• সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বউয়ের চেয়ে রোনালদোর সঙ্গে বেশি সময় কাটিয়েছেন তিনি

  ক্রীড়া ডেস্ক

১২ অক্টোবর ২০১৯, ২০:১৬
রবার্তো কার্লোস
সাবেক ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার রবার্তো কার্লোস (ছবি: সংগৃহীত)

ব্রাজিল ও রিয়াল মাদ্রিদের সর্বকালের অন্যতম সেরা লেফট ব্যাকের তালিকায় থাকবে রবার্তো কার্লোসের নাম। এছাড়া রিয়াল মাদ্রিদের গ্যালাক্টিকোস যুগের অন্যতম সদস্য তিনি। জাতীয় দল ও রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে দীর্ঘদিন খেলা সাবেক এ ফুটবলার জানালেন ফুটবলারদের জীবনযাপন ও দলে খেলোয়াড়দের প্রভাব সম্পর্কে।

রবার্তো কার্লোস, লুইস ফিগো, জিনেদিন জিদান, রোনালদো, ডেভিড বেকহাম, রবিনহো, মাইকেল ওয়েন, রাউল গঞ্জালেস, ইকার ক্যাসিয়াস, রবার্তো কার্লোস, গুতি, ক্লদ ম্যাকলেলেদের নিয়ে রিয়াল গড়েছিল তাদের ইতিহাসের অন্যতম সেরা দল। ২০০০ থেকে ২০০৭ সাল এ সময়টাতে এ দলটিই বিশ্ব ফুটবল শাসন করেছে। সে সময়ে এ দলটি তিনবার লা লিগা ও একবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছিল। 

মাঠে দুর্দান্ত খেলা দলটি অবশ্য মাঠের বাইরে পুরো বিপরীত ছিল। রিয়ালের মতো ক্লাবে খেলেও কার্লোসরা সময়টাকে যেভাবে উপভোগ করেছিলেন সে ব্যাপারে এবার মুখ খুললেন কার্লোস। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে কার্লোস বলেন, ‘এখন পেছন ফিরে তাকিয়ে ভাবি অমন পাগলাটে জীবন কাটানো কীভাবে সম্ভব হলো? প্রতিটি ম্যাচ শেষে ব্যক্তিগত বিমান দেখতাম। বাজারাসে ব্যক্তিগত টার্মিনালে দেখা হতো সবার সঙ্গে। বেকহাম কোথায় উড়াল দিত তা ঈশ্বর বলতে পারে। ফিগো আর জিদানও যেন কোথায় যেত। রোনালদো ও আমি ম্যাচের পরদিন অনুশীলন করতাম। আমি সব সময় শনিবারের ম্যাচের অপেক্ষায় থাকতাম। কারণ তাহলে পরের দিন ফর্মুলা ওয়ান দেখতে যেতে পারতাম। তখন আশপাশে ব্যক্তিগত বিমানের ছড়াছড়ি ছিল। পাগলাটে জীবন আরকি।’

সে সময়ে রিয়াল মাদ্রিদে কার্লোসের সতীর্থ ছিলেন আরেক ব্রাজিলিয়ান রোনালদো লিমা। এছাড়া জাতীয় দলেও ১৯৯৩ সাল থেকে বহুদিন একসঙ্গে খেলেছেন এ দুজন। রোনালদোর সঙ্গে ক্যারিয়ারে সবচেয়ে বেশি সময় কাটিয়েছেন তিনি। এ ব্যাপারে কার্লোস বলেন, ‘১৯৯৩ সালে রোনালদোর সঙ্গে দেখা হয়। এরপর আমরা সব সময় এক কামরায় থেকেছি। নিজের বউয়ের চেয়ে রোনালদোর সঙ্গে বেশি সময় কেটেছে আমার।’

অন্যদিকে গ্যালাক্টিকোস যুগে ক্লাবের ওপরও প্রচণ্ড প্রভাব ছিল খেলোয়াড়দের। এমনকি খেলোয়াড়দের কারণে ভ্যান্ডারলি লুক্সেমবার্গকে মাদ্রিদ ছেড়ে দিতে হয়েছিল। এ ঘটনার ব্যাখ্যা দিয়ে কার্লোস বলেন, ‘সেটি লিগের দ্বিতীয় ম্যাচের কথা। হোটেলে ব্যাগ রেখে রাতের খাবারের আগে ওয়াইন কিংবা বিয়ার খাওয়ার প্রথা ছিল আমাদের। টেবিলে সব সময় দুই বোতল ওয়াইন থাকত। রোনালদো ও আমি তাকে (লুক্সেমবার্গ) বলেছিলাম, প্রফেসর এখানে সবার কিছু অভ্যাস আছে আর সেগুলো আপনি দেখতেই পাচ্ছেন। এসব পাল্টানোর চেষ্টা করবেন না। টেবিল থেকে ওয়াইনের বোতল সরানো কিংবা রাতের খাবারের আগে বিয়ার বন্ধ করা যাবে না। তাহলে সমস্যায় পড়বেন। কিন্তু সে কী করল? প্রথমে ওয়াইন এবং তারপর বিয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল। মাত্র তিন মাস টিকতে পেরেছিল। ফুটবলের দুনিয়া ছোট, (বোর্ড) পরিচালকদের কানে যাওয়ার পর তাকে বিদায় বলে দিয়েছিল।’

ওডি/এমএমএ
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড