• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

লঙ্কান ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্তে ব্যথিত শোয়েব আখতার

  ক্রীড়া ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৪২
শোয়েব আখতার
শোয়েব আখতার (ছবি : সংগৃহীত)

শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে আর টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গাসহ আরও দশজন ক্রিকেটার পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি নন। লঙ্কান ক্রিকেটারদের এমন সিদ্ধান্তে ব্যথিত হয়েছেন পাকিস্তানের অনেক সাবেক ক্রিকেটাররা। তাদের মধ্যেই একজন পাক তারকা পেসার শোয়েব আখতার।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) পাকিস্তান সফরের জন্য ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিতে ১৫ জনের স্কোয়াড দিয়েছে সিংহলিজ ক্রিকেট বোর্ড। যেখানে প্রথম সারির শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের নাম নেই। লঙ্কান ক্রিকেটারদের এমন সিদ্ধান্তে ব্যথিত হয়ে টুইটারে আখতার লেখেন, ‘পাকিস্তান সফর থেকে যে সকল শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন তাদের কথা ভেবে হতাশ আমি। পাকিস্তান শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে সবসময় সমর্থন জুগিয়ে এসেছে। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসবাদী হামলার পর প্রথম আন্তর্জাতিক দল হিসেবে পাকিস্তান তাদের অনুর্ধ্ব-১৯ দলকে সেদেশে পাঠিয়েছিল। ১৯৯৬ বিশ্বকাপের কথা কে ভুলতে পারে। অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন শ্রীলঙ্কায় তাদের দল পাঠাতে অস্বীকার করেছিল, পাকিস্তান তখন প্রীতি ম্যাচ খেলার জন্য ভারতের সঙ্গে তাদের দল পাঠিয়েছিল কলম্বোয়। আমরা সৌজন্য আশা করেছিলাম। তাদের ক্রিকেট বোর্ড এ বিষয়ে সহযোগিতা করছে। ক্রিকেটারদেরও করা উচিত ছিল।’

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে পাকিস্তানের মাটিতে তিনটি ওয়ানডে এবং তিনটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলার কথা লঙ্কানদের। শ্রীলঙ্কা বোর্ড আগেই জানিয়ে দিয়েছিল, শুধু মাত্র যারা যেতে চাইবেন, তাদেরই ওই সফরে নিয়ে যাওয়া হবে। এর পরে মালিঙ্গাসহ দশজন ক্রিকেটার এই সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নেন। যা নিয়ে তুমুল ক্ষোভ দেখা যায় পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটারদের মধ্যে।

ক্লাব স্তরের দল নিয়ে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। তবুও এই সফর নিয়ে নতুন করে তৈরি হয়েছে শঙ্কা। শ্রীলঙ্কা বোর্ড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে জানানো হয়েছে, পাক সফরে শ্রীলঙ্কা দলের ওপর সন্ত্রাসবাদীরা আক্রমণ চালাতে পারে। যে জন্য আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা নতুন করে খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

২০০৯ সালে লাহৌরে টেস্ট চলাকালীন শ্রীলঙ্কার টিম বাসে সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়। ছয় জন ক্রিকেটার আহত হয়েছিলেন। পাকিস্তানের ছয় পুলিশ কর্মী ও দুজন সাধারণ মানুষ মারা গিয়েছিলেন। এই ঘটনার পর থেকেই অধিকাংশ দেশ পাকিস্তানে খেলতে রাজি হয়নি। 

ওডি/এএপি 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড