হয়। প্রথমে রেফারি কর্ণারের সিদ্ধান্ত দেন। কিন্তু পরে ভিডিও রেফারির সহযোগিতায় সেটি পেনাল্টি দেন রেফারি। তবে সার্জিও আগুয়েরো পেনাল্টি কিক নিলেও সহজ এই গোলটি করতে ব্যর্থ হন। দুর্দান্ত পেনাল্টি গোলটি সেভ করেন বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্সের গোলরক্ষক হুগো লরিস। 

উত্তাপ ছড়ানোর এই ম্যাচে ১৭তম মিনিটে টটেনহ্যাম গোলের প্রথম সুযোগ পায়। কিন্তু হ্যারি কেন আর ডেলি আলি চেষ্টা করেও গোল করতে পারেননি। 

প্রথমার্ধের প্রথম ১৫ মিনিট বল নিয়ন্ত্রণ ম্যানসিটির দখলে থাকলেও হঠাৎই আক্রমণের ধার বাড়ায় স্পার্সরা। পরপর বেশ কিছু আক্রমণ করলেও কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পায়নি তারা। 

গোলের খোঁজে মরিয়া দুই দল একে অপরের গোলমুখে আক্রমণ চালালেও সুযোগটা বেশি পাচ্ছিলো টটেনহ্যাম। ম্যাচের ২৪তম মিনিটে কেন আবারো গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন। ডি-বক্সের বাইরে থেকে কেনের কাছে বল পাঠালেও ম্যানসিটি গোলরক্ষক এডেরসন স্যানটানা দে মোরাইসের বাঁধায় জালে বলা জড়াতে পারেননি এই ইংলিশ অধিনায়ক। 

প্রথমার্ধের একদম শেষের দিকে পেনাল্টি মিস করা আগুয়েরো আবারো গোলের সুযোগ পান। যোগ করা সময়ে রিয়াদ মাহরেজের পাস থেকে গোলপোস্টের মাত্র ২০ গজ দূরে থেকেও বল জালে জড়াতে পারেননি এই আর্জেন্টাইন তারকা। 

ম্যাচের প্রথমার্ধে ৫৭ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রাখলেও গোলের দেখা পায়নি সিটিজেনরা। দুদলের কেউই  সফল না হওয়ায় প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্যভাবে। 

এরপর দ্বিতীয়ার্ধেও বল দখলে রাখে ম্যানসিটি তবে ‍খুব বেশি সুবিধা করতে পারেনি তারা। অতঃপর ৭৮তম মিনিটে আসে ম্যাচের একমাত্র গোল। ডি-বক্সের বাইরে থেকে ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের বাড়ানো পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দারুণ দক্ষতায় বাঁ পায়ের জোরালো শটে ম্যাচ জেতানো গোলটি করেন দক্ষিণ কোরিয়ান ফরোয়ার্ড সং ইউং মিন। 

 চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারের টিকিট পেতে আগামী বুধবার (১৭ এপ্রিল) ঘরের মাঠে খেলবে পেপ গার্দিওলার দল।

দিনের আরেক ম্যাচে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে পর্তুগালের ক্লাব পোর্তোকে। গোল দুটি করেন নবী কেইতার ও বের্তো ফিরমিনো।

ওডি/এএপি      
 

সংশ্লিষ্ট ঘটনা সমূহ : উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড