• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

তামিমদের আইপিএলের পথ দেখালেন দ্বীপ দাশ

  ক্রীড়া ডেস্ক

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৯
দ্বীপ দাশ গুপ্ত
ভারতের সাবেক ক্রিকেটার দ্বীপ দাশ গুপ্ত। (ছবি: সংগৃহীত)

বছর তিনেক আগে আইসিসির পূর্ণ সদস্য দেশ হয়েছে আফগানিস্তান। অন্যদিকে ২০০০ সাল থেকেই এ সম্মান রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। কিন্তু ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটে দেখা যায় উল্টো চিত্র।

আইপিএলে আফগানিস্তান থেকে প্রতি মৌসুমেই খেলে থাকেন ৩-৪ জন ক্রিকেটার। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে এখন দুজনের বেশি ক্রিকেটার দেখা যায় না আইপিএলে। আইপিএলের এবারের আসরে বাংলাদেশ থেকে রয়েছে মোস্তাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসান।

একটা সময় ছিলো, যখন শুধু সাকিব আল হাসান একাই খেলার সুযোগ পেতেন আইপিএলে। পরে ২০১৬ সাল থেকে তার সঙ্গে নিয়মিত হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। এর আগে মাশরাফি বিন মর্তুজা, আব্দুর রাজ্জাক ও মোহাম্মদ আশরাফুলরা একটি করে ম্যাচ খেলেছেন জমজমাট এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট।

প্রতিবেশী দেশ হওয়ার পরেও আইপিএলে বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের এতো কম সুযোগ পাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করেছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার দ্বীপ দাশ গুপ্ত। পাশাপাশি তামিম-মুশফিকদের আইপিএলে খেলার পথটাও বাতলে দিয়েছেন রঞ্জিতে বাংলা দলের হয়ে খেলা এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে দ্বীপ দাশ গুপ্ত বলেছেন, ‘আইপিএলে যারা খেলতে আসে তাদের বেশিরভাগ আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে। দ্বিতীয়ত অনেকে বিশ্বজুড়ে নানান টি-টুয়েন্টি লিগ খেলে বেড়াচ্ছে। এসব ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের পারফরম্যান্স সবসময়ই মূল্যায়িত হয়। আইপিএলের দলগুলো দেখে ক্রিকেটাররা বিগ ব্যাশ বা সিপিএলে কেমন খেলছে।’

বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, যখন বাংলাদেশি খেলোয়াড়রা বেশি বেশি বিভিন্ন লিগে খেলা শুরু করবে, তখন তাদের পারফরম্যান্স আরও বেশি বেশি সামনে আসবে। তখন হয়তো আপনারা আইপিএলেও আরও বেশি বাংলাদেশি ক্রিকেটার দেখতে পাবেন।’

ওডি/জেআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড