• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও হারল বাংলাদেশ

  ক্রীড়া ডেস্ক

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৪৫
ব্রেন্ডন টেইলর
ব্রেন্ডন টেইলর (ছবি : সংগৃহীত)

আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজকে সামনে রেখে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামে বিসিবি একাদশ। যেখানে এই ম্যাচটিও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। ১৬ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটে জয় পেয়েছে সফরকারীরা। এই জয়ে মূল লড়াইয়ের আগে প্রস্তুতিটা ভালোই সেরে নিল মাসাকাদজারা।

জিম্বাবুয়ের ওপেনিং জুটিতে আসে ৪২ রান। অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ২৩ বলে ৩১ রান করে ফিরলে ওপেনিংয়ে থাকা ব্রেন্ডন টেইলর দলের হাল ধরেন। মধ্যে দ্বিতীয় ও তৃতীয় উইকেটে ক্রেইগ আরভিন ও শন উইলিয়ামস তেমন কিছু করতে না পারলেও চতুর্থ উইকেট জুটিতে টিমাইসেন মারুমাকে সঙ্গে নিয়ে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন অভিজ্ঞ টেইলর। 

শেষ পর্যন্ত ৪৪ বলে ৫৭ রানে অপরাজিত ছিলেন টেইলর; এছাড়া ২৮ বলে ৪৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলা মারুমাও ছিলেন অপরাজিত। বাংলাদেশের হয়ে কেবল আফিফ হোসেন পেয়েছেন ৩টি উইকেট। 

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪২ তোলে বিসিবি একাদশ। টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম (৩১ বলে ৩০)। শুরুতে ওপেনিং জুটিতে ভালোই স্কোর আসে বাংলাদেশের। দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও মোহাম্মদ নাইমের জুটিতে ২৬ রান আসলে ১৯ বলে ২১ রানে বোল্ড হন সাইফ।

এরপর ক্রিজে আসেন জাতীয় দলের তারকা ব্যাটার সাব্বির রহমান। উইকেটে থাকা নাইমকে সঙ্গে নিয়ে দলীয় রান ৫৩ তে নিতেই ফিরে যান নাইম (১৪ বলে ২৩ রান)। এরপর উইকেটে আসেন মুশি; সাব্বির-মুশি জুটিতে দলীয় রান দাঁড়ায় ১০৬ এ; ৩১ বলে ৩০ করে আউট হন সাব্বির। 

সাব্বিরের পরপরই ফিরে যান মুশি; ২৬ বলে ২৬ রান করেছিলেন জাতীয় দলের এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। শেষের দিকে আফিফ হোসেন, আরিফুল ইসলাম ও সাইফ মিলে দলীয় রান ১০৭ থেকে ১৪২ এ নিয়ে যান; সাইফ অপরাজিত ছিলেন ৭ রানে। 

ওডি/এএপি 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড