• শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভায়োলিনের প্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশ’

  শব্দনীল

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:১৭
ছবি

সংগীতের প্রতি মানুষের আকর্ষণ বেশ পুরনো। সুখ কিংবা কষ্টের অনুভূতি মেশানো থাকে এক একটি গানে। আর সেসব গানের সুর ছুঁয়ে যায় মর্ম। সুরের কথা বলতে গেলেই চলে আসে বাদ্যযন্ত্রের কথা। যারা গানের পাশাপাশি বাদ্যযন্ত্রের প্রেমেও পড়েন তারা কেউ কেউ হয়ত শিখে নিতে চান প্রিয় বাদ্যের ব্যবহার বা বাজানোর উপায়।

হারমোনিয়াম, গিটার, তবলা কিংবা বাঁশি শেখানোর জন্য অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে আমাদের দেশে। তবে এই তালিকায় কিছুটা কোণঠাসা হয়ে রয়েছে হৃদয়ে করুণ সুর তোলা বাদ্যযন্ত্র ‘ভায়োলিন’। দেশের বাইরে এটি শেখানোর অনেক প্রতিষ্ঠান থাকলেও আমাদের দেশে নেই বললেই চলে। ভায়োলিনের প্রেমে যারা মুগ্ধ তাদের জন্যই এবার সুবার্তা নিয়ে আসছে ‘ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশ।’

ভায়োলিনছবি : শিক্ষক শ্যামল চক্রবর্ত্তীর তত্বাবধানে শিক্ষার্থীরা

‘ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশ’ হচ্ছে হাতে-কলমে ভায়োলিন শেখানোর প্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি যার হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে তিনি হলেন শ্যামল চক্রবর্ত্তী।

ভায়োলিনছবি : ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশের ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা

ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশ সম্পর্কে শ্যামল চক্রবর্ত্তী দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘হারমোনিয়াম, গিটার, তবলা কিংবা বাঁশি নিয়ে অনেক প্রতিষ্ঠান থাকলেও এদেশে ভায়োলিন শেখানোর কোন প্রতিষ্ঠান দেখিনি। আমি যখন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রসংগীত বিভাগ থেকে বেহালায় উপরে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করি তখন থেকে ইচ্ছা ছিলো কিছু একটা করার।’

তিনি আরো বলেন, ‘ভারত থেকে তালিম নিয়ে দেশে আসার পরে দেশের যন্ত্র সংগীত অবস্থান দেখে ২০১৯ -এ  যন্ত্র সংগীতের প্রসার লক্ষ্যে একক হাতে ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশ নামে বেহালা একাডেমির যাত্রা শুরু করি। বেহালা নিয়ে আমাদের দেশের মানুষদের ভিতর খুব সাড়া পাবো বলে প্রথম দিকে মনে হয়নি আমার কিন্তু কিছু দিনের ভিতরে  বুঝতে পারলেন আমার ধারনাটি ভুল ছিলো। প্রথম ধানমন্ডিতে একটি শাখা খুললেও এখন রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে সাতটি শাখা আছে।বর্তমানে, মিরপুর, ধানমন্ডি, উত্তরা, গুলশান, এলিফ্যান্ট রোড, মালিবাগ ও ওয়ারীতে শিক্ষার্থীদের তালিম দেয়া হচ্ছে।’  

ভায়োলিনছবি : হাতে-কলমে ভায়োলিন শিখছে শিক্ষার্থীরা

একাডেমির উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘এই একাডেমির মূল উদ্দেশ্য হলো ভবিষ্যতে বাংলাদেশের যন্ত্রসংগীত প্রসার লক্ষ্যে (বেহালা) কাজ করে উপযুক্ত তালিমের মাধ্যমে যোগ্য ও মননশীল শিক্ষার্থী তৈরি করা এবং দেশের যন্ত্রসংগীতে বিশেষ অবদান রাখ চাই।’

ভায়োলিনছবি : ক্রিয়েটিভ ভায়োলিন একাডেমি অফ বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা

উল্লেখ্য, শ্যামল চক্রবর্ত্তী ২০১৬-১৭ সাল রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রসংগীত বিভাগ থেকে বেহালায় প্রথম শ্রেণীতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। এরই সাথে তিনি প্রাচীন কলাকেন্দ্র চণ্ডীগড় থেকে যন্ত্রসংগীতে ‘সংগীত বিশারদ’ উপাধি অর্জন করেন। এছাড়া তিনি পদ্মভূষণ ড. এন রাজম এবং এন গনেশের অধীনে ‘গুরুকুলে’ বেহালার তালিম নিয়েছেন। বর্তমানে তিনি বুলবুল একাডেমী অফ ফাইন আর্টসে বেহালা শিক্ষক হিসেবে নিয়োজিত আছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড