• বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এ যেন আরেক সাহেদ! কোটি টাকার খেলা ‘ডিজে শাকিলের’

  বগুড়া প্রতিনিধি

১৩ আগস্ট ২০২০, ১৬:৩২
গ্রেপ্তার
ঋণ দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তাররা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঋণ দরকার? দেশি অথবা বিদেশি ব্যাংক? সুইস ব্যাংক কিংবা আমেরিকান, এমনকি বিশ্বব্যাংক থেকেও মিলবে ঋণ? ১০০, ২০০ কিংবা ৫০০ কোটি! দ্রুততম সময়ে লোন প্রসেসিং করে গ্রাহকের হাতে চেক তুলে দেওয়া হবে। এভাবেই ঋণ দেওয়ার নামে প্রতারণা করে আসত ডিজে শাকিল। অবশেষে পুলিশি অভিযানে ২ সহযোগীসহ গ্রেপ্তার হয়েছে এই প্রতারক।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) তাদের বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ৬ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। পরে বিচারক বিল্লাল হোসেন আসামিদের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গ্রেপ্তার রাব্বি শাকিল ওরফে ডিজে শাকিল (৩২) তাড়াশ উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলার বারুহাস পশ্চিমপাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে। এছাড়া গ্রেপ্তার অপর দই সহযোগীরা হলো- আইটি স্পেশালিষ্ট ও কুস্মবী গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে হুমায়ুন কবির মিলন (২৮) এবং ম্যানেজার ও নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার গাড়ীক্ষেত্র গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে হারুনার রশিদ ওরফে সাইফুল ইসলাম (২৬)।

বগুড়ার গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি আছলাম আলী দৈনিক অধিকারকে জানান, ইন্টারন্যাশনাল লোন সার্ভিসের নামে ফেসবুক পেজে বিজ্ঞাপন দেখে বগুড়ার ‘আমায়রা এগ্রো ফার্মের’ সত্ত্বাধিকারী আমানত উল্লাহ তারেক ও ‘অভি এগ্রো ফার্মের’ স্বত্বাধিকারী আশিক ওই প্রতারক চক্রের সাথে যোগাযোগ করেন। পরে কমিশনের মাধ্যমে তাদের ৫ কোটি টাকা লোন পাইয়ে দেবার নাম করে কয়েক দফায় ১৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ডিজে শাকিল। এরপর তাদের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে লোন অনুমোদনের চিঠি এবং সাড়ে ৪ কোটি টাকার দুটি চেকের স্ক্যান কপি মেইলে দেওয়া হয়।

কিন্তু দীর্ঘদিনেও চেকের মূল কপি না দেওয়ায় তারা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন লোন অনুমোদনের চিঠি এবং চেকগুলো ভুয়া। এরপর বিষয়টি জেনে অভিযানে নামে বগুড়া জেলা পুলিশ। এরই ধারাবাহিকতায় প্রতারক ডিজে শাকিলসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ওই সময় ভুয়া চেক ছাড়াও সামরিক বাহিনী ও সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভুয়া নিয়োগপত্র ও চুক্তিনামা, ৬০টি সিম কার্ড, তিনটি কম্পিউটার ও বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার ভুয়া পরিচয়পত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী দৈনিক অধিকারকে জানান, ‘সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলার রাব্বি শাকিল ওরফে ডিজে শাকিল বিভিন্ন চাকরির নিয়োগপত্র, স্ট্যাম্প, চেক নিজের কম্পিউটারে তৈরি করত। এ যেন আরেক সাহেদ!’

পরে বগুড়া গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বুধবার (১২ আগস্ট) বিকালে তাড়াশ উপজেলা থেকে প্রতারণার দায়ে শাকিলসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর থানায় প্রতারণা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা ফেসবুকে ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংক লোন সার্ভিস নামে পেজ খুলে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। গ্রেপ্তারকালে তার অফিস থেকে উদ্ধার করা হয় ১২শ এক কোটি বাহাত্তর লাখ ১০ হাজার টাকার ভুয়া চেক, সামরিক বাহিনীর ভুয়া নিয়োগপত্র, বিভিন্ন গণমাধ্যমের ভুয়া পরিচয়পত্র ও জালিয়াতির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদী।

আরও পড়ুন : হাত স্যানিটাইজ করে ঘুষ নিলেন ওসি!

এ দিকে, সিরাজগঞ্জের তাড়াশের বারুহাস গ্রামের স্থানীয়রা দৈনিক অধিকারকে জানান, ঢাকায় যারা ডিজে পার্টি করত তাদের সাথে ঘোরাফেরা করে এলাকায় এসে দু-একটি গানের মিউজিক ভিডিও তৈরি করে শাকিল। এরপর থেকে এলাকায় ডিজে শাকিল হিসেবে পরিচিতি পায় সে। নানা কৌশলে কোনোদিন রাজনীতি না করেও বাগিয়ে নেয় উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতির পদ।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড